৩৫ বছর যাবত ছাতা মেরামতের কাজ করে সংসার চালাচ্ছেন আব্দুল মান্নান! | Nobobarta

আজ বৃহস্পতিবার, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৪:৪০মি:

৩৫ বছর যাবত ছাতা মেরামতের কাজ করে সংসার চালাচ্ছেন আব্দুল মান্নান!

৩৫ বছর যাবত ছাতা মেরামতের কাজ করে সংসার চালাচ্ছেন আব্দুল মান্নান!

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: সুদীর্ঘ ৩৫ বছর যাবত মানুষের ছেঁড়া ছাতা মেরামত করেই জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন আবদুল মান্নান (৬৫) নামে এক বৃদ্ধ কারিগর। তার বাড়ি ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার বালিপাড়ার আমিয়ান ডাংগরী গ্রামে। তিনি ভালুকার বিভিন্ন হাট-বাজার, ত্রিশাল, গফরগাঁও, ময়মনসিংহ সদরসহ বিভিন্ন এলাকায় হাটবারে ফুটপাথে ছাতা মেরামত করে থাকেন।

করোনা ভাইরাস সংক্রমন উপেক্ষা করে শুক্রবার বিকেলে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভালুকা বাসস্ট্যান্ডের ফুটপাথে ছাতা মেরামতের সময় দীর্ঘক্ষণ কাজের ফাঁকে কথা হয় বৃদ্ধ মান্নানের সাথে। তিনি জানান, দীর্ঘ ৩৫ বছর যাবত এ কাজে তার অভিজ্ঞতার কথা। তিনি এ পেশায় নানা প্রতিকূলতার মাঝে তার জীবন জীবিকা পরিচালনা করে আসছেন। প্রতিদিনই জেলার বিভিন্ন হাট বাজারে ছূটে চলেন ছাতা মেরামত করতে। জনবহুল এলাকার ফুটপাথে রোদ বৃষ্টি উপেক্ষা করে মেরামতের সরঞ্জামাদি নিয়ে পসরা সাজিয়ে বসেন। যেদিন সকালে বৃষ্টি হয়, সেদিন তার ব্যবসা ভাল যায়, আর যেদিন বৃষ্টি হয়না, সেদিন ব্যবসার অবস্থা খুবই খারাপ অর্থাৎ আয় রোজগার একেবারেই কম বললেই চলে। তিনি ছাতা মেরামতের বিভিন্ন মালামাল ময়মনসিংহ সদরের ছোট বাজার হতে সংগ্রহ করেন। তবে টুকিটাকি মালামাল স্থানীয় বালিপাড়া বাজার হতেই সংগ্রহ করে থাকেন। ছাতা মেরামত করেই দীর্ঘ ৩৫ বছর যাবত তিনি সংসারের ভরন পোষন চালিয়ে আসছেন। বলতে গেলে এই বৃদ্ধ বয়সেও ছাতা মেরামত করেই জীবিকা নির্বাহ করে চলেছেন।

তিনি ফরিদপুরের এক কারিগরের কাছ থেকে ছাতা মেরামতের কাজ শিখেছেন। সেই থেকে স্থানীয় হাট বাজারে মেরামতের কাজ শুরু করেন এবং ব্যাপক সফলতা পাওয়ায় এটিকেই পরবর্তীতে জীবিকা নির্বাহের পথ হিসেবে বেছে নেয়। এ থেকে প্রতিদিন ৩ থেকে ৪শত টাকা রোজগার হয়। কোন কোন দিন ৮ থেকে ৯শ টাকার কাজ করতে পারেন। আবদুল মান্নান জানান, স্ত্রীসহ চার ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে তার পরিবার। এই কাজের রোজগার দিয়েই তার এক মেয়েকে বিবাহ দিয়েছেন। বর্তমানে দুই ছেলে ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ী শিল্পাঞ্চলে একটি গার্মেন্টস কারখানায় কাজ করে।

তিনি এ পেশায় জীবনের শেষ মূহুর্ত পর্যন্ত নিজেকে নিয়োজিত রাখতে চান। এ কাজে তিনি কখনও নিজেকে ছোট মনে করেনি। তিনি মনে করেন সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করলে কোন পেশাই ছোট নয়। বরং প্রতিটি কাজের জন্য চাই মনোযোগ ও দক্ষতা। তাহলেই জীবনে সাফল্য আসবে বলে তিনি মনে করেন।

Rudra Amin Books
ফেসবুক থেকে মতামত দিন


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সংরক্ষণাগার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Developed By Nobobarta