আজ রবিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৯, ০৯:৪৯ পূর্বাহ্ন

কমলনগরে যুবলীগ নেতার বাড়িতে আগুন, লুটপাটের অভিযোগ

কমলনগরে যুবলীগ নেতার বাড়িতে আগুন, লুটপাটের অভিযোগ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:
লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে যুবলীগ নেতা ইব্রাহিম খলিলের বাড়িতে অগ্নি-সংযোগ করার অভিযোগ উঠেছে। রোববার রাতে উপজেলার তোরাবগঞ্জ ইউনিয়নের চৌরাস্তা নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ঘরে থাকা নগদ ১ লাখ টাকাসহ মালামাল লুট করে নিয়ে যায় । খবর পেয়ে স্থানীয়রা এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। যুবলীগ নেতা ইব্রাহিম খলিল তোরাবগঞ্জ এলাকার মৃত চৌধুরী মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

যুবলীগ নেতা স্ত্রী ও স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, রোববার রাতে ইব্রাহিমের পাকা ঘরের পাশে একটি ঘরে আগুন ও ধোঁয়া দেখতে পাই। এসময় স্থানীয় সেলিমকে পালিয়ে যেতে দেখতে পায় ইব্রাহিমের স্ত্রী। এ সময় ঘরে থাকা নগদ ১ লাখ টাকা ও মালামাল লুট করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন যুবলীগ নেতা খলিল ও তার স্ত্রী। পরে স্থানীয়রা টের পেয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করলেও ততক্ষণে ঘরটি পুড়ে যায়। এ দিকে আগুন নেভানো সম্ভব না হলে ছেলে সন্তান ও স্ত্রীসহ স্বপরিবারে সবাই অগ্নিকান্ডে মারা যেতো। এর আগে বিকেলে একই এলাকার সিরাজ, লিটন, রনি ও আবুল কালাম বিভিন্নভাবে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছিল। তারাই স্বপরিবারে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে এ কাজ করেছে। এ বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

যুবলীগ নেতা ইব্রাহিম খলিল জানান, তোরাবগঞ্জ এলাকার খালেক একই এলাকার সিরাজের কাছে ইটভাটার কাজের ৩০ হাজার টাকা পাবে। টাকা চাইতে গেলে সিরাজ খালেককে মারধর করে। খলিল এতে বাঁধা দেয় এবং মিমাংসার চেষ্টা করে। এতে সিরাজ ক্ষিপ্ত হয়ে ইব্রাহিম খলিলের উপর তার লোকজন নিয়ে হামলা চালিয়ে তাকে দেখে নেওয়ার হুমকী দেয়। এরপর ইব্রাহিম খলিলের ঘরে সিরাজ এবং তার লোকজন আগুন দিয়েছে এবং ঘরে থাকা নগদ ১লাখ টাকা ও মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান যুবলীগ নেতা।

অপরদিকে অগ্নিসংযোগের কথা অস্বীকার করে অভিযুক্তরা বলেন, কেবা কারা এ ঘটনা ঘটিয়ে তাদের ওপর দোষ চাপাচ্ছে। এ অগ্নিসংযোগের সাথে তাদের কোন সর্ম্পক নেই। তাদের ফাসাঁতে এ ধরনের নাটক সাজিয়েছে খলিল।

তোরাবগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফয়সাল আহম্মেদ রতন জানান, ঘরে আগুন দেওয়ার বিষয়টি তিনি শুনেছেন। এ জন্য দু’পক্ষকে মঙ্গলবার ইউপি কার্যালয়ে ডাকা হয়েছে। বিষয়টি জেনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল হোসেন বলেন, এ বিষয়ে থানায় কেউ কোন অভিযোগ দেইনি। তবে অভিযোগ করলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন


Leave a Reply

Nobobarta.com
Design & Developed BY Nobobarta.com