শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের নবীনবরণ – Nobobarta

আজ বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ১০:২৫ অপরাহ্ন

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের নবীনবরণ

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের নবীনবরণ

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের অনার্স ১ম বর্ষ ১ম সেমিস্টারের নবীনবরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার ‘এ’ ইউনিট ও বৃহস্পতিবার ‘বি’ ইউনিটের নবীনবরণের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুইদিনব্যাপী নবীনবরণ সমাপ্ত হয়েছে।

বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘এ’ ইউনিটের নবীনবরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন এমপি। এই বছরই প্রথম বারের মতো দুইদিনব্যাপী নবীনবরণের আয়োজন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি। প্রভাষক জোবায়দা গুলশান আরা ও তানভীর হোসেনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনান্ত্রী এম এ মান্নান এমপি বলেন, ‘আমরা আরো বিশ্ববিদ্যালয়, প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল প্রতিষ্ঠা করবো। আরও জ্ঞান বিজ্ঞানের প্রাঙ্গণ তৈরি করছি। সকল জেলাকে চার লেনের আওতায় নিয়ে আসার পরিকল্পনা রয়েছে বলে তিনি জানান।

এছাড়াও তিনি নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমাদের জন্য সুযোগ সুবিধা সৃষ্টি করা এই রাষ্ট্রে আমরা যারা আছি আমাদের প্রধান দায়িত্ব। আমরা তোমাদের জন্য আর্থিক সংস্থান সৃষ্টি করবো, প্রতিষ্ঠান তৈরি করবো। কিন্তু জ্ঞান-বিজ্ঞানের কাজটা, মননের কাজটি তোমাদের করতে হবে। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস, ডিন অধ্যাপক ড. আহমেদ কবির, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বেলাল উদ্দিন, অধ্যাপক ড. আবুল মুকিত মোহাম্মদ মোকাদ্দেস, অধ্যাপক ডা. মইনুল হক, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক অধ্যাপক ড. রাশেদ তালুকদার, প্রক্টর ও ভর্তি কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক জহির উদ্দিন আহমেদ, রেজিস্ট্রার ইশফাকুল হোসেন সহ অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন ভর্তি কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. শামসুল হক প্রধান। এছাড়া শাবিপ্রবির যৌন হয়রানি অভিযোগ কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. নাজিয়া চৌধুরী বক্তব্য রাখেন। সভাপতির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা ছিল নিখুঁত। তোমরা এখানে ভর্তি হয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছো। শিক্ষা ও গবেষণায় অনেক ক্ষেত্রে এই বিশ্ববিদ্যালয় এগিয়ে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তাদের জন্য ‘স্বাস্থ্য বীমা’ চালু করা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে শিক্ষার্থীদের জন্য ‘জো বাইক’ চালু করা হবে। সীমানা প্রাচীর নির্মাণ এখন দৃশ্যমান। এসময় তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডায়রির অনলাইন অ্যাপস ‘সাস্ট ডায়রি’র উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

সম্প্রতি তাইফুর রহমান প্রতীক নামে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার বিষয়ে তিনি বলেন, কোন শিক্ষার্থী মানসিক সমস্যা হলে আমাদের দায়-দায়িত্ব আছে আমরা দেখবো তবে সব চেয়ে বেশি উদ্যোগ নিতে হবে পরিবারের পক্ষ থেকে। পরিবার থেকে কোন উদ্যোগ নেয়নি। বিষয়টি তদন্ত করার জন্য কমিটি গঠণ করা হয়েছে। তদন্ত শেষে ফলাফল জানা যাবে।


Leave a Reply