আমার দেখা একজন মানবতার সেবক ড. নিছার উদ্দিন | Nobobarta nobobarta.com | Latest online bangla world news bd | latest, news, Sports, bd, bangladesh, politics, video, live

সোমবার, ৪ মাঘ, ১৪২৭, ১৮ জানুয়ারি, ২০২১, রাত ১:০৪ মি:

বিজ্ঞাপন
সংবাদ শিরোনাম:
শেষের দিকে সুবাহ-নিলয়ের ‘মন বসেছে পড়ার টেবিলে’ নড়িয়া পৌরসভা ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদপ্রার্থী ফজলুল হক টাঙ্গাইলে জেলা যুবলীগ আয়োজিত আ’লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থীর মতবিনিময় সভা শ্রীপুর পৌর নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে জেলা ছাত্রলীগের গণসংযোগ বেতন গ্রেড অনিয়মের অভিযোগের পরেও বহাল অফিস প্রধান সহকারি সর্দার জালাল নতুন দিনের কবিতা-কথায় ৮০ তম সাউন্ডবাংলা-পল্টনড্ডা টাঙ্গাইলে আ:লীগ নেতা মরহুম আলমগীর হোসেনের স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ভালুকায় ক্রিকেট ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলে আলফা ইসলামী লাইফ ইন্সুরেন্স অফিস উদ্বোধন আগামীকাল সারাদেশে দ্বিতীয় ধাপে ৬০ পৌরসভার ভোট
আমার দেখা একজন মানবতার সেবক ড. নিছার উদ্দিন

আমার দেখা একজন মানবতার সেবক ড. নিছার উদ্দিন

আজহার মাহমুদ : ড. নিছার উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু। চট্টগ্রামের মানুষ হয়তো কমবেশি সকলেই চিনবেন। যারা চিনবেন না তাদেও কাছে মানবিক মানুষ হিসেবেই আজ পরিচয় করিয়ে দিতে চাই। চসিকের প্যানেল মেয়র, ১০ নং ওয়ার্ড়ের কাউন্সিলর এসব কখনোই তাঁর বড় পরিচয় হতে পারে না। এরচেয়ে বড় পরিচয় মানবতার সেবক এবং একজন মানবিক মানুষ। মানবতার দৃষ্টান্ত কতভাবে ফুটিয়ে তোলা যায় তার জীবন্ত উদাহারণ ড. নিছার উদ্দিন।

না, আমি তার গুণগান গাইতে আসিনি। আমি শুধু বলতে এসেছি মানবতা এখনও বেঁেচ আছে। আর সেটা আমাদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন ড. নিছার উদ্দিন। যার ভেতর নেই কোনো অহংকার, নেই কোনো দাম্ভিকতা। ভালোবাসার পরশ নিয়ে যিনি সবসময় মানুষের পাশে থাকতে পছন্দ করেন। তিনিই বাংলাদেশের একমাত্র কাউন্সিলর যিনি সর্বোচ্চ ডিগ্রি পিএইচডি অর্জন করেছেন। যার ভেতর এতো মেধা, সততা, মানুষের চিন্তা, কাজের স্পৃহা তার কথা কীভাবে না বলে থাকি?

করোনাভাইরাসের মহামারির পর থেকে লোকচক্ষুর অন্তরালে তিনি করে যাচ্ছেন মানবসেবা। তার এসব সেবার অধিকাংশই জানেনা অনেকেই। পত্রপত্রিকায়ও খুব একটা দেখা যায় না তার মানবসেবার নিউজ। করোনাভাইরাসের কারণে সারাদেশে যখন লকডাউন, তখনই তিনি সক্রিয় হয়ে উঠেন তার নিজস্ব এলাকায়। এলাকার সাধারণ মানুষরা তাকে ফোন দিলেই তিনি তাদের আর্থিকভাবে সাহায্য করেন। এর কিছুদিন পর তিনি ব্যাক্তিগত উদ্যোগে চাল, ডাল, তেল, আলু সহ বিভিন্ন খাদ্যসামগ্রী ক্রয় করে এলাকার মানুষকে বিতরণ করেন। যার খবর কেউ রাখেনি। হাতে মাস্ক, হ্যন্ড গ্লাভস, সাবান, স্যানিটাইজার নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরেছেন শুরু থেকেই। মসজিদ, মন্দিরে গিয়ে এসকল সরঞ্জাম দিয়ে এসেছেন নিরবে। এছাড়াও মসজিদের ইমাম, মোয়াজ্জেন এবং মন্দিরের পুরোহিতদের কথাও তিনি মনে রেখেছেন।

এরপর মাহে রমজান আসে। প্রতিবছরের ন্যায় প্রথম রমজানে সেহরী ও ইফতার সামগ্রী বিতরণ করেন। ওয়ার্ড়ের দেড় হাজার পরিবারকে তিনি নিজ হাতে এসকল সামগ্রী দিয়েছেন। এর কিছুদিন পরেই তিনি অসহায় রিকশা চালক, ঠেলাগাড়ি চালক, দিনমজুর, ভ্যান চালকদের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। এসব তাঁর এলাকার মানুষ নিজ চোখেই দেখেছেন। কিন্তু এতেই শেষ নয়।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অনলাইন নববার্তা-কে জানাতে ই-মেইল করুন- nobobarta@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Rudra Amin Books

সবশেষ আবারও লকডাউন শুরু হয়েছে তাঁর এলাকায়। গত ১৬ জুন দিবাগত রাত থেকে সেই লকডাউন কার্যকর হচ্ছে। লকডাউনে সরকার থেকে যে পরিমাণ চাল দিয়েছেন তা এই এলাকার জন্য যথেষ্ট নয়। তবুও তিনি থেমে থাকেন নি। নিজের সর্বোচ্চ চেষ্টা তিনি করে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণের সাথে তিনি তার ব্যাক্তিগত ত্রাণ রেখেছেন। যেখানে তেল, চাল, ডাল, লবণ, চিনি সহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী রয়েছে। প্রতিদিনই প্রায় ১০০ পরিবারকে ফোন দেওয়া মাত্রাই ত্রাণ পৌঁছে দিচ্ছেন তাঁর কর্মীগণ। রেডজোনে থাকা কাট্টলীর লকডাউনের প্রথম দিনেই ৮৪ পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী পাঠিয়েছেন তিনি। এরপর নিজ এলাকায় লকডাউন চলাকালিন সময়ের জন্য তাঁর নিজস্ব অর্থায়নে ২ টি অ্যামবুলেন্সের ব্যবস্থা করেছেন। লকডাউনের শুরু থেকেই প্রতিদিন তাঁর তত্তাবধানে দুইহাজার মানুষকে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হচ্ছে। নিজ ওয়ার্ডের জন্য তিনি নিজের অর্থ দিয়ে অক্সিজেনের ব্যবস্থা করেছেন। সেচ্ছাসেবকদের জন্য সুরক্ষ সরঞ্জামের ব্যবস্থা করে দিলেন নিজ অর্থায়নে। এলাকার সকল ডাক্তারদের জন্য পিপিই ব্যবস্থা করে দিয়েছেন তিনি। প্রতিদিন ১৬০ কেজি মাছ নিজ অর্থায়নে ক্রয় করে পৌঁছে দিচ্ছেন মানুষের ঘরে ঘরে। এভাবে লিখতে গেলে আমার লেখা শেষ হবে না। তবুও এই মানবতার সেবক মানবিক মানুষকে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার জন্য কিছু বলতে হলো।

সবচেয়ে অবাক করার বিষয় কি জানেন? আমরা যখন নিজেদের কথা ভাবছি, তখন তিনি পশুর কথাও ভেবেছেন। এলাকার দোকানপাট বন্ধ থাকায় কুকুরগুলো যখন খাবারের জন্য রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছে তখন তিনি নিজ হাতে এসকল কুকুরকে খাবার দিয়েছেন। এমন মানবতার দৃষ্টান্ত খুব কম দেখাযায় এসময়। যেখানে অন্যান্য নেতারা করোনার ভয়ের ঘরবন্দি তখন যেন এক ভিন্ন মানুষের দেখা মিলেছে কাট্টলীতে। পুরো ১০নং ওয়ার্ড় যেন তার নিজ বাড়ি। এলাকার সকল মানুষ যেন তার আপনের চেয়েও আপন। নয়তো জীবন ঝুঁকি নিয়ে রোজ সাধারণ মানুষের কাছে গিয়ে এটা-সেটা বিতরণ করা সহজ কিছু নয়। আমরা যখন সকল জনপ্রতিনিধিকে গালাগাল দিতে ব্যাস্থ হয়ে পড়েছি, ঠিক তখনই তিনি নিরবে তাঁর ওর্য়াড়ের মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়ে যাচ্ছেন। আমার এই লেখাটি দেখলে তিনি হয়তো খুশি হবেন না। কারণ তিনি তার গুনগান খুব একটা পছন্দ করেন না। তবে আমাদের দায়িত্ব এসব মানুষকে সমাজের সাথে, দেশের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়া। আমরা প্রতিটি ঘরে ঘরে এমন মানবিক মানুষ চাই। যাদের ভেতর মৃত্যুর ভয় নেই, অর্থের লোভ নেই, স্বার্থের চিন্তা নেই। প্রিয় মানবিক মানুষ ড. নিছার উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু, আপনি ভালো থুকুন, সুস্থ থাকুন। ভবিষ্যতে আপনার প্রয়োজন হতে পারে হয়তো পুরো বাংলাদেশে।

লেখক: আজহার মাহমুদ
প্রাবন্ধিক, কলাম লেখক।

আপনার মতামত লিখুন :

ট্যাগস্:

সংরক্ষণাগার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  


Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Design & Developed BY Nobobarta.com