ক্যাবল অপারেটরের উপর সন্ত্রাসী হামলার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও স্বরকলিপি প্রদান! | Nobobarta

আজ মঙ্গলবার, ০২ Jun ২০২০, ০৪:৪৫ পূর্বাহ্ন

ক্যাবল অপারেটরের উপর সন্ত্রাসী হামলার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও স্বরকলিপি প্রদান!

ক্যাবল অপারেটরের উপর সন্ত্রাসী হামলার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও স্বরকলিপি প্রদান!

Rudra Amin Books

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ক্যাবল অপারেটরের উপর সন্ত্রাসী হামলার বিচার ও গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে শরীয়তপুর ক্যাবল অপরেটর এসোসিয়েশন। গত ৭ ফেব্রুয়ারি রাতে ক্যাবল ব্যবসায়ী মাসুদুর রহমানকে সন্ত্রাসীরা এলোপাতারি কুপিয়ে জখম করে। সন্ত্রাসীদের দ্রুত  গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে  গত রোববার  বেলা সাড়ে ১১ টায় শরীয়তপুর  জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়। মানববন্ধন  থেকে বক্তারা সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের ২৪ ঘন্টার মধ্যে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানান।

চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে দৃশ্যমান  কোন অগ্রগতি নাহলে বৃহত্তর ফরিদপুরে প্রথমে ১ ঘন্টা সম্প্রচার বন্ধ রাখা হবে। পরবর্তীতে প্রয়োজনে  কেন্দ্রীয়ভাবে আরও কঠোর কর্মসূচী  নেয়ারও  ঘোষণা  দেন নেতৃবৃন্দ। এসময় বক্তব্য রাখেন  কেন্দ্রীয় ক্যাবল অপারেটর এসোসিয়েশনের সদস্য ও শরীয়তপুর শাখার উপদেষ্টা  মোঃ হারুন অর রশীদ, শরীয়তপুর শাখার সভাপতি  মোঃ রেজাউল হক  রেজা, সাধারণ সম্পাদক আহমেদ জুলহাস, সহ সভাপতি  মোঃ হুমায়ুন কবির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক  মোঃ  লোকমান  হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক  মোঃ মাহবুবুর রহমান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ উজ্জাল সরদার, জাজিরা উপজেলা সাভাপতি মোঃ আলতাফ হোসেন সরদার, নড়িয়া উপজেলা সভাপতি লিটন লস্কর প্রমুখ। এছাড়াও কর্মসূচীতে  জেলার সকল ক্যাবল অপারেটর ও ফিড অপারেটর ব্যবসায়ী অংশ নেয়। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য গত ১৫  ফেব্রুয়ারি  রাত ১০ টার দিকে ডামুড্যা উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ্যাসেসিয়েশনের  জেলা সভাপতি  মোঃ রেজাউল হক রেজা জানান, স্থানীয় কিছু সন্ত্রাসী/চাঁদাবাজ  বেশ কিছুদিন থেকে মাসুদের মাধ্যমে ক্যাবল ব্যবসায়ীদের কাছে ২ লক্ষ টাকা চাাঁদা দাবি করে আসছিল। চাঁদা না দেয়ায় সন্ত্রাসীরা ওই রাতে ৭/৮ জনের ১টি সন্ত্রাসী দল মাসুদকে এলোপাথারী কুপিয়ে মারাতœক জখম করে। গুরুতর আহত মাসুদকে প্রথমে শরীয়তপুরে ও পরে সংকটাপন্ন অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায়  প্রেরন করা হয়েছে। এ ঘটনায় ডামুড্যা থানায় একটি মামলা হলেও  এখনো  কেউ  গ্রেফতার হয়নি।

এ ব্যাপারে ডামুড্যা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: মাহবুবুর রহমান  চৌধুরীর সাথে মুঠো  ফোনে বহুবার  চেষ্টা করেও  যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.






Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Developed By Nobobarta