শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০৯:৫০ পূর্বাহ্ন

English Version
জয়ের লক্ষ্য লড়ছে বাংলাদেশ (Live)

জয়ের লক্ষ্য লড়ছে বাংলাদেশ (Live)



  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলাদেশের স্পিনারদের কোনো জবাব যেন ছিল না জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানদের কাছে। টপ অর্ডার ধৈর্যের পরীক্ষায় কিছুটা উতরাতে পারলেও মিডল অর্ডার আর টেলএন্ডাররা যোগ দিলেন আসা-যাওয়ার মিছিলে। তাতেই দ্বিতীয় ইনিংসে ১৮১ রানে অলআউট জিম্বাবুয়ে। প্রথম ইনিংসে ১৩৯ রানে এগিয়ে থাকা জিম্বাবুয়ের লিড তাই ৩২০ রান। প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৪৩ রানে অলআউট হওয়া বাংলাদেশের জন্য এই রান তো পাহাড়সম!

এই ম্যাচ জিততে হলে রেকর্ড গড়তে হবে মুশফিকদের। নিজেদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ২১৫ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড আছে বাংলাদেশের। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে স্বাগতিকদের বিপক্ষে এই রেকর্ড গড়েছিল টাইগার-বাহিনী। আর বাংলাদেশের মাটিতে টেস্টে সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড নিউজিল্যান্ডের। ২০০৮ সালে চট্টগ্রামে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৩১৭ রান করে জয় পেয়েছিল কিউইরা।

বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ হলেও বোলাররা ছড়ি ঘুরাচ্ছেন প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের ওপর। প্রথম ইনিংসে জিম্বাবুয়েকে ২৮২ রানে আটকানোর পর দ্বিতীয় ইনিংসে আটকে দিলেন ১৮১ রানে। বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম তো এ ম্যাচে দুর্দান্ত বোলিংয়ে ক্যারিয়ার সেরা সাফল্য পেয়েছেন। প্রথম ইনিংসে ৬টির পর দ্বিতীয় ইনিংসে তাঁর শিকার ৫ উইকেট। এই প্রথমবারের মতো ক্যারিয়ারে উভয় ইনিংসেই পাঁচ বা তার বেশি উইকেট পেলেন তাইজুল। ১৭০ রানে ১১ উইকেট তাইজুলের; এটি টেস্টে বাংলাদেশের তৃতীয় সেরা বোলিং ফিগার। জিম্বাবুয়ের দ্বিতীয় ইনিংস ধসিয়ে দিতে ভূমিকা রেখেছেন মেহেদি হাসান মিরাজ (৩ উইকেট) ও নাজমুল ইসলাম অপু (২)।

কাল ম্যাচের দ্বিতীয় দিন শেষ বিকেলে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নামে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়া জিম্বাবুয়ে। স্কোরবোর্ডে দুই ওভারে ১ রান তোলার পর আলোক স্বল্পতায় শেষ হয় দ্বিতীয় দিনের খেলা। আজ ম্যাচের তৃতীয় দিন সকালে ফের ইনিংস এগিয়ে নিতে নামেন জিম্বাবুয়ের দুই ওপেনার হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ও ব্রায়ান চারি। তবে উইকেটে থিতু হতে পারেননি চারি। মেহেদি হাসান মিরাজের বলে বোল্ড হয়ে ৪ রান করে ফিরে যান এই ওপেনার।

উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ব্রেন্ডন টেইলর এসে ওয়ানডে মেজাজে খেলতে থাকেন। আক্রমণাত্মক হয়ে খেলতে গিয়েই ২৫ বলে ৪টি চারে ২৪ রান করে তাইজুলের বলে ইমরুলের দুর্দান্ত ক্যাচে ফিরে যান তিনি। ইনিংসের ৪৭ রানে টেইলর ফিরে যাওয়ার পর জুটি বাঁধেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা (৩৯) ও শেন উইলিয়ামস (১৬)। লাঞ্চ বিরতির পর মাসাকাদজা হুট করে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে মিরাজের বলে এলবিডব্লিউ হলে ভাঙে তাদের ৫৪ রানের জুটি। ফিফটি থেকে ২ রান দূরে থাকতে বিদায় নেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক।

কয়েক ওভার পরে উইলিয়ামসও মাসাকাদজার পথ ধরেন। তাইজুলকে অহেতুক রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে বোল্ড হয়ে ফিরেন প্রথম ইনিংসে ৮৮ রান করা উইলিয়ামস (২০)। পরের বলে পিটার মুরকে লিটনের ক্যাচ বানিয়ে ফেরত পাঠান ম্যাচে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করা তাইজুল। প্রথম ইনিংসে দারুণ খেরা মুর এবার শূন্য রানেই বিদায় নেন।

এক ওভার পরে সিকান্দার রাজাকেও (২৫) তুলে নেন তাইজুল। স্টাম্পে থাকা বল সরে গিয়ে খেলতে চেয়েছিলেন রাজা। তাঁর ব্যাট মিস করে, তাইজুলের বল স্টাম্পে হিট করে। এই টেস্টেই অভিষিক্ত হ্যামিল্টন মাসাকাদজার ভাই ওয়েলিংটন মাসাকাদজা ধৈর্যের পরীক্ষা দিচ্ছিলেন ভালোভাবেই। তবে মিরাজের ঘূর্ণিতে বিভ্রান্ত হয়ে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরে যান তিনিও (১৭)। খানিক পর নাজমুল ইসলাম অপুর বলে মাহমুদউল্লাহর হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান চাকাভা (২০)। আসা-যাওয়ার মিছিলে যোগ দেন ব্রেন্ডন মাভুটা (৬) ও চাতারা (৮)। একপর্যায়ে ৩ উইকেটে ১২১ রান তুলেছিল জিম্বাবুয়ে। সেখান থেকে আরো ৬০ রান যোগ করতেই বাকি ৭ উইকেট হারায় সফরকারীরা। ৩২১ রানে জয়ের লক্ষ্যে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমেছে বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
জিম্বাবুয়ে প্রথম ইনিংস: ২৮২/১০, ১১৭.৩ ওভার। শেন উইলিয়ামস ৮৮, পিটার মুর ৬৩*, হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ৫২, চাকাভা ২৮, সিকান্দার রাজা ১৯, ব্রায়ান চারি ১৩, ব্রেন্ডন টেইলর ৬, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা ৪, ব্রেন্ডন মাভুটা ৩, কাইল জার্ভিস ৪, চাতারা ০। তাইজুল ইসলাম ৬/১০৮, নাজমুল ইসলাম অপু ২/৪৯, আবু জায়েদ রাহী ১/৬৮, মাহমুদউল্লাহ ১/৩।

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ১৪৩/১০, ৫১ ওভার। লিটন দাস ৯, ইমরুল কায়েস ৫, মুমিনুল হক ১১, নাজমুল হোসাইন শান্ত ৫, মাহমুদউল্লাহ ০,মুশফিকুর রহিম ৩১, আরিফুল হক ৪১*, মিরাজ ২১, তাইজুল ইসলাম ৫, নাজমুল ইসলাম অপু ৪, আবু জায়েদ রাহী ০। কাইল জার্ভিস ২/২৮, চাতারা ৩/১৯, সিকান্দার রাজা ৩/৩৫, শেন উইলিয়ামসন ১/৫।

জিম্বাবুয়ে দ্বিতীয় ইনিংস: ১৮১/১০। হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ৪৮, ব্রায়ান চারি ৪, ব্রেন্ডন টেইলর ২৪, শেন উইলিয়ামস ২০, সিকান্দার রাজা ২৫, পিটার মুর ০, চাকাভা ২০, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা ১৭, মাভুটা ৬, কাইল জার্ভিস ১*, চাতারা ৮। মিরাজ ৩/৪৮, তাইজুল ৫/৬২, অপু ২/২৭।

লাইক দিন

Please Share This Post in Your Social Media




Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.



© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com