শুন্য হচ্ছে ইবির উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষের পদ : দৌড়ঝাঁপে শিক্ষকরা | Nobobarta

শুন্য হচ্ছে ইবির উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষের পদ : দৌড়ঝাঁপে শিক্ষকরা

পড়ার সময়:5 মিনিট, 24 সেকেন্ড

আদিল সরকার, ইবি প্রতিনিধি : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-উর রশিদ আসকারীর চার বছর মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ২০ আগস্ট। একই সাথে শেষ হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহার মেয়াদও। নিয়মঅনুযায়ী উভয় পদে নতুন কাউকে দায়িত্ব না দিলে আগামী শুক্রবার থেকে শূন্য হতে যাচ্ছে পদ দুটি। তবে পদ দুটির নিয়োগ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কর্মকর্তারা ইতোমধ্যে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। একই সাথে পদদুটি পেতে পৃথক ভাবে দৌড়ঝাঁপসহ নানা তদবিরে নেমেছেন শিক্ষকরা। সরকারের উচ্চ মহলের দৃষ্টি আকর্ষণসহ স্থানীয় এমপি, মন্ত্রী ও ইউজিসি কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রতিনিয়ত সমন্বয় করছেন তারা।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২তম উপাচার্য হিসেবে ২০১৬ সালের ২১ আগস্টে ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. হারুন উর-রশিদ আসকারীকে নিয়োগ দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মহামান্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ খান। উপাচার্যের একই সাথে কোষাধ্যক্ষ পদে নিয়োগ দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. সেলিম তোহাকে। এদিকে টানা দ্বিতীয় বারের মতো উপ-উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান। বর্তমানে এই তিনজনই পরবর্তী উপাচার্য পদের জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন।

তবে বর্তমান উপাচার্য ড. রাশিদ আসকারীকে দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য চেয়ে কাজ করে যাচ্ছেন একটি পক্ষ। যারা বিভিন্ন মাধ্যমে উপাচার্যের গুণ-কীর্তন গেয়ে বেড়াচ্ছেন। পাশাপাশি দ্বিতীয় মেয়াদে এই উপাচার্য ড. রাশিদ আসকারী যাতে না আসতে পারে সেজন্য জোর তদবির চালাচ্ছে আরেকটি পক্ষ। তার অপসারণ চেয়ে মানববন্ধনও করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা ও ছাত্রলীগের একাংশ। এসময় তারা উপাচার্যের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতি এবং বিশেষ মহলকে সুবিধা দেয়ার অভিযোগ এনে তার অপসারণ দাবি করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপাচার্য পদের জন্য এই তিনজন ছাড়াও পৃথকভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও লোকপ্রশাসন বিভাগের অধ্যাপক ড. নাসিম বানু, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুবারের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুস সাত্তার।

Rudra Amin Books

এদিকে ঢাকা, জগন্নাথ ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও ইসলামী বিশ্ববিদালয়ের উপাচার্য পদের জন্য চেষ্টা করছেন বলে জানা গেছে। ইবির সাবেক কোষাধ্যক্ষ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক আফজাল হোসেন, ইবির সাবেক শিক্ষক ও বর্তমানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মনিরুজ্জামান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক শাহ আজম শান্তনু, একই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক পি এম শফিকুল ইসলাম শফিক উপাচার্য পদপ্রত্যাশী।

এছাড়া কোষাধ্যক্ষ পদপ্রত্যশী আছেন ইবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. কাজী আখতার হোসেন, অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. আলমগীর হোসেন, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মাহবুবুল আরফিন, জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন আনোয়ারুল হক স্বপন, সাবেক প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. সাইদুর রহমান ও আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. শাহজাহান মণ্ডল প্রমুখ।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

0 Shares
Share
Tweet
Share
Pin