আজ বৃহস্পতিবার, ১৮ Jul ২০১৯, ০৪:৩৯ পূর্বাহ্ন

রমজানের আগেই বাজার মনিটরিংয়ে সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি

রমজানের আগেই বাজার মনিটরিংয়ে সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি

  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
    8
    Shares

রমজান মাসের আগে সিলেটের বাজার নিয়ন্ত্রণে কার্যক্রম শুরু করেছে সিলেটের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি। সিলেট চেম্বার ও অব কমার্সের প্রতিনিধিদলের সাথে অংশগ্রহণ করেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ও বিএসটিআই এর কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার সকালে সিলেট নগরীর প্রধান পাইকারি পণ্যের বাজার লালদিঘীরপাড় ও কালিঘাটে বাজার মনিটরিংয়ে যান সিলেট চেম্বার নেতৃবৃন্দ। প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন সিলেট চেম্বারের সভাপতি খন্দকার সিপার আহমদ।

বাজার মনিটরিংকালে ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেন, সপ্তাহ খানেক আগে থেকেই পরিকল্পিতভাবে দেশের বৃহৎ চিনি কোম্পানিগুলো সংস্কারের কারণ দেখিয়ে চিনি সাপ্লাই কমিয়ে দিয়েছে। ফলে সিলেটের বাজারে গত এক সপ্তাহে চিনির দাম বেড়েছে এক থেকে তিন টাকা। রমজানের আগেই চিনি সরবরাহ স্বাভাবিক করার দাবি জানান পাইকারি ব্যবসায়ীরা।

পবিত্র রমজান মাসে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে গত বছর প্রথমবারের মতো সরকারি সংস্থার সাথে বাজার মনিটরিংয়ে নামেন চেম্বার নেতৃবৃন্দ। গত বছর সুফল পাওয়ায় এ বছর আবারও বাজার মনিটরিংয়ে নেমেছে সিলেট চেম্বার। পবিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে চলমান বাজার মনিটরিং কার্যক্রম শুরু হয় মঙ্গলবার থেকে।

বুধবারও নগরীর বিভিন্ন বাজার পরিদর্শন করবেন চেম্বার নেতৃবৃন্দ ও সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তারা।

সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি খন্দকার সিপার আহমদ জানান, গত বছর রমজানে আগে বাজার মনিটরিংয়ে ব্যাপক সুফল পাওয়া গেছে। ফলে এবার আমরা একটু আগেভাগেই বাজার মনিটরিংয়ে নেমেছি।

তিনি বলেন, চিনির দাম একটু ঊর্ধ্বমুখী রয়েছে। আশা করা হচ্ছে রমজানের আগে তা নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। এছাড়া বাকী সব পণ্যের মূল্য স্বাভাবিক রয়েছে।

চেম্বার সভাপতি বলেন, রমজান এলেই অতিরিক্ত পণ্য কিনে ঘরে নিয়ে রাখতে হবে, এই চিন্তা থেকে ভোক্তাসাধারণকে বেরিয়ে আসতে হবে। কারণ একসাথে বেশী চাহিদা সৃষ্টি হলেই মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

তিনি ব্যবসায়ীদেরকে আসন্ন পবিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে জনসেবার উদ্দেশ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনার আহবান জানান। কোন চক্র যাতে সিন্ডিকেট সৃষ্টির মাধ্যমে কৃত্রিমভাবে দাম বৃদ্ধি করতে না পারে সে বিষয়ে তিনি ব্যবসায়ীদেরকে সজাগ থাকার অনুরোধ জানান।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সিলেটের সহকারী পরিচালক (মেট্রো) মো. ফয়জুল্লাহ জানান, আমরা নিয়মিত বাজার মনিটরিং করছি। প্রতিটি দোকানে পণ্যমূল্য টানিয়ে রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সিলেট চেম্বারের বাজার মনিটরিং কার্যক্রমে ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তর পাশে থাকবে বলে তিনি জানান।

বাজার মনিটরিংয়ে দেখা যায় বর্তমানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজারমূল্য স্থিতিশীল রয়েছে। পেঁয়াজ প্রতি কেজি পাইকারি মূল্য ১৫ থেকে ১৮ টাকা, আদা ৭২ টাকা, রসুন ৮৫ টাকা, দেশি রসুন বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকা। চিনি গত সপ্তাহে ছিল ৪৮ টাকা, বর্তমানে এর দাম ৫১ থেকে ৫২ টাকা। চাল, ডাল, পেঁয়াজ, সয়াবিন, ছোলাসহ অন্যান্য পণ্যের দাম স্বাভাবিক রয়েছে।

নতুন চাল বাজারে চলে এলে চালের দাম আরও নামতে পারে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। এছাড়াও দেশের বৃহৎ চিনিকলগুলো চিনির সাপ্লাই স্বাভাবিক করলে দাম নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে বলে ব্যবসায়ীরা আশা প্রকাশ করেন।

বাজার মনিটরিংকালে উপস্থিত ছিলেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সিলেটের সহকারী পরিচালক (মেট্রো) মো. ফয়জুল্লাহ, মো. জাহাঙ্গীর আলম, বিএসটিআই সিলেটের ফিল্ড অফিসার প্রকৌশলী মো. রকিবুল হাসান রিপন, সিলেট চেম্বারের পরিচালক ও সিলেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি জিয়াউল হক, পরিচালক মো. সাহিদুর রহমান, মুশফিক জায়গীরদার, এহতেশামুল হক চৌধুরী, চন্দন সাহা, ফালাহ উদ্দিন আলী আহমদ, সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবির, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মুহিত চৌধুরী, ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি মামুন হাসান, সিলেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি হাজী মো. দিলওয়ার হোসেন, সিলেট চেম্বারের সদস্য মো. শফিকুল ইসলাম, হাজী ফারুক আহমদ, অন্যান্য ব্যবসায়ীবৃন্দ ও সাংবাদিকরা।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন


Leave a Reply

Nobobarta.com
Design & Developed BY Nobobarta.com