সহায়তায় মুগ্ধ ভর্তিচ্ছুরা, ভর্তি যুদ্ধের সমাপ্তি – Nobobarta

আজ শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৮:১২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
মহিউদ্দিন সভাপতি, আবু বকর সম্পাদক উদয় সমাজ কল্যান সংস্থার ১২ তম ওয়াজ মাহফিল সম্পন্ন ১০ ডিসেম্বর উপাচার্যের দুর্নীতির ক্ষতিয়ান প্রকাশ করবে আন্দোলনকারীরা মার্শাল আর্ট ‘বিচ্ছু’ নিয়ে আসছেন সাঞ্জু জন আজ উদয় সমাজ কল্যান সংস্থা সিলেটের ১২তম ওয়াজ মাহফিল দলীয় কার্যালয় সম্প্রসারণের লক্ষে আগৈলঝাড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির প্লট উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের কাছে হস্তান্তর যবিপ্রবিতে ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার বাংলাদেশের নতুন কমিটি গঠন আটোয়ারীতে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ উপলক্ষে এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত জবি রোভার দলের হেঁটে ১৫০ কিলোমিটার পরিভ্রমণের উদ্বোধন মারুফ-তানহার ‘দখল’
সহায়তায় মুগ্ধ ভর্তিচ্ছুরা, ভর্তি যুদ্ধের সমাপ্তি

সহায়তায় মুগ্ধ ভর্তিচ্ছুরা, ভর্তি যুদ্ধের সমাপ্তি

মনিরা নুসরাত ফারহা : জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ২০১৯-২০ সেশনের ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সহায়তায় বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি মো:নজরুল ইসলাম বাবু, সাধারন সম্পাদক মো:রাকিবুল হাসান রাকিব । এ লক্ষ্যে শাখা ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মাঝে দায়িত্ব ভাগ করেও দেয়া হয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায়, হলের অভ্যর্থনা কক্ষে দূর-দূরান্ত থেকে আগত ভর্তিচ্ছুদের অভ্যর্থনা দিয়ে আবাসন ব্যবস্থার করে দিচ্ছে। আগন্তুক শিক্ষার্থীদের যাতে কোন কষ্ট না হয় এজন্য থাকার ও মশার কয়েল সরবরাহ করছে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে। এমনকি নিজেরা না ঘুমিয়ে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের রুম ছেড়ে দিচ্ছে জাককানইবির শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।

হলে পর্যাপ্ত খাবারের ব্যবস্থা এবং স্বল্প খরচে খাবারের ব্যবস্থা করার দিকেও নজরদারিতে আছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে যে মূল্য তালিকা দেয়া হয়ে সে অনুযায়ী খাবার মূল্য নিচ্ছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে তারা। শাখা ছাত্রলীগের আরেক নেতা মোস্তাফিজুর রহমান রিমন বলেন, রাত দিন পরিশ্রম করছি শুধু ছাত্রলীগের সুনাম রক্ষা করতে।

এছাড়াও সরেজমিনে দেখা যায়,ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের জন্য তথ্য প্রদান ও শিক্ষার্থী সহায়তা কেন্দ্র, সুপেয় পানির ব্যবস্থা, ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের স্বাগতম জানাতে শুভেচ্ছা মিছিল, পরীক্ষা কেন্দ্রের সামনে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের ক্যাম্পাসে বসার ব্যবস্থা করাসহ নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে ছাত্রলীগ। ছাত্রলীগের এই আয়োজনকে স্বাগত জানিয়েছে শিক্ষার্থী, অভিভাবকসহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ব্যক্তিবর্গ। অনুভূতিও ব্যক্ত করেছেন দেশের দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসা শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

শিক্ষার্থীরাও জানিয়েছে তাদের অনুভূতির কথা, ঢাকা থেকে আসা তুহিন রহমান নামে এক পরীক্ষার্থী বলেন, ‘এখানে আমার তেমন পরিচিত কেউ ছিল না, ভাবছিলাম কোথায় থাকব, কিন্তু এখানে আসার পর ভাইয়াদের আন্তরিকতায় মুগ্ধ হয়েছি। ’

এ বিষয়ে জাককানইবির শাখা ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক মো: রাকিবুল হাসান রাকিব বলেন, জাককানইবি শাখা ছাত্রলীগ শিক্ষার্থী বান্ধব রাজনীতি করে, তাই শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিতে এসে যাতে কোন ধরণের সমস্যায় না পড়ে যায় সেই লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের সহায়তা দিতে পরীক্ষা চলাকালীন সময় ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা সার্বক্ষণিক কাজ করেছে। ইতোমধ্যেই আমরা আবাসিক হলগুলোতে ভর্তিচ্ছুদের থাকার ব্যবস্থা করেছি। এছাড়াও প্রত্যেকটি ভবনের সামনে ভর্তিচ্ছুদের সহায়তার জন্য ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা অবস্থান করছে। এছাড়া ভর্তিচ্ছু এবং তাদের অবিভাবকদের মাঝে সুপেয় পানি বিতরণ করেছি।

ভর্তি পরীক্ষা যতদিন চলবে এই সেবাকার্যক্রম ততদিন অব্যাহত থাকবে বলে জানান। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে শাখা ছাএলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বলেন, দূর-দুরান্ত থেকে আসা ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা এবং সাথে থাকা অভিভাবকগণ আমাদের অতিথি তাদের যেকোন সমস্যা দেখায় দায়িত্ব আমাদের তিনি আরও বলেন বিশ্ববিদ্যালয়ে শাখা ছাএলীগ শিক্ষার্থীর এবং অভিভাবকদের কথা চিন্তা করে বিশুদ্ধ খাবার পানি এবং ছাউনির ব্যবস্থা করেছি যেন তারা একটু আরাম করে বসতে পারে। এদিকে, ছাত্রলীগের সহায়তার এমন বর্ণিল আয়োজনে মুগ্ধ শিক্ষার্থী ও অবিভাবকরা। এমন ছাত্রলীগের দ্বারাই সোনার বাংলা গড়া সম্ভব বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন অবিভাবকেরা। এবং ছাত্রলীগকে সকল ক্ষেত্রে এ সেবা কার্যক্রম অব্যাহত রাখার কথা জানান তারা।
উল্লেখ্য, “ই” ইউনিটের পরীক্ষার মাধ্যমে শেষ হলো ভর্তিযুদ্ধ।


Leave a Reply