পঞ্চগড়ে মাদ্রাসা শিক্ষক কর্তৃক বলাৎকারের অভিযোগ | Nobobarta

আজ শনিবার, ০৬ Jun ২০২০, ০৩:২৭ পূর্বাহ্ন

পঞ্চগড়ে মাদ্রাসা শিক্ষক কর্তৃক বলাৎকারের অভিযোগ

পঞ্চগড়ে মাদ্রাসা শিক্ষক কর্তৃক বলাৎকারের অভিযোগ

Rudra Amin Books

নাজমুস সাকিব, পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে মাদ্রাসার শিক্ষক কর্তৃক দুই ছাত্র বলাৎকারের ঘটনা ঘটেছে। ঘৃণিত এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নের কালমেঘ জান্নাতবাগ নূরানীয়া হাফেজিয়া মাদ্রাসায়। অভিযোগে সূত্রে জানা যায়, গত ১৫ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় কালমেঘ জান্নাতবাগ নূরানীয়া হাফেজিয়া মাদ্রাসার প্রথম জামাতের ছাত্র বলরামপুর গ্রামের ইফসুফ আলীর পুত্র সাকিব আল হোসেন সোয়াদ (৭) কে ওই মাদ্রাসার শিক্ষক বোদা উপজেলার নুরুল ইসলামের পুত্র শামীম হোসেন বাই সাইকেল যোগে ছাত্রের বাড়িতে পৌছে দেওয়ার পথে বাঁশ ঝাড়ে নিয়ে গিয়ে উপর্যুপরি বলাৎকার করে এবং বিষয়টি কাউকে বললে জানে মেরে ফেলার হুমকী দেয়। অতঃপর শিশুটিকে তাদের বাড়িতে রেখে
যায়। পরে শিশুটি অসুস্থ হয়ে পরলে শিশুটি ঘটনার কথা তার বাবা-মা কে জানায়।

ঘটনাটি প্রকাশ হলে একই গ্রামের এরশাদের পুত্র নাহিদ(৯) কে ওই মাদ্রাসার আরেক শিক্ষক চট্রোগ্রাম জেলার সাতকাউনিয়া গ্রামের আলী আহাম্মেদের পুত্র আব্দুর রব কর্তৃক বলাৎকারের ঘটনা প্রকাশ পায়। উভয় ঘটনায় দুই শিশুর অভিভাবক প্রতিষ্ঠানের প্রাধন বরাবর অভিযোগ করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে মাদ্রাসার কমিটি ওই দুই শিক্ষককে গত ২৬ ডিসেম্বর রাতে মাদ্রাসা হতে বের করে দেয়। অভিযুক্ত শিক্ষক শামীমের সাথে মোবাইলে কথা বললে সে তার দোষ স্বীকার করেন কিন্তু আব্দুর বলেন, তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে।

এব্যাপারে মাদ্রাসার প্রধান মাওলানা আরাফাত সরকার বলেন, অভিযোগ করেছে সত্য তবে বলাৎকারের ঘটনা ঘটেনি, বলাৎকারের চেষ্টা করা হয়েছে। আমাদের কাছে ওই ছাত্ররা এমনই জবানবন্দি দিয়েছে। কমিটি সহ আমি তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিয়েছি। অভিযুক্তদের মাদ্রাসা হতে বের করে দেওয়া হয়েছে। মাদ্রাসার সেক্রেটারি মো.হাবিুল্ল্যাহ এবং সভাপতি আলহাজ্জ্ব দেলোয়ার হোসেন সাহেবও একই কথা বলেন।


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.






Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Developed By Nobobarta