আজ ৫১তম ‘বিশ্ব মান দিবস’ | Nobobarta

আজ ৫১তম ‘বিশ্ব মান দিবস’

পড়ার সময়:3 মিনিট, 47 সেকেন্ড

আজ বুধবার (১৪ অক্টোবর) ৫১তম ‘বিশ্ব মান দিবস’। দিবসের প্রতিপাদ্য ‘পৃথিবী সুরক্ষায় মান’। এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হচ্ছে। পণ্য এবং সেবার মানের বিষয়ে সচেতনতা তৈরিতে প্রতিবছর বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালন করা হয়ে থাকে।

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এম.পি, শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার এম.পি এবং শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আলী আজম পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন। এছাড়া দিবসটি উপলক্ষে আন্তর্জাতিক মান সংস্থা আইএসও,আইইসি ও আইটিইউ এর প্রধানরা বাণী দিয়েছেন।

দিবসটি উপলক্ষে ১৪ অক্টোবর বুধবার বেলা ১১ টার দিকে তেজগাঁওস্থ বিএসটিআই’র প্রধান কার্যালয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এম.পি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার এম.পি, উপস্থিত থাকবেন। এছাড়াও শিল্পসচিব কে এম আলী আজম ও এফবিসিসিআই’র সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম ইপস্থিত থাকবেন। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করবেন বিএসটিআই’র মহাপরিচালক ড. মো. নজরুল আনোয়ার।

এ উপলক্ষে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন (বিএসটিআই) বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এরই অংশ হিসেবে বিএসটিআই’র প্রধান কার্যালয়ের পাশাপাশি বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়সমূহে আলোচনা সভাসহ প্রচার-প্রচারণামূলক কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। বাংলাদেশ টেলিভিশনে বিশেষ সাক্ষাতকারভিত্তিক আলোচনা অনুষ্ঠান সম্প্রচার এবং বাংলাদেশ বেতারে আলোচনা অনুষ্ঠান সম্প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। বিভিন্ন মোবাইল ফোনে ক্ষুদে বার্তা (এসএমএস) প্রেরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া, রাজধানীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ব্যানার, ফেস্টুন, প্লাকার্ড লাগানো হয়েছে।

Rudra Amin Books

উল্লেখ্য, ১৯৪৬ সালের ১৪ অক্টোবর তারিখে লন্ডনে বিশ্বের ২৫টি দেশের প্রতিনিধিরা বিশ্বব্যাপী পণ্য-সেবার মান বজায় রাখার জন্য একটি আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত মান নির্ধারক সংস্থার বিষয়ে ঐকমত্য পোষন করেন যা পরের বছর থেকে তাদের কার্যক্রম শুরু করে। ঐদিনকে স্মরণীয় করে রাখতেই এ দিবস বৈশ্বিকভাবে পালন করা হয়। ১৯৭০ সাল থেকে আইএসও এই দিনটি পালন করে আসছে। প্রত্যেক বছরই দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় চলমান বিষয়াদিকে ঘিরে নির্ধারণ করা হয়।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

0 Shares
Share
Tweet
Share
Pin