আজ রবিবার, ১৬ Jun ২০১৯, ০৫:৪১ অপরাহ্ন

হিতে বিপরীত । রহিমা আক্তার রীমা

হিতে বিপরীত । রহিমা আক্তার রীমা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  

হুনছি আমাগো খান সাহেবের বাসায় নাকি আজ যাকাত দিবো, মাইকে কাইল হাইঞ্জাবেলা ঘোষণা দিছে। তাই আমি আজ অনেক খুশি, কত খুশি খুইল্যা কইতে পারুম না! হারাডা বছর আশায় থাহি কহন আইবো এই দিনডা, কারণ হারা বছরতো আর নতুন কাপড় মায়েরে কিন্যা দিতো পারি না!

মায়ের ছিঁড়া কাপড়ে সত্তরডা তালি, তাও এক্ষান কাপড়েই বছর পার করতে অয়! আমি এক অভাগা সন্তান যা কামাই করি দুইবেলা পেট পুইড়া ভাতই দিতাম পারি না, আবার কাপড়? হের পরেও মায়ের অসুধের টেহা, ছোড ভাইডার ইস্কুলের খরচ, তবুওতো বাজান মরার পরে আমি হেগো একমাত্র ভরসা। তাই আইজ কামে যাইতাম না, একটা কাপড় পাইলে মার হাসিমুখটাতো দেখতে পারমু, হেইডা দেখলেই পরানডা জুড়াইবো আমার। অনেক সকালে আইজ ঘুমেত্তে উঠছি,দেরী অইলে আবার পিছে পরমু পরে কাপড় ভাগে পাইতাম না। আধা ছিঁড়া লাল পিরানডা পইড়া,মাতায় তেল মাইখ্যা হিতাপাডি কইরা এক্কেবারে সাহেবগো লাহান কইড়া বারুইছি মার কাছে বিদায় লইয়া, মায়রে কইছি যাইগো মা তোমার হাসি আনতে তুমি অপেক্ষা করো।

ঐতো দূর থেইক্যা দেহা যায় কত্ত বড় লাইন, আমি তাত্তাড়ি দৌঁড় দিতে গিয়া এক গর্তে পা দিয়া কি ব্যথাডাইনা পাইলাম,পা ছিল্লা রক্ত পরতাছে থাক পরুক, মায়ের হাঁসির কাছে এই ব্যথা কিচ্ছু না। লাইনে যাইয়া খাড়াইতে তো পারছি শেষমেষ,একে একে কাপড় দিতাছে আর কয়ডা কাপড় আছে মানুষও মেলা! সবাই হৈচৈ করা শুরু করলো, কার আগে কেডা নিবো, সবাই যে আমার লাহান স্বপ্ন নিতে আইছে। বড় বড় মানুষগো ধাক্কায় আমি মাডিতে পইড়া গেলাম, আমি সবার পায়ের নিচে কেউ দেখতাছে না, সবাই স্বপ্ন নিতে দৌড়াইতাছে! আহ! আমার খুব কষ্ট হইতাছে কেউ আম্রে বাঁচান, বাঁচান আম্রে!

ওই রাহেলা খালা, আমেনা খালা, রমিজা হুফু আমারে বাঁচান, আমার খুব কষ্ট হইতাছে, তোমরা না আমারে কত্ত আদর করো আর কও তোর চোহে মায়া আছেরে বাঁছা, দেখলেই আদর করতো মুনচায়। আজ একটা কাপড়ের জন্যি তোমরা আমারে এই কষ্টের মাঝে ফালাইয়া দৌড়াইতাছো! ওই রহিম, মনুল আমারে ধর তোরা, দোস্ত আমি পায়ের নিচে পিষাইয়া যাইতাছি, অনেক কষ্ট হইতাছে দোস্তরা আমারে বাঁচা তোরা, বাঁচা আমারে! তোরা না কইতি আমি তগো লগে থাকলে সাবেরা আমার সাথে তগোও বেশী টাকা দেয়, এজন্য সবাই আমারে লইয়া যাছ সব সুময়, আজ কেন নেছনারে দোস্তরা?

বুঝচ্ছি কেউ আইতো না আমারে বাঁচাইতো, কেউ না! আমিতো মায়ের একটু স্বপ্ন কিনতে আইছিলাম, আর সারাজীবনের স্বপ্ন আইজ নিজেই নিয়া যাইতাছি পরপারে!
হে উপরওয়ালা আমারে তোমার কাছে নিয়া যাইতাছো নেও, আমার মা ভাইরে বাঁচার মত একটা অবলম্বন দিও তুমি। আমি আর পারতাছি না, আমার শ্বাস বন্ধ হইয়া আসতাছে, মাগো-মা আমি যাই, যাই গো মা তোমার কলিজার টুকরাটার লাইগা একটু দোয়া কইরোগো মা, আর অভাবে যহন খিদার জ্বালায় অনেক কষ্ট হইবো আমারে অভিশাপ দিও না গো মা, আমি তো তোমার হাঁসি নিতে আইছি, ফিরছি তোমার সারাজীবনের কান্দা লইয়্যা।

আমি গেলাম……গেলাম গা গো মা স্বার্থপরের লাহান!!

৩০-৫-১৮(সকাল-১১:৩০ মি)

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন




Leave a Reply

কে এই যুবক? টিস্যু দিয়ে বঙ্গবন্ধুর বিকৃত ছবি পরিস্কার করছে



© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com