বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৬:২৪ পূর্বাহ্ন

English Version
শিমের বাজারে আগুন!

শিমের বাজারে আগুন!

Been-Nobobarta



রাজধানীর বাজারগুলোতে সব চেয়ে বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে শিম। বাজার ও মান ভেদে প্রতিকেজি শিম বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৪০ টাকায়। শীতকালীন সবজি হওয়ায় একটু বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

শুক্রবার (১৭ আগস্ট) রাজধানীর মালিবাগ, কারওয়ানবাজার, খিলগাঁও, উত্তরা, সেগুনবাগিচাসহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

রাজধানীর কাঁচাবাজারগুলোতে গত সপ্তাহের তুলনার বেশিরভাগ সবজির দাম কমলেও এখনো চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে বেশ কিছু সবজি। বেগুন মান ও বাজার ভেদে বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৮০ টাকা কেজি। সপ্তাহের ব্যবধানে এ সবজিটির দাম কেজিতে বেড়েছে ২০ টাকারও বেশি। গত সপ্তাহে বেগুন বিক্রি হয় ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজি। এছাড়া চড়া দামে বিক্রি হওয়া আর এক সবজি হলো গাজর। বাজারে ৮০ থেকে ১০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে গাজর। ব্যবসায়ীরা বলছেন, শীতের আগাম সবজি হওয়ার কারণে শিমের দাম চড়া। আর টমেটো ও গাজরের মৌসুম এখন নয়। বাজারে যে পাকা টমেটো বিক্রি হচ্ছে তা আগে থেকে মজুদ করা। গাজর কিছু মজুদের, কিছু আমদানি করা। যে কারণে এসব পণ্যের দাম চড়া।

কারওয়ানবাজারের ব্যবসায়ী মো. রইস বলেন, এ সপ্তাহে শিমের দাম একটু কমেছে। তবে শিমের দাম আর কিছুদিন ১০০ টাকার ওপরে থাকবে। বাজারে পুরোদমে শিম আসতে শুরু করলে দাম কমবে। তার আগে শিমের দাম কমার খুব একটা সম্ভাবনা নেই। এদিকে শিম ও গাজরের মতো চড়া দাম না হলেও কিছুটা বাড়তি দামেই বিক্রি হচ্ছে ফুলকপি, উস্তে ও বরবটি। বাজার ভেদে ছোট আকারের ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৪০ টাকা। উস্তের কেজি ৫০ থেকে ৬০ টাকা এবং বরবটি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজিতে। এছাড়া পটল, ঝিঙা, ধুন্দল, চিচিংগা, কাকরল, ঢেঁড়স, মিষ্টি কুমড়া, পেঁপের দাম কিছুটা কমেছে। কিছু বাজারে এ সবজিগুলো ৩০ টাকা কেজির মধ্যেই পাওয়া যাচ্ছে।

মালিবাগ কাঁচাবাজারের ব্যবসায়ী নুরু মিয়া বলেন, বাজারে এখন যেসব টমেটো ও গাজর পাওয়া যাচ্ছে তার বেশিরভাগ মজুদের। এর সঙ্গে কিছু গাজর আছে আমদানি করা। ফলে এ পণ্য দুটির সরবরাহ এখন কিছু ব্যবসায়ীর নিয়ন্ত্রণে। যে কারণে দাম চড়া। টমেটো ও গাজর উভয় পণ্যর ভরা মৌসুম শীতকাল। শীতের সময় এ সবজি দুটি বাজারে ভরপুর পাওয়া যাবে, তখন দামও কম থাকবে। দাম কমার তালিকা আছে মুরগি। সাদা বয়লার মুরগির দাম কেজি ১০ টাকার মতো কমে বিক্রি হচ্ছে ১৩৫ থেকে ১৪০ টাকায়। লাল লেয়ার মুরগির দাম কেজিতে কমেছে প্রায় ৩০ টাকা। গত সপ্তাহে ২৫০ থেকে ২৬০ কেজি বিক্রি হওয়া লাল লেয়ার মুরগি আজ বিক্রি হচ্ছে ২২০ থেকে ২৩০ টাকায়।

গত এক মাসের বেশি সময় ধরে চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে কাঁচামরিচ। গত সপ্তাহে ১২০ থেকে ১৪০ টাকা কেজি ধরে বিক্রি হওয়া কাঁচামরিচের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। অপরিবর্তিত রয়েছে পেঁয়াজের দামও। আগের সপ্তাহের মতো দেশি পেঁয়াজ ৫৫ থেকে ৬০ টাকা এবং আমদানি করা পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা কেজিতে। এদিকে খিলগাঁওয়ের ব্যবসায়ী রমান কবির বলেন, গত প্রায় দুই সপ্তাহ সবজির দাম বেশি ছিল। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কারণে ঢাকায় সবজির ট্রাক বেশি ঢুকতে পারে নাই। তাই দাম বেশি ছিল। এখন সবিজর দাম কমেছে। ঈদ করতে অনেকে গ্রামের বাড়ি যাওয়া শুরু করেছে, যে কারণে কিছুটা হলেও সবজির চাহিদা কমেছে। আর চাহিদা কম থাকলে দামও কমে যাবে এটাই সাভাবিক।

সেগুনবাগিচা কাঁচাবাজারের খুচরা সবজি বিক্রেতা আলম বলেন, কিছুদিন আগে বৃষ্টির কারণে সবজির দাম একটু বেশি ছিল। এখন বৃষ্টি না থাকায় সবজির দামও অনেকটা কমেছে।

Please Share This Post in Your Social Media




Leave a Reply



© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com