বাড়ী ভাড়া মওকুফসহ ঋনের কিস্তি স্থগিতের দাবি, প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা | Nobobarta

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনে রাসেল মিয়া

বাড়ী ভাড়া মওকুফসহ ঋনের কিস্তি স্থগিতের দাবি, প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা

 

এম নজরুল ইসলাম দয়া, ঢাকা ::  করোনাভাইরাসের কারণে বাংলাদেশের সবকিছুই যেন থমকে গেছে। কর্মজীবী মানুষ কর্মস্থলে যেতে পারছেন না। খেটে খাওয়া মানুষের দিকে একবার তাকিয়ে দেখুন, যারা দিন এনে দিন খায়। কর্মে স্থবিরতা নেমেছে, নিম্ন আয়ের মানুষগুলো খাবে কি ! সংসার চলবে কি করে ! এরমধ্যে আবার বাড়ী ভাড়া ! আছে ব্যাংক-এনজিও’র ঋণের কিস্তি ! মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করছি। দেশের সব বাড়িয়াওলারা এই দুর্যোগের সময় ভাড়াটিয়াদের পাশে দাঁড়ানো উচিত। নিম্ন আয়ের মানুষগুলোর দিকে সামর্থ্যবানদের সু-দৃষ্টি দেয়ার অনুরোধ করছি।

‘আমি রাসেল মিয়া দেশের একজন নাগরিক হিসেবে অনুরোধ করছি, একটু বিবেচনা করুন। রিকশাওয়ালাদের রাস্তায় যাত্রী নেই, অধিকাংশ ব্যবসায়ীদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ, দিনে এনে দিনে খাওয়া পরিশ্রমী মানুষগুলো আজ বড়োই অসহায়। ভাড়াটিয়াদের দুর্যোগকালীন বাড়ী ভাড়া মওকুফের অনুরোধ করছি। ব্যাংক-এনজিও সহ সকল প্রকার কিস্তি স্থগিত করার দাবি জানাচ্ছি। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় আদালত হলো মানুষের বিবেক। সকলের বিবেকের কাছেই আমার প্রশ্ন রইলো।

করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশ সরকারকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, নিয়ম মেনে চলুন। আল্লাহ’কে ডাকুন, তিনি এই দুর্যোগ থেকে আমাদের রক্ষা করবেন। আমিন।

Rudra Amin Books

সোমবার (২৩ মার্চ) বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে সংশোধন চলচ্চিত্রের নির্মাতা ও অভিনেতা মো. রাসেল মিয়া বক্তৃতাকালে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

তিনি বলেন, অসাধু কিছু ব্যবসায়ীরা করোনাভাইরাসকে পুঁজি করে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বৃদ্ধি করার অপচেষ্টা করছে। ‘ওরা করোনার চেয়েও ক্ষতিকর ভাইরাস !’ সংকটময় পরিস্থিতিতে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো উচিত। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম কমানোর দাবি জানাচ্ছি।

অভিনেতা রাসেল মিয়া বলেন, সম্প্রতি দেখেছি ‘র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে বেশকিছু ব্যবসায়ীর অর্থদন্ডও করা হয়েছে। র‌্যাবের এই অভিযানের প্রসংশা করেছে সাধারণ মানুষ। দেশের প্রতিটি নিত্যপণ্যের বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নিয়মিত মনিটরিং করার অনুরোধ করছি।

মানববন্ধনে রাসেল মিয়া’র সাথে উপস্থিত ছিলেন মনিরুল ইসলাম মনির ও সৈয়দ আজমল হক।

 

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.