সবার আগে আমি তুহিন হত্যার বিচার চাই : লাবু সরকার | Nobobarta

আজ বুধবার, ০১ এপ্রিল ২০২০, ০১:৪৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
প্রথম রাতে ৩৭শ পরিবার পেলো খাদ্যসামগ্রী : সিসিক বস্তিতে ভরা দুপুরে কন্ঠশিল্পী নয়ন দয়া ও হাজী আরমান ৬৫ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দেবে সিসিক ভালুকায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করলেন সাদিকুর রহমান ঝালকাঠি করোনা প্রতিরোধে রক্ত কণিকা ফাউন্ডেশন জীবাণুনাশক স্প্রে করোনাঃ দুস্থদের খাদ্য দিলো কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগ সিরাজদিখানে দেড় হাজার পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ রাজাপুরে সাইদুর রহমান এডুকেশন ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট’র হতদারিদ্রদের মাঝে ত্রান বিতরণ রাজাপুরে পল্লী বিদ্যুত সমিতির গরীব মানুষদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ রাজাপুরে বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে নিজস্ব অর্থায়নে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করলেন ইউপি সদস্য
সবার আগে আমি তুহিন হত্যার বিচার চাই : লাবু সরকার

সবার আগে আমি তুহিন হত্যার বিচার চাই : লাবু সরকার

Rudra Amin Books

তুহিন বুয়েটে পড়েনা, মেধাবী না, ছোট্ট একটা বাচ্চা, একটা ছোট্ট পাখি মাত্র। যে কিনা মায়ের কোল ছেড়ে ধুলোবালি মাড়িয়ে সবেমাত্র হাঁটতে শিখেছে। যার সাথে রাজনৈতিক কোন সম্পর্ক নেই, সম্পর্ক নেই দুনিয়ার তাবৎ কোন কিছুর।

তুহিনকে ছাত্রলীগ বা কোন রাজনৈতিক দলের নেতা মারেনি, তুহিন কোন চুক্তি নিয়ে পোস্টও দেয়নি। সে কারো সমালোচনাও করেনি। সরকার বা বিরোধী দলের পক্ষে বিপক্ষে কোন আন্দোলনও করেনি। তার ছিলোনা কোন রাজনৈতিক পরিচয়। কিন্তু তবুও তাকে মরতেই হলো। প্রশ্ন থেকে যায়, কেন? হয়তোবা এসব কারণেই আমাদের মিডিয়া, সুশীল সমাজ, বিরোধী দল ও ভিন্ন মতের মানুষের মধ্যেও প্রতিবাদের ঝড় উঠেনি। কারো টামলাইনে ধুয়ে দেওয়া হচ্ছেনা তুহিনের খুনিদের ব্যপারে। কিন্তু কেন? তুহিন কী মানুষ নয়?

অথচ তুহিনকে হত্যার কৌশল এযাবৎ সকল বর্বরতাকে হার মানাবে, ফেরাউন সমতুল্য। কিংবা তার থেকেও ভয়ংকর। তবুও আমরা চুপ। কারণ এখানে কোন রাজনীতি নেই, তাই আন্দোলন করেও কোন ফায়দা নেই। যেখানে রাজনীতি নেই, রাজনৈতিক কোন দলকে বা সরকারকে গালি দেওয়ার কোন ইস্যু নেই, তাই এখানে ভিপি নুরের জ্বালাময়ী ভাষণও নেই। এ বিষয়ে নুরুর প্রতিবাদটাও তেমন একটা নেই বললেই চলে। নুরু সাহেব আমরা সবার আগে মানুষ, তারপর রাজনৈতিক পরিচয়। আবরারের মায়ের মতো তুহিনের মায়ের বুকটাও খালি হয়েছে। এখানে ভিন্নতা দেখার কোন অবকাশ নেই। কিন্তু আপনি এ বিষয়ে একদম চুপ কেন? শুধু রাজনৈতিক গন্ধ নেই বলে?

শরীরের অংশগুলো কেটে কেটে হত্যা করা হয়েছে তুহিনকে। এতটুকুন একটা বাচ্চা কিভাবে সহ্য করেছে তা ভাবতেই আমার বুক কেঁপে উঠছে। অথচ এদেশে চেতনাবাজদের এ নিয়ে টু শব্দটি পর্যন্ত নেই। হায়রে রাজনীতি। সব আন্দোলন শুধুই ক্ষমতার জন্য। আবরার বুয়েটে পড়ে বলে আমাদের সুশীল সমাজ ঘুম থেকে জেগে উঠেছিল। হত্যাকারী কোন রাজনৈতিক দলের ছিলো বলে রাস্তা গরম করে ফেলেছিলো। কিন্তু তুহিন হত্যার ব্যপারে সুশীলদের প্রতিবাদের সময় কই? আন্দোলন করতে হলে রাজনীতি লাগবে রাজনীতি।

কেন আমরা কোন রাজনৈতিক ইস্যু ছাড়া আন্দোলন করতে পারিনা? আমরা মানুষ হিসেবে কেন আগে ভাবতে পারিনা সব অন্যায়ের চরিত্র এক, সেটা অপরাধ। কেন একটা ইস্যু লাগবে আন্দোলনের জন্য? বিচার চাওয়ার জন্য? সব অপরাধকে কেন সমান করে ভাবতে পারিনা? শুধু সরকারকে উৎখাত করতে হবে বলে? সরকারের আগে আপনাদের উৎখাত উচিত।

সরকারের ভুল নেই তা বলছিনা। অবশ্যই তাদের ব্যর্থতা আছে। যেমন ব্যর্থতা আছে আমাদের। আমাদের ব্যর্থতা হলো আমরা মানুষ হতে পারছিনা। আমাদের মনুষ্যত্ব পঁচে গেছে। আমরা নর্দমার কীট হয়ে গেছি। প্রতিটা ব্যর্থতায় সরকারের যেমন দায় থেকে যায়, অনুরূপ আমাদেরও দায় থেকে যায়। সরকারের উপর সব দোষ চাপিয়ে দিয়ে নিজেকে সাধু ভাবার চিন্তাচেতনা পরিবর্তন করতে হবে। এদেশে বাস করলে এদেশের প্রতি দায়িত্ব আপনারও সরকার থেকে কোন অংশেই কমনা। অপরাধ অপরাধই। তার ভিন্ন কোন পরিচয় নেই। অপরাধ সব অবস্থাতেই অপরাধ। একটা প্রাণের অবক্ষয় যখানেই হবে, যার হাতেই হবে, তার সর্বোচ্চ শাস্তি দাবী করি, সব হত্যার বিচার চাই।


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.






Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Developed By Nobobarta