হবিগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২ শতাধিক - Nobobarta

আজ রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:০৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
মাভাবিপ্রবিতে পদার্থ বিজ্ঞানে গবেষণা শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ঐক্যবদ্ধভাবে গণতন্ত্র মুক্তির আন্দোলনে থাকতে হবে : নজরুল ইসলাম খান কিশোরি ধর্ষনের অভিযোগে ঘিওরে কথিত সাংবাদিক কামাল গ্রেপ্তার পুঠিয়ায় জেন্ডার ভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধে পুরুষের দায়িত্ব ও ভূমিকা বিষয়ক আলোচনা সভা লিসা’র হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন খালেদা জিয়ার মুক্তি ছাড়া গণতন্ত্র মুক্তি পাবে না : খন্দকার লুৎফর জাবি উপাচার্যকে ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা করে কালো পতাকা প্রদর্শন আন্দোলনকারীদের মোহামেডানসহ ৪ ক্লাবে জুয়ার বর্ণাঢ্য আয়োজন জবিতে শুরু হচ্ছে আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় বিজনেস কেইস কম্পিটিশন আবৃত্তিকার কামরুল হাসান মঞ্জু’র মৃত্যুতে জাতীয় মানবাধিকার সমিতির শোক
হবিগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২ শতাধিক

হবিগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২ শতাধিক

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  

শেখ মোহাম্মদ তানভীর হোসেন : হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি # হবিগঞ্জে ভারতীয় টিভি সিরিয়াল কিরণ মালা দেখাকে কেন্দ্র করে বিরোধের জেরে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন নারী ও শিশুসহ কমপক্ষে দুই শতাধিক লোক। বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে ১১টা পর্যন্ত হবিগঞ্জ সদর উপজেলার ধল বাজারে দফায় দফায় এ সংঘর্ষ চলে। এ সময় হবিগঞ্জ-লাখাই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। স্থানীয় সূত্র জানায়, বুধবার রাতে ধল বাজারে শাকির রেস্টুরেন্টে স্টার জলসায় কিরণ মালা সিরিয়াল দেখা নিয়ে ধল গ্রামের সানু মিয়ার মেয়ে রেবা ও হাফসার সঙ্গে একই গ্রামের শেফালীর বাকবিতণ্ডা হয়। এনিয়ে উভয় পরিবারের লোকজন শাকির রেস্টুরেন্টে এসে ঝগড়া ও হাতাহাতিতে লিপ্ত হন। এ সময় রেস্টুরেন্টের মালিক কামরুলসহ পাঁচজন আহত হন। পরে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা রাতেই বিষয়টি মিমাংসা করে দেন। এর জের ধরে বৃহস্পতিবার সকালে উভয়পক্ষের লোকজন বাজারের পাশের একটি খেলার মাঠে টেঁটাসহ দেশি অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় বেশ কয়েকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও যানবাহন ভাঙচুর করেন তারা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাঠিচার্জ ও নয় রাউন্ড রাবার বুলেট, পাঁচ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের মধ্যে কাদির মিয়া, সাবাজ মিয়া, তাহের মিয়া, আরজু, বাচ্চু, পরশ, ধলাই, উমেদ, আরাফাত, আবদুল গফুর, ইমতিয়াজ, আবদুল আজিজ, ওমর, বকুল, কালাম, শাহিদুল, নুর মিয়া, দিদার হোসেন, জামাল মিয়া, দরবেশ, জাহির, আলমগীর, আবদুল হান্নান, জুলহাস, মোবারক, হাবিব মিয়া, আব্দুর রহিম, মামুন, ইমান আলী, জবেদা খাতুন, আব্দুল মতিন, বেলাল, খুর্শেদ আলী, হারুন, মুর্শেদ, হিরণ মিয়া, আবদুল কুদ্দুছ, মাইন উদ্দিন, মিজাজ আলী, আবদুল মতলিব, রুকন আলী, সাহেব আলী, কাজল মিয়া, আবদুল আলীম, উজ্জ্বল, আবদুল খালেকসহ অন্তত দুই শতাধিক লোককে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। রাবার বুলেট ও টেঁটাবিদ্ধ অবস্থায় আতর আলী, নানু মিয়া, গিয়াস উদ্দিন, মোশারফ, খেলু মিয়া, টেনুসহ ১০ জনকে উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াসিনুল হক জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। ফের সংঘর্ষ এড়াতে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন


Leave a Reply