আদিবাসীদের উপর নির্যাতন- নিপীড়ন, ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদের দাবিতে মানববন্ধন

আদিবাসী ছাত্র পরিষদ এবং আদিবাসী যুব পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে আজ ৩ মার্চ ২০১৮ শনিবার সকাল ১০.৩০টায় বাদপড়া আদিবাসীদের সরকারী গেজেটে অন্তর্ভূক্তিকরণ এবং আদিবাসীদের উপর নিপীড়ন-নির্যাতন, ভূমি থেকে উচ্ছেদ, ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে ঢাকা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মানববন্ধনে আদিবাসী যুব পরিষদ কেন্দ্র্রীয় কমিটির সভাপতি হরেন্দ্রনাথ সিং এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি বিভূতী ভূষণ মাহাতো, সভাপতি নকুল পাহান, সাধারণ সম্পাদক তরুন মুন্ডা, রাজশাহী কলেজ শাখার সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক দুলাল মাহাতো, দপ্তর সম্পাদক পলাশ পাহান, অর্থ সম্পাদক অনিল রবিদাস প্রমূখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও আজ পর্যন্ত বাদপড়া আদিবাসীদের সরকারী গেজেটে অন্তর্ভূক্ত করা হয়নি। বাংলাদেশে ৫৪টির অধিক আদিবাসী জনগোষ্ঠীর অধিকাংশ এখনো সরকারী গেজেটে থেকে বাদ পড়ে রয়েছে। বক্তারা মালো, কুড়মী, বেদিয়া, তুরী, গঞ্জু, রাউতিয়া, লহার, রাজোয়ার, তেলি, গড়াইত, মুসহর, বাগদী, বানাই, কড়া, বড়াইক, ভূমিজ/ভূইমালি, মাহালী, শবর, হুদি, হো, গুর্খা, পাত্র, ভিল, কন্দ ও রবিদাস সহ সকল বাদপড়া আদিবাসীদের অবিলম্বে গেজেটে অন্তর্ভূক্তির জোর দাবি জানান। এছাড়াও বক্তারা বলেন, সারাদেশে আদিবাসীদের উপর নির্যাতন, নিপীড়ন, হত্যা, নারী ধর্ষণ, ভূমি থেকে উচ্ছেদের ঘটনা বেড়েই চলেছে। আদিবাসীদের উপর সংঘটিত কোন ঘটনারই সুষ্ঠু বিচার হয়নি। সাম্প্রতিক সময়ে রাঙ্গামাটি জেলার বিলাইছড়িতে সেনা সদস্য কর্তৃক দুই মারমা তরুণী যৌন নির্যাতনের শিকার হলেও রাষ্ট্র কোন পদক্ষেপ নিতে পারেনি। গত ০৬ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সাহেবগঞ্জ-বাগদাফার্মের বাপ-দাদার জমি ফেরতের দাবিতে আন্দোলনরত আদিবাসী-বাঙ্গালিদের উপর চিনিকল কর্তৃপক্ষ ও পুলিশের হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনার সমাধানে সরকার কোন কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহণ করেনি। বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ সরকার যতদিন এদশের আদিবাসীদের স্বীকৃতি দিতে পারবে না ততদিন আদিবাসীদের উপর নির্যাতন বন্ধ হবে না। বর্তমান ক্ষমতাশীন মহাজোট সরকার আদিবাসীদের বারবার প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবায়ন করতে ব্যর্থ হয়েছে। বর্তমান সরকারের প্রধান দল আওয়ামী লীগ তাদের ২০০৮ ও ২০১৪ সালের নির্বাচনী ইশতিহারে সমতলের আদিবাসীদের জন্য পৃথক এবং স্বাধীন ভূমি কমিশন গঠন করার প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের কোন উদ্যোগ আজও নিতে পারে নি। বক্তারা অবিলম্বে বাদপড়া আদিবাসীদের গেজেটে অন্তর্ভূক্তকরণ ও আদিবাসীদের উপর সকল প্রকার নির্যাতন বন্ধ, সমতল আদিবাসীদের জন্য পৃথক মন্ত্রণালয় গঠন এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়নের দাবি জানান।

তরুন মুন্ডা
সাধারণ সম্পাদক
আদিবাসী ছাত্র পরিষদ
কেন্দ্রীয় কমিটি।

Rudra Amin Books
আপনার মতামত লিখুন :