আজ শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ০৪:৫৬ অপরাহ্ন

শ্রীনগরে মাঠে খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ : আহত ১৭

শ্রীনগরে মাঠে খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ : আহত ১৭

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  

মোহন মোড়ল, শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি: শ্রীনগরে মাঠে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ১৭ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। উপজেলার ষোলঘর ইউনিয়নের কেয়টখালী চন্দ্রের বাড়ী খেলার মাঠে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আহত ফিরোজ (৫২) জামাল (৪৫), মোকলেছ (৩৫), সাইফুল (১৭), আরিফ (১৮), আল ইসলাম (৫২), বারেক (৫১), সজিব (২০) মীর হোসেন (৩০), আলী হোসেন (৩৫), রমজান (৫০), খালেক (৪৫), নাহিদ মোড়ল (৪০), জাহিদ (২৭) সিরাজ (১৯), ইনসান (১৮), মোতালেব (৫০) এদের মধ্যে ফিরোজ ও জামালকে গরুতর আহত অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরন করা হয়েছে। বাকিদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন হাসপাতাল গুলোতে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, গত শুক্রবার ওই মাঠে পশ্চিম কেয়টখালীর লোকজন ফুটবল খেলছিল। খেলা চলাকালীন সময় একই গ্রামের দেওয়ান বাড়ীর লোকজন এসে তাদের আগে খেলতে দেয়ার অনুরুধ করেন। এ নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও চর থাপ্পরের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ সুলতান দুই গ্রুপের মধ্যে সমাধান করার লক্ষে দায়িত্ব নেন। এরি ধারাবাহিকতায় গত মঙ্গলবার বিকালে লতিফ মাষ্টারের সভাপতিত্বে খেলার মাঠে লাল মিয়া খালাসী, আব্দু রব, তাজুল খালাসী, আলী আকবর, মোকাজ্জলসহ স্থানীয় সমাজপতিরা বিচার শালিসে বসেন। শালিস চলাকালীন নামাজের বিরতির সময়ে সামান্য কথা কাটাকাটি হলে কেয়টখালীর সামসুলের ছেলে দেওয়ান বাড়ী গ্রুপের শুভ (২৭) ও মৃত তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে শাহিনের (৩৫) উস্কানিতে সংঘর্ষ শুরু হয়। পরে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়লে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে দুই গ্রুপ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ সুলতান জানান, আমরা বিচারে বসেছিলাম। নামাজের বিরতির সময়ে শাহিন ও জামালের মধ্যে কথা কাটাকাটি হচ্ছিল। আমার দেখামতে ওই সময় শুভ’র উস্কানিতে সংঘর্ষ বাধে। আশেপাশে খোঁজ নিয়ে জানাযায়, শুভ শ্রীনগর উপজেলা পরিষদের (দোয়াত কলম) চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের স্থানীয় প্রভাবশালী নেতা মোঃ জাকির হোসেনের সম্পর্কে ভাগিনা হওয়ায় সে এলাকায় প্রভাব খাটিয়ে বেড়ায়। এ বিষয়ে জানতে মোঃ জাকির হোসেনের মুঠো ফোনে কল করা হলে তার মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়।

ষোলঘর ইউপি চেয়ারম্যার আলহাজ মোঃ আজিজুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সংঘর্ষের বিষয়ে লোকমুখে শুনেছি। কোন পক্ষ আমার কাছে এখনো আসেনি। শ্রীনগর থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ হেলাল উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সংঘর্ষের ঘটনা শুনেছি। এখনো পর্যন্ত কোন পক্ষ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন




Leave a Reply

জনসম্মুখে পুরুষ নির্যাতন, ভিডিও ভাইরাল

Nobobarta on Twitter

© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com