জনশূন্য বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, থেমে নেই সচেতনার বীজ বপন : করোনা | Nobobarta

আজ বৃহস্পতিবার, ০৪ Jun ২০২০, ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
২০০০ শয্যার বসুন্ধারা করোনা হাসপাতালে সেবা প্রদান শুরু করোনা পরিস্থিতির অবনতি হলে ফের সাধারণ ছুটি আলোকদিয়ায় ৫শত অসহায় পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী দিলেন এমপি দুর্জয় দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন : একইসঙ্গে আম্পান-করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশ নওগাঁয় করোনা পরিক্ষার যন্ত্র স্থাপনের দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান কমলগঞ্জে খাসিয়া সম্প্রদায়ের মধ্যে ফলজ ও সবজি বীজ বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক মুরাদনগরে ১১’শ ৪৮টি মসজিদে প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের নগদ অর্থ বিতরণ আটপাড়া উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক বাজার মনিটরিং অব্যাহত নড়াইলে ভূমিহীনদের উচ্ছেদের প্রতিবাদে মানববন্ধন লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে হত্যার ‘মূল ঘাতক’ নিহত
জনশূন্য বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, থেমে নেই সচেতনার বীজ বপন : করোনা

জনশূন্য বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, থেমে নেই সচেতনার বীজ বপন : করোনা

Rudra Amin Books

মনিরা নুসরাত ফারহা : সম্পূর্ণ দেশ যখন সঙ্কটময় মুহূর্তে তখন দেশের মানুষকে এই ভয়াবহ করোনার হাত থেকে রক্ষা করতে থেমে নেই দেশপ্রেমীরা। বাংলাদেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যখন করোনা আতঙ্কে বন্ধ ঠিক সেই সময়ে সকল প্রতিবন্ধকতার উর্ধ্বে গিয়ে কিছু তরুণ তরুণী সচেতনতা ছড়াচ্ছেন। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস যখন করোনার আতঙ্কে জনশূন্য, তখন গুটিকয়েক তরুণ তরুণী বিভিন্ন পরিবহন চালক যেমন ভ্যান, রিক্সাচালক, সিএনজি চালকের মাঝে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরন করে চলেছে।

শুধু নিজেদের সচেতন থাকলেই হবেনা, চারপাশের মানুষ গুলোর মাঝেও সচেতনতার বীজ বপন করতে হবে জানাতে হবে করোনা প্রতিরোধে করণীয় কি? এই লক্ষ্যে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংখ্যা বিজ্ঞান বিভাগের সকল শিক্ষার্থীর সম্মিলিত প্রয়াসে আজ বিকাল ৩ঃ৩০ মিনিটে বিনামূল্যে বিভিন্ন পরিবহন চালকদের মাঝে মাস্ক বিতরন করা হয় এবং পরিবহনে থাকা যাত্রীদের কেও করোনা প্রতিরোধে করণীয় সম্পর্কে জানিয়ে দেয়া হয়।

মাস্ক বিতরন ও সচেতনতা তৈরি সম্পর্কে জনসংখ্যা বিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রেজুয়ান রহমান রমি বলেন,” বিশেষ করে পরিবহন চালকদের সারাদিনে জনসমাগমে কাটাতে হয়। তারা ইচ্ছা করলেও ভীড় এড়িয়ে জনসমাগমের বাইরে অবস্থান করতে পারেন না। তারা আক্রান্ত হলে সচেতনতার অভাবে তাদের পরিবারও এই করোনার হাত থেকে রেহাই পাবেনা। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার লক্ষন দেখা দিলে বিত্তবান লোকেরা সহজেই একটা হসপিটালে ভর্তি হতে পারবে কিন্তু ভ্যান বা রিক্সাচালকের পক্ষে সেটা অত্যন্ত কষ্টকর। তাই এদের যতটা সম্ভব করোনা প্রতিরোধে করণীয় সম্পর্কে জানাতে হবে এজন্যই মূলত পরিবহন চালকদের মাঝে মাস্ক বিতরন করা এবং করোনা সম্পর্কে তাদের জানানো।”

দেশ আমার, দেশের এই সঙ্কটময় মুহূর্তে দেশের মানুষের পাশে দাড়ানোর দায়িত্বও আমার। তাই আসুন নিজে সচেতন হই, আশেপাশের মানুষ গুলোকে সচেতন করি।


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.






Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Developed By Nobobarta