শিগগিরই মাঠে ফিরছেন সাকিব আল হাসান! | Nobobarta

শিগগিরই মাঠে ফিরছেন সাকিব আল হাসান!

নিষেধাজ্ঞার খড়্গ কাটিয়ে ওঠার দ্বারপ্রান্তে থাকা বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে শিগগিরই মাঠে দেখা যেতে পারে আশা করা যাচ্ছে। টাইগারদের আসন্ন শ্রীলঙ্কা সফরে টেস্ট সিরিজে না পারা গেলে তারকা এই অলরাউন্ডারকে টি-টোয়েন্টিতে খেলতে দেখা যেতে পারে।

জুয়াড়ির প্রস্তাব সংশ্লিষ্টদের না জানানোয় এক বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞার মধ্যে আছেন সাকিব। ২৯ অক্টোবর শেষ হতে যাচ্ছে সেই শাস্তি। সাকিবের শাস্তি যখন শেষ হওয়ার দিন কুড়ি পর তথা ২০ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কার উদ্দেশ্যে উড়াল দেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এই সফরে তিন ম্যাচের টেস্ট ও একটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার কথা বাংলাদেশ দলের। সিরিজ দুটি উপলক্ষে বাংলাদেশ দলের দেশ ছাড়ার দিন-তারিখ জানানো হলেও ম্যাচের সংখ্যা এখনো ঠিক করা হয়নি। তবে টেস্ট সিরিজটি হতে পারে দুই-তিন ম্যাচের, আর টি-টোয়েন্টি সিরিজটি তিন ম্যাচের।

সিরিজের আগেই সাকিবের নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়ে যাওয়ায় তাতে সাকিবের খেলার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। জাতীয় দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো জানালেন, দেশসেরা এই ক্রিকেটারের খেলার বিষয়টি তার ফিটনেসের ওপর নির্ভর করছে। কোচ ডমিঙ্গো অবশ্য জানালেন, সাকিবের শারীরিক ফিটনেসের অবস্থা দলের অন্য খেলোয়াড়দের মতো হওয়ারই কথা। কেননা কভিড-১৯ মহামারির কারণে দলের বাকি খেলোয়াড়রা ছয় মাস ধরেই মাঠের বাইরে সময় কাটাচ্ছেন।

এ ব্যাপারে ইএসপিএনক্রিকইনফোকে ডমিঙ্গো বলেন, “আমি মনে করি, ছয়-সাত ধরে খেলার বাইরে থাকা আমাদের দলের বাকি খেলোয়াড়দের চেয়ে এক বছর ধরে বাইরে থাকা সাকিবের অবস্থার খুব পার্থক্য নেই।” “আমরা আশা করছি, সকল খেলোয়াড় ফিট থাকবে। অবশ্যই, ফিটনেসের মানদণ্ডটা তাদের অর্জন করতে হবে। সাকিব ও অন্য সকল খেলোয়াড়কে খেলার জন্য প্রস্তুত হতে কিছুটা সময় আমাদের দিতে হবে।”

Rudra Amin Books

“কোনো ধরনের ক্রিকেট খেলা ছাড়া আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রবেশ করাটা খুবই কঠিন। তাকে খেলানোর জন্য আমাদের কিছু সুযোগ বের করে নিতে হবে। সে বিশ্বমানের ক্রিকেটার। আমি নিশ্চিত, সে শিগগিরই ফিরবে। তবে ফিটনেস গুরুত্বপূর্ণ একটা ব্যাপার।” সাকিব বর্তমানে নিষিদ্ধ থাকায় নিজেকে ফিরে পাওয়ার জন্য কিছু আন-অফিশিয়াল ম্যাচ খেলতে পারে বলে করেন বাংলাদেশ কোচ। তার মতে, আগামী দু-এক মাসে তার ফিটনেস লেভেলটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ হবে।

“বিষয়টি নিয়ে আমাদের নির্বাচকদের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। ২৯ অক্টোবরের আগে সে কোনো অফিশিয়াল ম্যাচ খেলতে পারবে বলে আমি মনে করি না। তাই, তার খেলা সবগুলো ম্যাচ আন-অফিশিয়াল হতে হবে। এটা হতে পারে আন্তঃ দলের ম্যাচ। তবে নিষেধাজ্ঞায় থেকে সেটাও করা যাবে কি-না সে ব্যাপারে আমাদের পরিষ্কার হতে হবে।” “তাকে নিশ্চিত করতে হবে, সে ফিট, ব্যাট করতে পারে। কিছু বোলিং করতে পারে…এখন অনেক সময় বাকি। এটা মাত্র আগস্ট। দুই-আড়াই মাসের মধ্যে তার নিষেধাজ্ঞা শেষ হবে। সে যখন ফিট হবে তখনই নেওয়া হবে। সে পর্যন্ত আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।”

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.