যে রিজার্ভ রয়েছে তা ৬ মাসের খাদ্য কেনা যাবে : প্রধানমন্ত্রী | Nobobarta

আজ সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ০৭:৫০ অপরাহ্ন

যে রিজার্ভ রয়েছে তা ৬ মাসের খাদ্য কেনা যাবে : প্রধানমন্ত্রী

যে রিজার্ভ রয়েছে তা ৬ মাসের খাদ্য কেনা যাবে : প্রধানমন্ত্রী

Rudra Amin Books

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের যে রিজার্ভ রয়েছে তা দিয়ে ছয় মাসের খাদ্য কেনা যাবে। মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আলোচনা ও ষষ্ঠ অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের ব্যাংকে টাকা নেই- এ কথা সত্য নয়। টাকা না থাকলে আমরা এতোগুলো উন্নয়ন কাজ কীভাবে করছি? আমাদের ৩২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রিজার্ভ রয়েছে, যা দিয়ে ছয় মাসের খাদ্য কেনা যাবে। ইতোমধ্যে আমাদের ১৮ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স এসেছে। টাকা আছে বলেই আমরা নিয়েছি। শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে এটি আজ কারো কাছে লুকায়িত নেই। এক সময় দেশে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের রাজত্ব ছিল। মানুষের জানমালের কোনো নিরাপত্তা ছিল না। আমরা অর্থনৈতিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলাম। এক দশকে আমরা বাংলাদেশের অবস্থার পরিবর্তন করতে সক্ষম হয়েছি।

তিনি বলেন, যারা ছোট্ট শিশু ধর্ষণ করছে তারা পশুর চাইতেও অধম। এটি অত্যন্ত জঘন্য কাজ। তাদেরও ঘরে মেয়ে আছে। মানুষ এত জঘন্য চরিত্রের কীভাবে হতে পারে? আমরা এর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশে মাঝে মধ্যে কিছু সমস্যা দেখা দেয়। আমরা সেগুলো মোকাবিলায় তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ নিই। যেমন- করোনাভাইরাসের বিষয়ে আমরা পদক্ষেপ নিয়েছি, যাতে চীনে ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাস বাংলাদেশে বিস্তার লাভ করতে না পারে। ডেঙ্গু নিয়ে একটা সমস্যা দেখা দিয়েছিল। মশার ব্যাপারে আমাদের নিজেদের সচেতন থাকতে হবে। নিজেদের বাড়িঘর আঙ্গিনা পরিষ্কার রাখতে হবে, যাতে মশা জন্মাতে না পারে। মশা যদি জন্মাতেই থাকে তাহলে তো ঘরে ঢুকবেই।

নারী ও শিশু নির্যাতনের ব্যাপারে তিনি বলেন, এদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতিতে আমরা কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছি। এমন অপরাধের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, রমজানে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি নিয়ে একটা খেলা শুরু হয়। এর কারণ মানুষ প্রয়োজনের তুলনায় একসঙ্গে বেশি কেনে। চীন থেকে আমদানিকৃত পণ্যের বিকল্প বাজার খোঁজা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদের ষষ্ঠ অধিবেশনের সমাপনী দিনে বক্তব্যে একথা জানান তিনি। করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সরকার যথাযথ ব্যবস্থা নিয়েছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ১ কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তি দেই। মায়ের নামে মোবাইল ফোনে টাকা পাঠিয়ে দেই। আমরা ১৪২টা সামাজিক উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়িত করে যাচ্ছি। প্রায় পাঁচ কোটি ১০ লাখ মানুষ উপকৃত হচ্ছে। দারিদ্রের হার ৪১ ভাগ থেকে আমরা ২০.৫ ভাগে নামিয়ে এনেছি। তিনি আরো বলেন, মাদক সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদের মতো ধর্ষকদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে; এক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করছি। আইনগত ব্যবস্থার মাধ্যমে সামাজিক এসব সমস্যা প্রতিহত করা হবে।


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.






Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Developed By Nobobarta