বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৬:৪৩ পূর্বাহ্ন

English Version
নোংরা পরিবেশে খাদ্য সামগ্রী তৈরী করছে শ্রীনগরের বিক্রমপুর ফুড প্রোডাক্টস

নোংরা পরিবেশে খাদ্য সামগ্রী তৈরী করছে শ্রীনগরের বিক্রমপুর ফুড প্রোডাক্টস



মোহন মোড়ল, শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ নিরাপদ খাদ্য আইন-২০১৩ ও খাদ্য বিধি মালার তোয়াক্কা না করে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে অস্বাস্থ্যকর নোংরা পরিবেশে খাদ্য সামগ্রী তৈরী করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার ভাগ্যকুল ইউনিয়নের কামারগাঁও এলাকায় স্থাপিত বিক্রমপুর ফুড প্রোডাক্টস নামক একটি কারখানায় তৈরী হচ্ছে এসব খাদ্য সামগ্রী।

ব্র্যান্ড কোম্পানীগুলোর মোড়ক অনুকরণ করে প্যাকেটজাত করা হচ্ছে নানা রকম পটেটো চিপস্, রিং চিপস্, ঝাল চানাচুর, ডাল ভাঁজা, কুঁড়মুঁড়ে, ট্রেস্ট্রি স্পাইজ চিপস্ নামের নানা ধরনের আইটেম। আকর্ষনীয় মোড়কের এসব খাবার খেয়ে শিশু ও স্কুলের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা প্রায়ই নানা রকমের স্বাস্থ্যগত সমস্যায় পড়ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শ্রীনগর-ভাগ্যকুল-দোহার সড়কের কামারগাঁও থেকে কয়েকশত গজ উত্তরে ঘোষ বাড়ীর সাবেক গরুর খামারের টিনসেড ভবনটিতে গড়ে উঠেছে বিক্রমপুর ফুড প্রোডাক্টস নামক খাদ্য উৎপাদনকারী এ প্রতিষ্ঠান। এর ভিতরে প্রবেশ করে দেখা যায় অপরিস্কার অপরিছন্ন অবস্থায় হাতের স্পর্শে তৈরী করা হচ্ছে শিশুদের লোভনীয় খাবার সামগ্রী। কাঁরখানার অপরিছ্ন্ন ফ্লোরে যত্রতত্রভাবে ফেলা রাখা হয়েছে খাবার তৈরীর বিভিন্ন উপকরণ। মানা হচ্ছে না নিরাপদ খাদ্য আইন ২০১৩ ও খাদ্য বিধিমালা ১৯৬৭। ব্যবহার করা হচ্ছে পোড়া তেল, অনিরাপদ পানি। খাদ্য সামগ্রী সংরক্ষনের জন্য নেই তাপনিয়ন্ত্রিত কোন স্টোর রুম। দেখা যায় এ প্রতিষ্ঠানের উৎপাদন কাজে নিয়োজিত কর্মচারীরা কাজ করছে অপরিচ্ছন্ন ও নোংরা পোষাকে। চিপস তৈরী করে রাখা হয়েছে অপরিচ্ছন্ন ফ্লোরে। তার পাশেই কয়েকজন মহিলা শ্রমিক কাঠের গুড়ি শুকাচ্ছে। এতে করে ধুলোবালি উড়ে গিয়ে পড়ছে উৎপাদিত ঐসব খাদ্য সামগ্রীতে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এ কারখানায় তৈরী করা যাবতীয় পন্য ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় পাইকারী বাজার গুলোতে বিক্রি করা হচ্ছে। অধিক লাভের আশায় দোকানীরা কিনে নিচ্ছে এসব খাদ্য সামগ্রী। তাই জনমনে এ সকল খাদ্য সামগ্রীর মান নিয়েও প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

মুঠো ফোনে এ প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার গোলাম রাব্বানীর কাছে খাদ্য সামগ্রী তৈরীতে অনিয়মের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ঢাকায় মিটিংয়ে রয়েছি বলে লাইনটি কেটে দেন। কিছুক্ষণ পরে প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার স্বপন ঘোষ মুঠো ফোনে কল করে সাংবাদিকদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, আমার কারখানায় অনিয়ম থাকলে তা দেখার আপনারা কে? এসময় তিনি দম্ভ করে বলেন ঢাকায় কিন্তু আমার আরো কয়েকটি প্রতিষ্ঠান আছে।

উল্লেখ্য যে বিক্রমপুর ফুড প্রোডাক্টস এর উৎপাদন লাইসেন্স, প্রিমিসেস লাইসেন্স, বিএসটিআই সনদ, পরিবেশ ছাড়পত্র, ফায়ার সনদ ও কর্মচারীদের স্বাস্থ্য সনদ, হালনাগাদ রয়েছে কিনা তা ক্ষতিয়ে দেখার জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন সচেতন মহল। এ ব্যাপারে শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আমার জানা ছিল না। শিশুদের খাবার সামগ্রী তৈরীতে কোন প্রকার অনিয়ম থাকলে কারখানাটির বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media




Leave a Reply



© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com