রুয়েটে ‘সত্য-মিথ্যা যাচাই আগে, ইন্টানেটে শেয়ার পরে’ শীর্ষক কর্মশালা | Nobobarta

আজ সোমবার, ০১ Jun ২০২০, ০৩:১৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
রুয়েটে ‘সত্য-মিথ্যা যাচাই আগে, ইন্টানেটে শেয়ার পরে’ শীর্ষক কর্মশালা

রুয়েটে ‘সত্য-মিথ্যা যাচাই আগে, ইন্টানেটে শেয়ার পরে’ শীর্ষক কর্মশালা

Rudra Amin Books

শাহাবুদ্দীন আহমেদ, রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) ‘সত্য-মিথ্যা যাচাই আগে, ইন্টারনেটে শেয়ার পরে’ শীর্ষক কর্মশলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তনে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। তিনি বলেন, দেশের শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবনী ভাবনার মাধ্যমে উদ্যোক্তা হতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড এন্টারপ্রেনারশিপ একাডেমি (আইডিয়া)’ স্থাপন করেছেন। ‘র্স্টাট আপ বাংলাদেশ’ নামে একটি আয়োজন উদ্বোধন করেছেন। আমরা এই একাডেমির মাধ্যমে এন্টারপ্রেনাশিপ সাপন্টাইন চেইন তৈরি করতে দেশের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট স্টার্ট আপ বাংলাদেশ প্রোগ্রাম শুরু করছি। নতুন উদ্ভাবকদের আর্থিক সহযোগিতার উদ্দেশে ‘স্টার্ট আপ বাংলাদেশ’ প্রোগ্রামকে ১০০ কোটি টাকা প্রদান করা হয়েছে। আমাদের নবীন উদ্যোক্তা শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত অফেরৎযোগ্য ঋণ প্রদান করা হবে। এছাড়াও তাদের পণ্যগুলোকে বাজারজাতকরণে ভবিষ্যতে এক থেকে ৫ কোটি টাকা পর্যন্ত সাহায্য প্রদান করা হবে।

তিনি আরও বলেন, সারাবিশ্বে প্রযুক্তি খাতের গুরুত্ব দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ক্রমবর্ধমান এই প্রযুক্তি খাতকে কাজে লাগিয়ে আমরা এমন কিছু পণ্য দেশ ও বিশ্ববাসীকে উপহার দিতে চাই যার মাধ্যমে বাংলাদেশকে পুরো বিশ্ব একটি প্রযুক্তি নির্ভর মেধাবী জাতি হিসেবে চিনতে পারে। ক্রমবর্ধমান এই গুরুত্ব বিবেচনা করে রুয়েটে আইওটি ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে। এ ল্যাবের মাধ্যমে আমরা যেন উদ্ভাবিত পণ্যের মাধ্যমে বিশ্বকে জয় করতে পারি।

কর্মশালায় ‘ইন্টার অব থিংস (আইওটি)’ ল্যাব ও ‘মোবাইল গেইমস এন্ড এ্যাপস ডেভেলপমেন্ট সেন্টার’ ল্যাবের উদ্বোধন করা হয়। সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অর্থায়নে প্রায় ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে এ ল্যাব দু’টি নির্মিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. রফিকুল ইসলাম সেখের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য অধ্যাপক মো. সাজ্জাদ হোসেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন রাজশাহীর ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক’ পার্ক প্রকল্প পরিচালক একএএম ফজলুল হক।


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.






Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Developed By Nobobarta