সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ০১:২১ পূর্বাহ্ন

English Version
সংবাদ শিরোনাম :
পাবনা-৪ নৌকায় মনোনয়ন প্রত্যাশী বাবা-মেয়ে-জামাইসহ ১৪ জন! শ্রীনগরে হানাদার মুক্তদিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা ছয় একাডেমিক ভবনের নামকরণ করতে যাচ্ছে রাবি প্রশাসন রাজারহাটে সমাপনী পরীক্ষার্থীদের বিদায় মনোনয়ন বোর্ডে কারা অংশ নিবেন তা বিএনপির ব্যক্তিগত বিষয়ঃ বললেন ফখরুল হামাসের কাছে ‘জয়-পরাজয় নির্ধারণী’ ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে ভিডিও কনফারেন্সে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাথে যুক্ত হচ্ছেন তারেক; ইসির দৃষ্টি আকর্ষণ করলেন কাদের লক্ষ্মীপুরে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার আলোকচিত্রী শহিদুল আলমের জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন রাষ্ট্রপক্ষের সিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলায় নিহত ৪৩
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র ৪০১৯৯, ভোট কক্ষ ২০৬৫৪০

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র ৪০১৯৯, ভোট কক্ষ ২০৬৫৪০

11th National Election



  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে মাঠপর্যায় থেকে ভোটকেন্দ্র ও ভোট কক্ষের তালিকা চূড়ান্ত নির্বাচন কমিশনে (ইসি) পাঠিয়েছে।

তালিকা অনুযায়ী মোট ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৪০ হাজার ১৯৯টি এবং ভোট কক্ষ ২ লাখ ৬ হাজার ৫৪০টি। মাঠপর্যায়ে ৬ সেপ্টেম্বর এসব ভোটকেন্দ্রের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়। তবে ইসির যাচাই বাছাইয়ে এ সংখ্যা পরিবর্তন হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

ইসি সূত্র জানায়, এর আগে একাদশ জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে ৫ আগস্ট সারাদেশে ভোট কেন্দ্র ও ভোট কক্ষের খসড়া তালিকা প্রকাশ করা হয়। খসড়া তালিকায় ভোট কেন্দ্র ছিল ৪০ হাজার ৬৫৭টি এবং ভোট কক্ষের সংখ্যা ছিল ২ লাখ ৭ হাজার ৪১৬টি। সোমবার ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সাংবাদিকদের জানান, গত ৫ আগস্ট খসড়া ভোটকেন্দ্রের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। দাবি আপত্তি শুনানি শেষে ভোটকেন্দ্র নীতিমালা অনুসারে সবঠিক করে ৬ সেপ্টেম্বর মাঠপর্যায়ে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়। এখন সেগুলো কমিশনে পাঠাবে। তারপর সেগুলো যাচাই বাছাই করে নির্বাচনের ২৫ দিন পূর্বে ভোটকেন্দ্রের গেজেট প্রকাশ করা হবে।

সচিব বলেন, গেজেট প্রকাশ করা হবে কমিশন থেকে। গেজেট প্রকাশ না করা পর্যন্ত চূড়ান্ত হবে না এবং ওই ভোটকেন্দ্র ব্যবহার করা যাবে না। জেলা উপজেলা থেকে যে কেন্দ্রগুলো আমাদের কাছে পাঠাবে সেগুলো পরীক্ষা করে দেখবো যে সেগুলো নীতিমালা অনুসারে করা হয়েছে কি না। ৩০ অক্টোবরের পর যেকোনো দিন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে বলেও জানান সচিব। ৩০ অক্টোবর থেকে ২৮ জানুয়ারির মধ্যে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

লাইক দিন

Please Share This Post in Your Social Media




Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.



© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com