৭ নভেম্বরের রহস্য উদ্ঘাটনে বিচারবিভাগীয় কমিশনের দাবি – Nobobarta

আজ বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০২:২২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
কাউখালীতে ৪০ যাত্রীসহ খেয়া ট্রলার ডুবি, পিএসসি পরীক্ষার্থী নিখোঁজ পাকিস্তান থেকে এলো ৮২ টন পেঁয়াজ রহমতপুর ইউনিয়নে ওয়ার্ড আ’লীগের সম্মেলন, সভাপতি সুলতান, সম্পাদক স্বপন তারেক রহমানের জন্মদিনে জাবি ছাত্রদলের দোয়া ও মিলাদ আগৈলঝাড়ায় পেঁয়াজ, চাউল ও লবণ নিয়ে গুজব, ইউএনও বিপুল চন্দ্র দাসের অভিযান অব্যাহত কাউখালীতে নৌকা ডুবিতে নিখোঁজ পিইসি পরীক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার কবি সুফিয়া কামালের নামানুসারে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার দাবি ইতিহাসবিদ সিরাজ উদ্দীনের জাবির হল খুলে দেওয়াসহ ৭দফা দাবি শিক্ষার্থীদের নাব্যতা ফিরিয়ে আনতে শুরু হল বুড়ি তিস্তা খনন নলছিটিতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ভবন নির্মাণের অভিযোগ
৭ নভেম্বরের রহস্য উদ্ঘাটনে বিচারবিভাগীয় কমিশনের দাবি

৭ নভেম্বরের রহস্য উদ্ঘাটনে বিচারবিভাগীয় কমিশনের দাবি

জাতীয় রাজনৈতিক ইতিহাস পর্যালোচনা করে ৭ নভেম্বর ১৯৭৫ সালেল ঘটনা প্রবাহের সঠিক ইতিহাস দেশ-জাতি ও আগামী প্রজন্মকে সত্য পটভূমি জানাতে বিচারবিভাগীয় কমিশন গঠন করা সময়ের দাবি হয়ে উঠেছে। শুদ্দক্রবার (১ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাব তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে ‘৭ নভেম্বর ১৯৭৫; প্রচার ও অপপ্রচার’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় এমন দাবি করেন। আলোচনা সভার আয়োজন করেন বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম (বোয়াফ)।

বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে সবচেয়ে সমালোচিত ও বিতর্কিত দিন ৭ নভেম্বর। ১৯৭৫ সালের এইদিনের ঘটনা জাতীয় রাজনীতিতে যে ওলটপালট শুরু হয়েছিল, তার রেশ থেকে জাতি আজও মুক্ত হতে পারেনি, কলঙ্কমুক্ত হয়নি বাংলাদেশের রাজনীতিও। বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসে ৭ নভেম্বর একটি রহস্যময় অধ্যায় হয়ে আছে। তাঁরা আরও বলেন, ৪৩ বছর পর আজও বিষয়টি সম্পর্কে আমাদের ধারণা পরিচ্ছন্ন ও পরিপূর্ণ নয়। ৭ নভেম্বরকে এখন আর কেউ বিপ্লব বলে না। জাসদের ‘সিপাহি জনতার বিপ্লব’ এবং বিএনপির ‘জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস’ সময়ের ব্যবধানে আর সঠিক ইতিহাসের অগ্রপথে ফিকে হয়ে গেছে।

অতিথিবৃন্দ আরও বলেন, ৭ নভেম্বরের রহস্য উদঘাটন করতে রাজনৈতিক ইতিহাস পর্যালোচনা, বিচার-বিশ্লেষণ ও মুল্যায়ন করা; সময়ের অন্যতম দাবি হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশের রাজনীতিকে কলঙ্কমুক্ত করতে এবং দেশ-জাতি ও আগামী প্রজন্মকে ৭ নভেম্বর ১৯৭৫ সালের ষড়যন্ত্রের মুখোশ উন্মোচন করতে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিশন গঠন করা উচিত।

সংগঠনের সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময়ের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সংসদ সদস্য-মুক্তিযোদ্ধা মুহম্মদ শফিকুর রহমান, নিরাপত্তা বিশ্লেষক ও কলাম লেখক মেজর জেনারেল (অব.) আবদুর রশীদ, এশিয়া প্যাসিফিক ইউনিভার্সিটির কোষাধ্যক্ষ ও বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সাবেক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা-এয়ার কমোডর (অব.) ইশফাক ইলাহী চৌধুরী, খালেদ মোশাররফের জ্যেষ্ঠ কণ্যা ও সাবেক সংসদ সদস্য-মাহজাবিন খালেদ, কবি ও লেখক-সোহরাব হাসান, বীর মুক্তিযোদ্ধা জহির উদ্দিন জালাল (বিচ্ছু জালাল), সাংবাদিক মাহবুব কামাল, সার্জেন্ট সায়েদুর রহমানের পুত্র-মো. কামরুজ্জামান মিয়া, চাকুরী থেকে বরখাস্ত-করপোরাল আবদুল আউয়াল, মুক্তিযোদ্ধা সায়িদ মহিউদ্দিন হায়দার, সেক্টর কমান্ডার বীর উত্তম লে. কর্ণেল আবু ওসমানের মেয়ে-নাছিমা ওসমানসহ আরও অনেকে।


Leave a Reply