আজ বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০১৯, ০২:২৪ পূর্বাহ্ন

অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই মধ্যেই ছোট হচ্ছে মন্ত্রিসভা : ওবায়দুল কাদের

অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই মধ্যেই ছোট হচ্ছে মন্ত্রিসভা : ওবায়দুল কাদের

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই মন্ত্রিসভার আকার ছোট হয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আগামী ১৫-২০ দিন পর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে। তাই খুব অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই মন্ত্রিসভার আকার ছোট হয়ে যাবে। রোববার রাজধানীর ডেফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের সিডিউল ঘোষণা মানেই ক্যাম্পেইন শুরু। খুব শিগগিরই মন্ত্রিসভার কর্মের ধরণ পাল্টে যাবে। তারা কেবিনেটের রুটিনওয়ার্ক করবেন। তিনি বলেন, মন্ত্রিসভার আকার ছোট হলে সেখানে আমিও থাকব কিনা তা প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কেউ জানেন না। কারা সেই মন্ত্রিসভায় থাকছেন এটা প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কেউ বলতেও পারবেন না। তবে সরকার এই সরকারই থাকবে। মন্ত্রিপরিষদে কারা কারা থাকছেন, সেই সিদ্ধান্ত নেবেন প্রধানমন্ত্রী।

পুলিশ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে সিলেটে সমাবেশের অনুমতি দিলেও জোটের নেতারা বিষয়টি নিয়ে ‘নাটক’ করছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।। অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, অনুমতি নিয়ে নাটক করা এটা তাদের পুরনো অভ্যাস। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপি অনুমতি পেয়েছে, কিন্তু এটা নিয়ে নাটক করতে তারা দ্বিধা করেনি। আমি এখানেও বলছি এটা তাদের পুরানো অভ্যাস, তারা অনুমতি নিয়ে নাটক করে। সমাবেশের জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে অনুমতি দেয়া হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমার তো মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। তিনি আমাকে বলেছেন যে সভা-সমাবেশ যেখানেই করতে চান এ ব্যাপারে কোনো বাধা-নিষেধ থাকবে না, থাকার কথাও নয়।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, ‘সিলেটে বড় বড় নেতারা যাবেন। নিরাপত্তার বিষয়টি পুলিশ একটু খতিয়ে দেখে। কিন্তু অনুমতির ব্যাপারে তারা কিন্তু ইঙ্গিতও পেয়ে গেছে। অহেতুক অফিসিয়াল চিঠি না পাওয়ার আগ পর্যন্ত নাটক করবে এটা তাদের পুরনো অভ্যাস।’ নির্বাচন কমিশনারদের বক্তব্যকে ‘দ্বিধা-বিভক্ত’ উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্য প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেব কি ভুলে গেছেন, নির্বাচন কমিশন পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট? প্রধান নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আরও চারজন কমিশনার আছেন।

তিনি বলেন, একজন কমিশনার কোনো ইস্যুতে যদি ভিন্নমত পোষণ করে অথবা নোট অব ডিসেন্ট দেয় এটা তো গণতন্ত্রের বিউটি। সেখানেও ইন্টার্নাল ডেমোক্রেসি কাজ করছে, সেটাই আমরা মনে করব। এটাকে নিয়ে বিভক্তির যে অভিযোগ তিনি তুলেছেন এটা সম্পূর্ণই কাল্পনিক ও হাস্যকর ব্যাপার।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন




Leave a Reply

জনসম্মুখে পুরুষ নির্যাতন, ভিডিও ভাইরাল

Nobobarta on Twitter

© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com