হাইকোর্টে স্থগিত নওশাবার মামলা – Nobobarta

আজ শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:৩৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
১০ ডিসেম্বর উপাচার্যের দুর্নীতির ক্ষতিয়ান প্রকাশ করবে আন্দোলনকারীরা মার্শাল আর্ট ‘বিচ্ছু’ নিয়ে আসছেন সাঞ্জু জন আজ উদয় সমাজ কল্যান সংস্থা সিলেটের ১২তম ওয়াজ মাহফিল দলীয় কার্যালয় সম্প্রসারণের লক্ষে আগৈলঝাড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির প্লট উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের কাছে হস্তান্তর যবিপ্রবিতে ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার বাংলাদেশের নতুন কমিটি গঠন আটোয়ারীতে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ উপলক্ষে এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত জবি রোভার দলের হেঁটে ১৫০ কিলোমিটার পরিভ্রমণের উদ্বোধন মারুফ-তানহার ‘দখল’ লক্ষ্মীপুরে রামগতি পৌরসভায় ৮ কোটি টাকার টেন্ডার জালিয়াতি চেষ্টার অভিযোগ নলছিটিতে যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার
হাইকোর্টে স্থগিত নওশাবার মামলা

হাইকোর্টে স্থগিত নওশাবার মামলা

অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদের বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলার কার্যক্রম ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি, কেন ওই মামলার কার্যক্রম বাতিল করা হবে না- তা চার সপ্তাহের মধ্যে সরকারকে তা জানাতে রুল জারি করেছেন আদালত। ফেইসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে করা মামলা বাতিল চেয়ে নওশাবার এক আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর হাই কোর্ট বেঞ্চ বুধবার রুলসহ এই আদেশ দেয়।

আদালতে নওশাবার পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমিনুর রহমান চৌধুরী টিকু। জ্যোতির্ময় বড়ুয়া সাংবাদিকদের বলেন, ২০১৮ সালের ৫ আগস্ট তথ্য প্রযুক্তি আইনে নওশাবার বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করা হয়। কিন্তু ওই বছর ৮ অক্টোবর তথ্য প্রযুক্তি আইন বিলুপ্ত করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন কার্যকর করা হয়। নতুন আইনের ৬১ ধারা মতে, তথ্য প্রযুক্তি আইনের কোনো মামলা বিচারাধীন থাকলে তা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে চলমান থাকবে। কিন্তু এ মামলার অভিযোগপত্র দেওয়া হয় চলতি বছরের ৩০ এপ্রিল। আর অভিযোগ আমলে নেওয়া হয় ৩ সেপ্টেম্বর। তাই এ মামলার কার্যক্রম অবৈধ।

এ কারণে মামলা বাতিল চেয়ে আবেদন করা হয়েছিল উল্লেখ করে জ্যোতির্ময় বড়ুয়া বলেন, আদালত ৬ সপ্তাহের স্থগিতাদেশ দিয়ে রুল জারি করেছে। নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে গত বছর ৪ আগস্ট রাতে রাজধানীর উত্তরা থেকে নওশাবাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। নওশাবাকে গ্রেপ্তার করার পর তার বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা করা হয়। ওই মামলায় দুই দফায় মোট ছয় দিন তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এর মধ্যে অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসাও দেওয়া হয়। পরে গত বছর ২১ আগস্ট জামিনে মুক্তি পান নওশাবা।


Leave a Reply