জাককানইবি'র বাসচালকের দূর্ব্যবহার ক্ষুব্দ শিক্ষার্থীরা | Nobobarta

আজ বৃহস্পতিবার, ০৪ Jun ২০২০, ০৭:৩৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
এস,এম, জাকির হোসেন সবুজের বাবা মৃত্যুতে ইব্ররাহিম খলিল বাদলের শোক প্রকাশ সুরক্ষা সামগ্রী ও খাদ্য সহায়তা করে আটোয়ারীতে এক ব্যবসায়ী প্রশংসীত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিব আব্দুল মান্নান করোনার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করতে হবে : সেতুমন্ত্রী বগুড়ায় নতুন আরও ২৬ জন করোনায় আক্রান্ত প্রশিকা মানবিক উন্নয়ন কেন্দ্র উপ-পরিচালক এর মৃত্যুতে প্রধান নির্বাহী সিরাজুল ইসলামের শোক প্রকাশ দেশে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ২৪২৩, মৃত্যু ৩৫ ঘিওরের ইউএনও আইরিন আক্তারের করোনা জয়ের গল্প “আমি নিত্য পাগল ক্ষিপ্ত”–দিলপিয়ারা খানম আটপাড়ায় গণপরিবহনে সচেতনতা নিশ্চিতে আনসার ভিডিপি’র তৎপরতা
জাককানইবি’র বাসচালকের দূর্ব্যবহার ক্ষুব্দ শিক্ষার্থীরা

জাককানইবি’র বাসচালকের দূর্ব্যবহার ক্ষুব্দ শিক্ষার্থীরা

Rudra Amin Books

মনিরা নুসরাত ফারহা, জাককানইবি : জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাককানইবি) এক বাসচালকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের সাথে দূর্ব্যবহার-সহ নানা অভিযোগ উঠেছে। ঐ বাসচালকের নাম কায়ছার আজাদ রুবেল। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব বাস চালান।

বাংলা বিভাগের এক শিক্ষার্থী জানান, গত রবিবার জিলা স্কুলের মোড়ের সামনে ৪ জন ছাত্র বাস থামানোর সিগন্যাল দিলেও চালক কয়ছার আজাদ রুবেল না থামিয়ে চালাতে থাকেন। তখন একজন ছাত্র লাফ দিয়ে চলন্ত বাসে উঠার চেষ্টা করে এবং এক পর্যায়ে উঠতে সক্ষম হয়। ড্রাইভার তখনো বাস থামায়নি। প্রায়ই বাস ড্রাইভার এরকম আচরণ করে থাকে।তিনি আরও জানান, উক্ত ড্রাইভারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে লিখিত অভিযোগ দিতে চান।

ভোগান্তির শিকার বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, ময়মনসিংহ শহর থেকে ক্যাম্পাসের উদ্দেশ্যে যাওয়ার
সময় জিলা স্কুল, নতুন বাজার, ধোপাখলা, পূরবী সিনেমা হলের সামনে, চরপাড়া, বাইপাস-সহ বিভিন্ন স্থানে শিক্ষার্থীরা দাঁড়িয়ে থেকে সংকেত দিলেও বাস খালি থাকা সত্ত্বেও অনেক সময় কায়ছার আজাদ রুবেল বাস থামাননা। এমনকি মেয়েদের উঠানামা করতে হলেও বাসচালক রুবেলের বিরক্তির শিকার হতে হয়।

লোক প্রশাসন বিভাগের এক শিক্ষার্থী জানান,আজ ক্যাম্পাস থেকে ৩ঃ৩০ এর বাসে ময়মনসিংহের উদ্দেশ্যে রুবেল মামার বাসে উঠি, ময়মনসিংহে অবস্থিত ত্রিশাল বাস-স্টেশন আসার পরে উনি বলেন বাসের সমস্যা হয়েছে টাউনহল পর্যন্ত যাবেনা, তখন একাদিক শিক্ষার্থী জিজ্ঞেস করেন বাসের কি সমস্যা হয়েছে, চালক রুবেল তখন কথার উত্তর না দিয়ে আবার ক্যাম্পাসের উদ্দেশ্যে চলে যান। তিনি আরও বলেন, এই ঘটনা শুধু আজকে না উনি প্রায়ই টাউনহল পর্যন্ত বাস নিয়ে যান না, শিক্ষার্থীদের গুনতে হয় রিকশা ভাড়া।

অর্থনীতি বিভাগের এক শিক্ষার্থী জানান, আমি একদিন ময়মনসিংহ কমার্স কলেজের সামনে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসের জন্য অপেক্ষা করি। রুবেল মামার বাসটি পৌঁছালে সেই বাসে উঠার চেষ্টা করি, তখন ড্রাইভার বাসের গতিপথ পরিবর্তন করে সেখানে না দাঁড়িয়ে আমাকে পরের বাসে আসতে বলে, অথচ বাসে অনেক সিট ফাকা ছিলো।

২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের আমিনুল ইসলাম বলেন, গাড়ি ফাঁকা থাকা সত্বেও এই ড্রাইভার বাস থামানোর প্রয়োজন মনে করেনা এবং তার আচরণ অনেক খারাপ। এ ধরণের ঘটনা শুধু আজকে নয় নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন প্রশাসক ড. মুহাম্মাদ ইমদাদুর রাশেদ (সুখন) বলেন, এটি খুবই দু:খজনক ঘটনা। এছাড়া যেহেতু খারাপ আচরণের বিষয়টি বারবার চলে আসছে তার সাথে কথা বলে বিষয়টি সমাধান করা হবে।


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.






Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Developed By Nobobarta