আজ সোমবার, ২০ মে ২০১৯, ০৩:১৩ পূর্বাহ্ন

সেহরী ও ইফতার সময় :
টাকা, ক্ষমতা পেছনে আছে বলেই তাঁরা পাস, আমি ফেল : হিরো আলম

টাকা, ক্ষমতা পেছনে আছে বলেই তাঁরা পাস, আমি ফেল : হিরো আলম

হিরো আলম
হিরো আলম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  

সমালোচনার মাত্রা কমে গেছে, এখন সর্বত্রই যেন হিরো আলম। আলোচনা কিন্তু থেমে নেই। ভোটের মাঠে পরাজিত হলেও সত্যিকারের হিরোই বনে গেলেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচিত আশরাফুল হোসেন হিরো আলম। আলোচনা থামছেই না, হিরো আলম অনেকের মাথা ব্যাথা হলেও কিছু ব্যর্থ রাজনৈতিক নেতারা অন্তত কিছু শিক্ষা পাচ্ছেন।

দুদিন আগের কথাই বলি, শনিবার নোয়াখালীর সুবর্ণচরের নির্যাতিতা গৃহবধূকে দেখতে যান আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। এদিন সকালে তিনি নোয়াখালী ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নির্যাতিতা গৃহবধূ ও তার পরিবারের সাথে দেখা করেন। হিরো আলম এসেছেন খবর ছড়িয়ে পড়লে হাসপাতাল চত্বরে লোকজনের ভিড় বাড়তে শুরু করে।

হিরো আলম সেখান থেকে বেরোতে গিয়ে প্রচণ্ড ভিড়ের কবলে পড়েন। পরে পুলিশের সহায়তায় সেখানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন সোশ্যাল মিডিয়ার আলোচিত আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। এর আগে ভিড় সামলাতে হিমশিম খেতে হয়েছে পুলিশ সদস্যদের। হিরো আলম বলছিলেন, আমি এসেছি আমার বোনের অপরাধীদের বিচারের দাবিতে। কিন্তু হিরো আলম তো কোনো রাজনৈতিক নেতা নন, সুবর্ণচরের নির্যাতিতা গৃহবধূকে দেখতিই বা গেলেন কেন? কি ইঙ্গিত করলেন হিরো আলম ! তবে সেকি সত্যি সত্যি রাজনীতির মাঠে নামলেন?

৩০ ডিসেম্বর ভোটের দিন বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের ‘সিংহ’ প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলমের উপরও হামলার ঘটনা ঘটে। এরপর হামলার অভিযোগ এনে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন তিনি। এরপর থেকেই বারবার চমক দেখাচ্ছেন হিরো আলম।

“হিরো আলম রাজনীতিতে নামলেন। কিন্তু তিনিই কি প্রথম? কত কত স্বঘোষিত হিরো আগেভাগেই কায়েম হয়ে আছেন। এবারেও অনেকে মনোনয়নপত্র কিনে বসে আছেন, ফেসবুকে বা মিডিয়ায় প্লাস্টিক-প্লাস্টিক হাসিমাখা ছবি দিচ্ছেন। কোনো কিছু না-করার হিরোইজমের তালিকায় হিরো আলম বরং শেষের দিকের লোক। কত কত অযোগ্যতা নিয়ে যাঁরা কেউ সেলিব্রিটি, কেউ বিখ্যাত সাংবাদিক, কেউ ক্ষমতাশালী রাজনীতিবিদ হয়ে আছেন, তাঁদের বেলা তো সবাই চুপ। কেউ টাকা আছে বলে নেতা সেজেছেন, কেউ বিখ্যাত কারও পুত্র বা কন্যা বলে গণমাধ্যম মাতাচ্ছেন, কেউবা এমনি এমনি ভাব ধরে আছেন ক্ষমতার আশ্রয়ে। কই, তাঁদের তো কেউ প্রশ্ন করে না যে ‘আপনার কী যোগ্যতা?’। টাকা, পরিবার বা ক্ষমতা পেছনে আছে বলে তাঁরা পাস, আর হিরো আলম ফেল? হিরো আলম প্রচলিত অর্থে গুণবান ও বিত্তবান না হয়েও নিজেকে তুলে ধরতে পেরেছেন। এদিক থেকে নামকরা অনেক পরিবারের পুত্র-কন্যাদের চেয়ে তিনি গুণধর।

রাজনীতির মঞ্চে হিরো আলমই নায়ক। মিডিয়ার তুলে আনা হিরো আলম হয়ে যান ‘সিরিয়াস’ ও গম্ভীর লোক। হিরো আলমের এই উত্থান বাংলাদেশের নিম্নবর্গীয় তরুণদের উঠে আসার গল্পের সঙ্গে মেলে। সবার বেলায় সেটা সুন্দর হয় না। কেউ মাস্তানি করে করে ব্যবসায়ী হন, সেখান থেকে নেতা হন, তারপর হয়ে যান মন্ত্রী বা সিআইপি-ভিআইপি। কেউবা চাষবাস বা ছোট ব্যবসা কিংবা প্রবাসে মজদুরি করে ধীরে ধীরে পরিবারটিকে উঠিয়ে আনেন।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন




Leave a Reply

© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com