গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে পরিবেশ ধ্বংস করে অবৈধভাবে গড়ে উঠছে ইট ভাটা | Nobobarta

আজ রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০, ০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে পরিবেশ ধ্বংস করে অবৈধভাবে গড়ে উঠছে ইট ভাটা

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে পরিবেশ ধ্বংস করে অবৈধভাবে গড়ে উঠছে ইট ভাটা

MSB Bricks

Rudra Amin Books

আমিরুল ইসলাম, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার ২নং হোসেনপুর ইউনিয়নে করতোয়া নদীর পাড় ঘেঁসে করতোয়া ব্রীজ সংলগ্ন করতোয়া পাড়ার আমবাগানে সব নিয়মনীতি উপেক্ষা করে অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে এম এস বি ব্রিকস এর ইটভাটা।

এলাকাবাসীর অভিযোগে সরেজমিনে যেয়ে দেখা যায়, বিশাল বিশাল আম বাগান কেটে গড়ে তোলা হচ্ছে ব্রিকস ফিল্ড। পানি উন্নয়ন বোর্ডের করতোয়া বাঁধ কেটে রাস্তা তৈরি করে ট্রাক্টর দিয়ে ইট ভাটায় নিয়মিত মাটি আনা নেওয়া করা হচ্ছে।

তাছাড়া ভাটার পাশেই ইট পোড়াইয়ের জন্য স্তুপ করে রাখা হচ্ছে বনজ ও ফলজ বৃক্ষের কাঠ। এসবকিছু ছাড়াও অল্প তাপে দ্রুত লাল রং ধারণের জন্য মিশ্রণ করা হচ্ছে লাল মাটি। লাল মাটি ব্যবহারের ফলে ইটের গুনগত মান নষ্ট হবে, এটা ইট ক্রয়কারী জনগণের সাথে প্রতারণা বলে সচেতন অভিজ্ঞমহল মনে করেন। ইটভাটাটি আইন মেনে পরিচালনা করার পাশাপাশি অবৈধ ভাবে বন্যা নিয়ন্ত্রন বাধ কর্তনসহ নিষেধাজ্ঞা থাকার পরেও কাকড়া (ট্রাক্টর), ট্রলি সহ ভারী যানবাহন দিয়ে মাটি আনা নেওয়া কাজ অব্যহত রাখায় এসব ইটভাটা মালিকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা প্রয়োজন বলে অভিজ্ঞ ও সচেতনমহল মনে করেন।

এমএসবি ব্রিকসের পার্টনার আঃ ছালাম এলেম’র কাছে জানতে চাইলে, তিনি জানান, এখন কোনো অনুমোদনের প্রয়োজন নাই, তবে আমরা অনুমোদন নেবো। অন্যান্য বিষয়গুলো কৌশলে এড়িয়ে যান। এ ব্যাপারে পলাশবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, সরকারি নিয়মনীতি উপেক্ষা করে অবৈধভাবে ইটভাটার কার্যক্রম পরিচালনা করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্হা গ্রহণ করা হবে। সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান তৌফিকুল আমিন মন্ডল টিটু’র নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, ইট ভাটা ব্যবসায়ীরা তার নিকট এসেছিলেন তবে কোনো ট্রেড লাইসেন্স দেয়া হয়নি।


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.






Nobobarta © 2020। about Contact PolicyAdvertisingOur Family DMCA.com Protection Status
Developed By Nobobarta