আজ বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৪:০৪ পূর্বাহ্ন

ভোট আসলেই রুপ পাল্টায় রামগতির আজাদ উদ্দিন চৌধুরী

ভোট আসলেই রুপ পাল্টায় রামগতির আজাদ উদ্দিন চৌধুরী

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:
ভোট আসলেই রুপ পাল্টায় লক্ষ্মীপুরের রামগতির জাতীয় পার্টির নেতা আজাদ উদ্দিন চৌধুরী প্রকাশ ভুমিহীন আজাদ। আজাদ ২০১৫ সালের সালের ২ ডিসেম্বর বনানীস্থ জাতীয় পার্টির রাজনৈতিক কার্যালয়ে চেয়ারম্যান হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদের হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে স্ব-স্ত্রীক জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেন। এর আগে আজাদ উদ্দিন ২০১০ সালে আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে রামগতি পৌর সভার চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে পরাজিত হন। এছাড়া ২০০৫ সালে তিনি রামগতি উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন আজাদ উদ্দিন চৌধুরী। সম্প্রতি উপজেলা চেয়ারম্যান পদে এবার আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন কিনেছেন। অপরদিকে আওয়ামীলীগের বর্ধিতসভায় উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে আজাদ উদ্দিন চৌধুরীর নাম দিয়ে কেন্দ্রেও পাঠিয়েছে জেলা আওয়ামীলীগ। ইতিমধ্যে তিনি আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন কিনে তা জমা দিয়ে তদবীর চালিয়ে যাচ্ছেন। এ ঘটনায় আওয়ামী লীগ দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

জানা যায়, আজাদ উদ্দিন চৌধুরী ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রামগতি কমলনগর আসনে সংসদ সদস্য পদে আওয়ামীলীগের প্রার্থী মোহাম্মদ আবদুল্লাহর বিপরীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর বিপক্ষে নির্বাচন করে পরাজিত হন। পরবর্তীতে তিনি রামগতি পৌর সভা নির্বাচনে আবারো আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন চেয়ে না পেয়ে ২ ডিসেম্বর ২০১৫ সালে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদের হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে স্ব-স্ত্রীক জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেন। সে সময় জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে তিনি রামগতি পৌর সভায় মেয়র পদে প্রতিদ্বন্ধীতা করে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী মেজবাহ উদ্দিন মেজুর কাছে পরাজিত হন। জাতীয় পার্টিতে যোগদানের পর থেকে আজাদ উদ্দিন প্রকাশ ভুমিহীন আজাদকে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে আর কখনো দেখা না গেলেও সম্প্রতি তিনি উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার জন্য চেষ্টা তদবীর চালিয়ে যাচ্ছেন। এ দিকে চলতি বছরের ৩০ জানুয়ারী রামগতি উপজেলা চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন দেওয়ার লক্ষ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শুরুর আগে আজাদ উদ্দিন প্রকাশ ভুমিহীন আজাদ তার অনুগতদের নিয়ে উক্ত সভায় বিশৃংখলার সৃষ্টি করে। এ সময় দুই পক্ষের ১০জন আহত হয়।

দলীয় নেতা কর্মীদের সূত্রে জানা যায়, আজাদ উদ্দিন এক সময় বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয় ভাবে জড়িত ছিল। ২০০৫ সালে তিনি রামগতি উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে তার চাচা শ্বশুর সাবেক সিএসপি অফিসার এডভোকেট আব্দুর রব চৌধুরী বিএনপি ছেড়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করলে আজাদ উদ্দিন আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় হন। আজাদ উদ্দিন ২০১০ সালে আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে রামগতি পৌর সভার চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে পরাজিত হন। আরো জানা যায়, আজাদ উদ্দিন চৌধুরী ভোট আসলেই রুপ পাল্টায়। সে কখনও আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথ জড়িত ছিলেন না। বর্তমানেও নেই। সে পূর্বে বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিল।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, আজাদ উদ্দিন দলীয় প্রভাব খাটিয়ে চর দখল থেকে শুরু করে নিরীহ মানুষের ওপর হামলা ও লুটপাট এবং অগ্নিসংযোগ সহ নানা তান্ডব লিলা চালায় বলে অভিযোগ উঠে। আওয়ামী লীগের সাধারণ নেতা কর্মীরা সে সময় তার তান্ডব লিলা থেকে রক্ষা পায়নি। এসব ঘটনায় তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা হলে আজাদ উদ্দিন কারাবন্দি হন। বর্তমানেও তার বিরুদ্ধে কয়েকটি মামলা রয়েছে। বিগত সময় আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের হয়রানি করে আসলেও আজাদ উদ্দিন সেই আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন লাভের জন্য চেষ্টা তদবীর অব্যহত রাখায় হতবাগ দলীয় নেতা কর্মীরা।

রামগতি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুল ওয়াহেদ দাবী করেন, আজাদ উদ্দিন চৌধুরী কখনও আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলনা। বর্তমানে আওয়ামীলীগের কেউ নয়। তিনি বর্তমানে জাতীয় পার্টির রাজনীতির সাথে জড়িত রয়েছে। এর আগে বিএনপির রাজনীতি করত বলে দাবী করেন তিনি। তাকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হলে দলের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন হবে এবং তৃনমূলের নেতাকর্মীরা তা মেনে নিবে না বলেও জানান তিনি। ৩০ জানুয়ারী আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় ও তার সমর্থকদের হামলায় কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়।

রামগতি উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মেজবাহ উদ্দিন হেলাল প্রকাশ ভিপি হেলাল বলেন, আজাদ উদ্দিন চৌধুরী হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদের হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেন। তৃনমূলের নেতাকর্মীদের দাবী, দলের দুদিনে যারা দলের হাল ধরেছেন,তাদের মূল্যায়ন করে দলীয় মনোনয়ন দেয়ার দাবী জানান তিনি।

এ ব্যাপারে জানতে আজাদ উদ্দিন চৌধুরীর সাথে একাধিকবার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন




Leave a Reply

জনসম্মুখে পুরুষ নির্যাতন, ভিডিও ভাইরাল

Nobobarta on Twitter

© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com