আজ সোমবার, ২৭ মে ২০১৯, ০৪:০১ অপরাহ্ন

রাজশাহীতে পদ্মায় ফুল ভাসিয়ে পাহাড়ী জুম্ম শিক্ষার্থীদের ফুলবিঝু উৎযাপন

রাজশাহীতে পদ্মায় ফুল ভাসিয়ে পাহাড়ী জুম্ম শিক্ষার্থীদের ফুলবিঝু উৎযাপন

Rajshahi-12042019

  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
    4
    Shares

আর দুই দিন পর নতুন বছর আগমন করতে যাচ্ছে। পার্বত্য চট্টগ্রামে নতুন বছরের আগমন আর পুরাতন বছরেরর বিদায়কে কেন্দ্র করে বয়ে যায় উৎসবের আমেজ। ইতোমধ্যে পার্বত্য চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে বিঝু,সাংগ্রাই,বৈসু,বিষু, বিহু,চাংক্রানের বিভিন্ন আয়োজন।

রাজশাহী অনেক দূরে হওয়াতে বিশেষ করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত অনেক পাহাড়ী জুম্ম শিক্ষার্থী প্রতি বছর তিন পার্বত্য জেলার জুম্ম আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী উৎসব থেকে বঞ্চতি হলেও নিজেদের মত করে প্রতি বছর উৎসবগুলো ক্ষুদ্র পরিসরে উৎযাপন করে থাকে। আজ ১২ এপ্রিল সকাল ৬ টায় রাবি বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশের পুকুরে এবং ৭ টায় পদ্মা নদীতে ফুল ভাসানোর মধ্যে দিয়ে রাজশাহীতে অবস্থানরত জুম্ম শিক্ষার্থীরা তাদের প্রাণের উৎসব পালনে যাত্রা শুরু কর ফুল বিঝু পালনেরর মাধ্যমে।ফুল ভাসিয়ে তারা গত অর্থাৎ অতীত বছরের সব গ্লানি, দুঃখ, খারাপ সবকিছুকে নদীতে বিসর্জন দেয়, আগামিকাল ১৩ তারিখ মূল বিঝু পালন করে এবং ১৪ তারিখে গোজ্জেপোজ্জে দিন (চাকামা ভাষার শব্দ) অর্থাৎ নতুন বছর সুন্দরভাবে পালনের মধ্য দিয়ে সামনের এক বছরে পদযাত্র শুরু করবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী অর্পন চাকমা বলেন অনেক বছর পার্বত্য জেলাতে বিজু পালন করা হয়না এবছর শিক্ষা জীবনের সমাপ্তি করেও যাওয়া হয়নি কয়েক দিন পর বিসিএস পরিক্ষা থাকার করণে।তিনি বলেন যেতে পারি আর না পারি পার্বত্য চট্টগ্রামের এই ঐতিহ্যকে অন্তরে ধারন করি বলে নিজেদের মধ্য আনন্দটা ভাগ করে নেয়ার চেষ্টা করছি।রসায়ন বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থী সোহেল চাকমা বলেন ১৭,১৮ তারিখ পরিক্ষা থাকার কারণে বাড়িতে যেতে পারিনি বলে খারাপ লাগছে এখানে চেষ্টা করলেও বাড়ির মত বিঝু উৎযাপন করতে পারছিনা। প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী জয়ী চাকমা বলেন প্রথম বার বাড়ির বাইরে এসে বিঝু করতে হচ্ছে বাড়িতে যেতে পারিনি বল। অনেক খারাপ লাগছে কাল কান্না করেছি বিজু অনেক মিস করতেছি। প্রথম বর্ষের পেপসি চাকমা, আবৃতি চাকমা, প্রত্যাশা দেওয়ান ও ত্রিপিকা চাকমা বলেন কিছুটা খারাপ লাগলেও জুম্ম শিক্ষার্থীদের কাছে পেয়ে এখানে অনেক ভালো লাগছে। ২য় বর্ষের মধুমিতা ও স্বাগতা চাকমাও তাদের ভালোলাগা খারাপ লাগার বিষয়গুলো তুলে ধরেনসমাজবিজ্ঞানের ২য় বর্ষের নিকেল ত্রিপুরা বলেন খাগড়াছড়িতে অনেক মজা করি তবে চাকমা সহ অন্যান্যদের আজকে ফুল বিজু হলেও ত্রিপুরারা ১৩ তারিখে পালন করে থাকে বলেন তিনি।

ফোকলোর বিভাগের শিক্ষার্থী রাসকিন চাকমা বলেন অনেকেই ইচ্ছা থাকা সত্বেও ছুটি না থাবার কারণে বাড়ি যেতে পারেনি তিনি এ বিষয়ে বিশ্ববিদালয় প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করেন যাতে এই সময়ের ক্লাশ টেস্ট, প্রেজেন্টেশন, টিউটোরিয়াল পরিক্ষা দেয়া না হয় এবং বাড়ি যাবার সুযোগ থাকে। এলএলএম এর শিকার্থী দীপন চাকমা বলেন পার্বত্য চট্টগ্রামের সার্বিক পরিস্থিতি খুব ভাল নেই, পাহাড়ের মানুষ নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছে আগের মত উৎসব মুখরভাবে বিজু হয়না আর বিজু পালনের সুষ্ঠু পরিবেশও নেই। পার্বত্য চুক্তি যথাযথ বাস্তবায়ন না হওয়াতে পাহাড়ে সত্যিকারের শান্তি ফিরেনি, বিজুর আমেজতাও আগের মত নেই। তবে কিছু কিছু জায়গাই ঐতাহ্যকে ধরে রাখার তাগিদে বিভিন্ন অনুষ্টানের মাধ্যমে দিনগুলো পালিত হচ্ছে। আর আমরাও রাজশাহী যারা আছি তারা নিজেদের মত করে ঐতিহ্যকে ধরে রাখার চেষ্টা করছি।আজকে নতুন বছরকে সুন্দরভাবে শুরু করার প্রত্যয়ে পদ্মাতে ফুল ভাসিয়ে সব খারাপ, অসুন্দরকে বিদায় দিলাম আগামীকাল হলে হলে নিজেদের রুমে পাজনের আয়োজন করবো এবং পরের দিন নতুন বছরকে স্বাগত জানাবো।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন




Leave a Reply

কে এই যুবক? টিস্যু দিয়ে বঙ্গবন্ধুর বিকৃত ছবি পরিস্কার করছে



Nobobarta on Twitter

© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com