ঘরে বসেই অনলাইনে কেনাকাটা | Nobobarta

আজ বুধবার, ০৮ এপ্রিল ২০২০, ০৯:০৫ অপরাহ্ন

ঘরে বসেই অনলাইনে কেনাকাটা

ঘরে বসেই অনলাইনে কেনাকাটা

স্টাফ রিপোর্টার।
ভার্চুয়াল যুগে অন্যান্য দেশের মতো আমাদের বাংলাদেশ ও এখন কোন অংশে পিছিয়ে নেই।আমাদের দেশের তরুণ তরুণীরা ও এখন পিছিয়ে নেই আধুনিকতায়‚অত্যাধুনিকতায় আধুনিকায়নের এ বহির্বিশ্বে তাল মিলিয়ে চলছে এদেশ এদেশের যুবক যুবতী। বিশ্বের সাথে পাল্লা দিয়ে চলার জন্য  আমাদের দেশের অসংখ্য তরুন ও তরুনী ইতিমধ্যে অনলাইন ব্যবসার সাথে সম্পৃক্ত হয়েছেন।ঘরে বসেই চাহিদা পূরণ করছেন হাজারো মানুষের।
অন্যান্য ব্যবসার মতো এ ব্যবসাতেও সফলতা হাতছানি দিচ্ছে এইসব তরুন উদ্যোক্তাদের। কারন হিসেবে তারা বলছেন ,দেশে অনলাইনে ব্যবসা চালু হওয়ার কারনে অনেক ক্ষেত্রেই মানুষকে কষ্ট করে মার্কেটে যেতে হচ্ছে না । এছাড়া এসব ব্যবসায় অনেক সুবিধা রয়েছে। পড়ালেখার পাশাপাশি ঘরে বসেই কাজ করা যাচ্ছে, আলাদা কোন দোকান ভাড়া নেই ,বিদ্যুৎ বিলের চিন্তা নেই। ফলে আমাদের মত অনেক তরুন উদ্যোক্তারাই দিন দিন এই অনলাইন ব্যবসায় ঝুকছেন।
তেমনি একজন তরুন উদ্যোক্তা হলেন আহম্মদ তাজভীর।
এ প্রসঙ্গে Dream exclusive fashion house (https://www.facebook.com/Dream-Exclusive-fashion-house-235088197111455/?epa=SEARCH_BOX) এর উদ্যোক্তা আহম্মেদ তাজভীর বলেন, তিনি প্রায় ৪ মাস ধরে ফেজবুকের মাধ্যমে মেয়েদের জামাকাপড়ের ব্যবসা শুরু করেন। তিনি বলেন ,এই ব্যবসায় কোন শো-রুমের প্রয়োজন হয় না। কেনাবেচা হয় সম্পূর্ন অনলাইনে।
আমরা অল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশের যে কোন জায়গায় হোম ডেলিভারী দিয়ে থাকি এবং মানসম্পন্ন কাপড়ের জামা বিক্রি করে থাকি। আমাদের পন্যের মান,স্বচ্ছতা, সেবায় সন্তুষ্ঠ আমাদের ক্রেতারা খুশি হয়ে আমাদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে যা ভবিষ্যতে ব্যবসার প্রসারে আমাদের অনুপ্রানীত করবে। আমাদের কিছু রেগুলার ক্রেতা রয়েছেন ।আমরা তাদের চাহিদা মত পন্য সরবরাহ করতে পারি বলেই তারা আমাদের প্রতিষ্ঠানের উপর নির্ভশীল
তিনি আরও বলেন, প্রথমে পড়ালেখার পাশাপাশি ৫জন বন্ধু নিয়ে এই ব্যবসা শুরু করি। তারা প্রায় সবাই বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখার পাশাপাশি অনলাইনে কাজ করছেন। এই বেতন  দিয়ে পড়ালেখার খরচ চালিয়ে নিচ্ছেন। যা তাদের সাবলম্বী হতে সহায়তা করছেন।
তিনি আরো বলেন যে‚ মূলত প্রথমে পাকিস্তানি এবং ইন্ডিয়ার এর বড় বড় ব্র্যান্ড এর ড্রেস নিয়ে কাজ করেছি।এখন  নিজে একটি ছোট প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছি  আমার এখানে ৯জন তরুণ তরুণী পড়াশোনার পাশাপাশি কাজ করছে। আমার মতে যারা অনলাইন বিজনেস করতে ইচ্ছুক বা করতেছেন তারা বাংলাদেশের তরুণ-তরুণী শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পাশাপাশি সুযোগ দিবেন যার মাধ্যমে তারা তাদের পড়াশোনার খরচ চালিয়ে নিতে পারে।
তরুন উদ্যোক্তা আহম্মদ তাজভীর সবার কাছে দোয়া কামনা করেন যাতে তিনি এই অনলাইন বিজনেস কে একটি প্রাতিষ্ঠানিক  রূপ দিতে পারে এবং এই প্রতিষ্ঠান এর মাধ্যমে বাংলাদেশের সাধারণ দারিদ্র তরুণ-তরুণী শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পাশাপাশি কিছু আয় করার উপায় করে দিতে পারে ।


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.






Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Developed By Nobobarta