গফরগাঁওয়ে ইমাম হত্যা মামলায় গ্রেফতার ২, রহস্য উদঘাটন | Nobobarta

গফরগাঁওয়ে ইমাম হত্যা মামলায় গ্রেফতার ২, রহস্য উদঘাটন

পড়ার সময়:3 মিনিট, 29 সেকেন্ড

আবিদ হাসান জুয়েল, গফরগাঁও প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে চাঞ্চল্যকর ইমাম হত্যা মামলায় আরো ২ আসামীকে গ্রেফতার করেছে ময়মনসিংহ ( ডিবি) পুলিশ। মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ময়মনসিংহ ডিবি পুলিশের ওসি মোঃ শাহ আলম আকন্দের নেতৃত্বে ডিবি পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে পার্শ্ববর্তী শ্রীপুর উপজেলার বরমী বাজার এলাকা থেকে ঘটনার ১০ দিন পর দুই ঘাতককে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন উপজেলাধীন পাগলা থানার সাধুয়া গ্রামের দুলাল শেখের ছেলে সুজন মিয়া (২৫),ও অললী গ্রামের মৃত হাফিজ উদ্দিনের ছেলে সিরাজ শেখ(২৫)। সূত্রে জানা যায়, গত (১৯ সেপ্টেম্বর) শনিবার রাতে উপজেলার বেলদিয়া গ্রামের মৃত শেখ মরজত আলীর ছেলে হাফেজ মাওলানা মোঃ আজিম উদ্দিন ও সাধুয়া জামে মসজিদের ইমাম (৫৮) এশার নামাজের ইমামতি করে রাত সোয়া আটটার দিকে বাড়ি ফিরছিলেন। সাধুয়া-নিগুয়ারি খালের পাশে সাধুয়া মার্কেটের নিকটে অজ্ঞাতনামা দুর্বত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে।

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বিলকিস বেগম (৫০) বাদী হয়ে পাগলা থানায় নামীয় ৩ জনসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। তারই প্রেক্ষিতে গ্রেফতারকৃত ঘাতকদ্বয়কে আজ বুধবার বিকেলে আদালতে সোর্পদ করা হলে, আসামীরা ইমাম হত্যার দায় স্বীকার করে লোমহর্ষক বর্ণনা দিয়ে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে।

ডিবি পুলিশ ও আদালতের দেওয়া স্বীকারোক্তি থেকে জানা যায়, সাধুয়া গ্রামের মতিন মাষ্টারের মসজিদের পাশের মৎস খামারের সীমানা নিয়ে দুই পক্ষেরে বিরোধ ছিল। সাধুয়া মতিন মাষ্টারের বাড়িসংলগ্ন মসজিদের ইমাম হাফেজ আজিম উদ্দিন এক পক্ষে অবস্থান নেয়। এই দ্বন্দ্বের জেরেই আসামীরা এই নৃশংস হত্যাকাণ্ড চালায়।
ময়মনসিংহ ডিবির ওসি মোঃ শাহ আলম আকন্দ জানান, গ্রেফতার হওয়া সিরাজ শেখ ও সুজন মিয়া এজাহার নামীয় আসামী না। ঘটনার দিন ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং ও তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে তাঁদেরকে গ্রেফতার করা হয়। উল্লেখ্য যে, ঘটনার পরদিন ( ২০ সেপ্টেম্বর ) মামলার এজাহার ভুক্ত অন্যতম আসামী তাজুল ইসলাম ( ৪৬) কে গ্রেফতার করেছে পাগলা থানা পুলিশ।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

48 Shares
Share48
Tweet
Share
Pin