ত্রিশালে বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী উদযাপিত | Nobobarta

আজ শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ০৪:৩১ অপরাহ্ন

ত্রিশালে বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী উদযাপিত

ত্রিশালে বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী উদযাপিত

Rudra Amin Books

মো:হুমায়ুন কবির, ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলা প্রশাসন জাঁকজমকপূর্ণ ভাবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্ম বার্ষিকী পালন করেছে ত্রিশাল উপজেলা প্রশাসন।

১৭র্মাচ সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্যদিয়ে অনূষ্ঠান মালা শুরু হয়। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন ও কেক কাটেন ত্রিশাল আসনের সংসদ সদস্য ও ধর্ম মন্ত্রানালয় সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা রুহুল আমীন মাদানী। এছাড়াও পুষ্পস্তবক অর্পন করেন ত্রিশাল উপজেলা প্রশাসন, ত্রিশাল উপজেলা আওয়ামীলীগ, ত্রিশাল উপজেলা ছাত্রলীগ, উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগ, ত্রিশাল থানা, ত্রিশাল প্রেসক্লাব সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। উপজেলা চত্বর জমে উঠে মানুষের ঢল।শুভ শুভ, শুভ দিন বঙ্গবন্ধুর জন্ম দিন। মুহুর্মুহু স্লোগানে মুখরিত করে তুলে উপজেলা পরিষদ চত্বর।

পরে ত্রিশাল উপজেলা পরিষদের হল্রুমে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে এক আলোচনাসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন ত্রিশাল আসনের সংসদ সদস্য ও ধর্ম মন্ত্রানালয় সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব হাফেজ রুহুল আমীন মাদানী প্রধান অতিথির বক্তব্যতে আলহাজ্ব হাফেজ রুহুল আমীন মাদানী বলেন, বঙ্গবন্ধুর চেতনা ছিল অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র গড়ে তোলা। কিন্তু ষড়যন্ত্রকারীরা তার সেই চেতনা বাস্তবায়ন করতে দেয়নি। এমনকি তৎকালীন সামরিক শাসক জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বাঁচানোর জন্য সংবিধান সংশোধন করে বিচার কাজ বন্ধ করে দেন।বঙ্গবন্ধু যা ভাবতেন তা বাস্তবায়ন করতেন। তখন তিনি তার জীবন নিয়ে চিন্তা করতেন না। কিন্তু আজ অনেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ গ্রহণ না করে তার অনুসারী হয়েছেন মাত্র। ফলে তারা বিভিন্ন দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়ছেন।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাইরের দেশের চাপের কাছে মাথা নত না করে নির্বাচনের মাধ্যমে আবার ক্ষমতায় এসেছেন। ষড়যন্ত্রকারীরা কিছু করতে পারেনি। ভবিষ্যতেও কিছু করতে পারবে না। তাই সবাইকে তার চেতনার লক্ষ্যে পৌঁছাতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন সরকার, উপজেলা সহকারী কমিশনার( ভুমি) কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম তুষার, উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবীর আকন্দ, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান মাহমুদা খানম রুমা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আনোয়ার হোসেন আকন্দ, আওয়ামীলীগের প্রবীণ নেতা ফজলে রাব্বী, ত্রিশাল নজরুল ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মজিবুর রহমান, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নুর মোহাম্মদ, ত্রিশাল থানা অফিসার ইনচার্জ আজিজুর রহমান, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন, কৃষি কর্মকর্তা শোয়েব আহম্মেদ,ত্রিশাল প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা সরকার প্রমুখ।


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.






Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Developed By Nobobarta