আজ শনিবার, ২৫ মে ২০১৯, ০৯:১৭ পূর্বাহ্ন

আমতলী এমইউ স্কুলের ভবনে ফাটল, ৭ শ্রেণীকক্ষ পরিত্যক্ত ঘোষনা

আমতলী এমইউ স্কুলের ভবনে ফাটল, ৭ শ্রেণীকক্ষ পরিত্যক্ত ঘোষনা

Amtali MU School

  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
    3
    Shares

মনিরুজ্জামান সুমন, আমতলী : আমতলী পৌর শহরের এম. ইউ (মফিজ উদ্দিন) মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতল ভবনের ছাদে হঠাৎ ফাটল দেখে শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ায় মঙ্গলবার সকাল ১০টায় বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি, শিক্ষক ও ছাত্র ছাত্রীদের সমন্বয়ে এক জরুরী সভায় বিদ্যালয়ের ১৩টি শ্রেণী কক্ষের ৭টি পরিত্যক্ত ঘোষনা করা হয়েছে।

জানা গেছে, আমতলী পৌরশহরের প্রাণকেন্দ্রে ১৯৬৯ সালে ২ .৮৬ শতাংশ জমিতে প্রতিষ্ঠিত হয় বিদ্যালয়টি। ১৯৮৫ সালে বিদ্যালয়টিতে একটি একতলা পাকা ভবন নির্মিত হয়। এরপর ২০০০ সালে আর একটি দোতলা ভবন নির্মিত হয়। ভবন ২ টিতে ১৮ কক্ষ রয়েছে। ৬ষ্ঠ শ্রেনী থেকে ১০ম শ্রেনী পর্যন্ত প্রায় ৭০০জন শিক্ষার্থী রয়েছে। বর্তমানে ভবন দু’টির অবস্থা খুবই নাজুক।

ভবনের ভিম ফেটে রড বেরিয়ে গেছে। খসে পড়ছে পলেস্তারা। দরজা, জানালাও রয়েছে নামমাত্র। প্রায়ই শিক্ষার্থীদের শরীরে খসে পড়ে পলেস্তারা। বৃষ্টি হলেই ছাদ ছুয়ে পড়ে পানি। ওই অবস্থায় জরাজীর্ণ ভবনে ঝুঁকি নিয়েই চলছে বিদ্যালয়ের কার্যক্রম। এ অবস্থায় মঙ্গলবার সকালে দ্বিতল ভবনে বড় দুটি ফাটক দেয়ায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী এনাম আহমেদ পুসান বলেন, শ্রেণী কক্ষের ছাদে ফাটল দেখে আমরা ভয়ের মধ্যে আছি। প্রধান শিক্ষক মো. নাসির উদ্দিন জানান, ৭০০ ছাত্র/ছাত্রীকে কি ভাবে পাঠদান করাবো বলতে পারছিনা। স্কুলের ভবনের ছাদে ফাটল ভীমে ফাটল খসে পড়ছে পলেস্তারা ভয় এবং আতংকের মধ্যে আছে শিক্ষক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি প্রভাষক জি, এম, ওসমানী হাসান বলেন, বিদ্যালয়টির ভবনের অবস্থা খুবই খারাপ প্রতিদিন পলেস্তরা খসে পড়ছে। ছাত্র ছাত্রী / শিক্ষক শিক্ষিকারা আতংকের মধ্যে শ্রেণী কক্ষে পাঠদান করছে। তিনি বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের নির্মানের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেন। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আকমল হোসেন খান বলেন, বিষয়টি শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরকে অবহিত করেছি। আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সরোয়ার হোসেন বলেন, স্কুলের ঝুঁকিপূর্ন কক্ষের পাঠদান বন্ধ করে দিয়েছি। ভবনের নাজুক অবস্থা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।স্কুলের ছাত্র ছাত্রী শিক্ষক শিক্ষিকা ও অভিভাবকরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। উল্লেখ্য গত ৬ এপ্রিল তালতলী উপজেলার ছোটবগি পিকে সংলগ্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাদের বিম ধ্বসে একজন শিক্ষার্থী নিহত ও ৩ শিক্ষার্থী আহত হওয়ায় জরাজীর্ণ ভবন দেখে শিক্ষার্থীরা আতংকের মধ্যে থাকে।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন




Leave a Reply

কে এই যুবক? টিস্যু দিয়ে বঙ্গবন্ধুর বিকৃত ছবি পরিস্কার করছে



Nobobarta on Twitter

© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com