রোহিঙ্গা ফেরত পাঠানোয় কূটনৈতিক ব্যর্থতা নেই: কাদের - Nobobarta

আজ শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৬:৩২ অপরাহ্ন

রোহিঙ্গা ফেরত পাঠানোয় কূটনৈতিক ব্যর্থতা নেই: কাদের

রোহিঙ্গা ফেরত পাঠানোয় কূটনৈতিক ব্যর্থতা নেই: কাদের

রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরানো বিষয়ে কূটনৈতিক ব্যর্থতার কিছু নেই বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরানোর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন বিষয়। এতে কুটনৈতিক ব্যর্থতার কিছু নেই। মিয়ানমারের আন্তরিকতা, সদিচ্ছা কতোটুকু তার উপর তাদের দেশে ফেরার বিষয়টি নির্ভর করছে।’

শুক্রবার (২৩ অগাস্ট) সন্ধ্যায় বাংলাদেশ কৃষি অর্থনীতিবিদ সমিতি আয়োজিত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের এক আলোচনা সভায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘পৃথীবির ইতিহাসে এমন কোন ঘটনা নেই যে সীমান্ত খুলে দিয়ে ১১লাখ রিফিউজিকে আশ্রয় দিয়েছে। বাংলাদেশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আর্ন্তজাতিকভাবে মিয়ানমারের ওপর চাপ বাড়ছে। রোহিঙ্গাদের দেশে ফেরানোর বিষয়টি একটি চলমান প্রক্রিয়া।’

১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার কথা স্মরণ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বিশ্ব ইতিহাসের অনেক নৃশংস হত্যাকান্ডের কথা জানি। সব হত্যাকান্ডগুলোর বিচার করলে বঙ্গবন্ধুর মতো নৃশংস হত্যাকান্ড আর হয় না।’ তিনি বলেন, ‘১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর সেই ঘটনার বিচার হলে পরবর্তীতে একটি গোষ্ঠী মেজর জিয়াকে হত্যা করতে পারতো না। ইতিহাস নির্মম। সেদিন বিশ্বাস ঘাতকতা করেছে সেনা প্রধান মেজর জিয়া। এদেশে রাজনীতির ক্ষেত্রে যে অবিচ্ছিন্ন দেয়াল তারা তৈরি করেছে। তা ভুলবার নয়। তিনি বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিদেশে যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। তাদের বিদেশের দূতাবাসে চাকরি দিয়ে পুনর্বাসন করেছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘২১ আগস্ট ১৫ আগস্টের ধারাবাহিকতা, একই সূত্রে গাঁথা। ২১ আগস্ট টার্গেট ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেদিন বড় ধরণের কোন অঘটন ছাড়াই তিনি বেছে গেছেন। হাওয়া ভবন থেকে সেদিন হামলার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল বলে মুফতি হান্নান আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। আপনারা কিভাবে বলতে পারেন ২১ আগস্টে আওয়ামী লীগ জড়িত। তাহলে আপনারা কেন হত্যার আলামত নষ্ট করলেন। ঘটনার পরে কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে কেন হত্যাকারীদের নিরাপদে বের হয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দিলেন। নোয়াখালি থেকে একটি বেকার ছেলেকে এনে জজ মিয়া নাটক সাজালেন। ইতিহাস সাক্ষী। সত্যকে অস্বীকার করার কোনও সুযোগ নেই।’

কাদের বলেন, ‘যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতা চায়নি, যারা স্বাধীনতার বিরোধিতা করেছেন, যারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যার সঙ্গে জড়িত, তারাই ২১ আগস্ট হামলা সংঘটিত করেছে। সেদিন অলৌকিকভাবে বেঁচে গেছেন শেখ হাসিনা।’ তিনি বিএনপির উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘যদি আপনারা জড়িত না থাকেন তাহলে এফবিআই, স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডকে কেন তদন্তে আসতে দিলেন না। আজ বিএনপি নামের দলটির পরিণতি ক্রমে সংকুচিত হচ্ছে। তারা আন্দোলনে ব্যর্থ হয়েছে। বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে ব্যর্থ হয়েছে। সবকিছুতে ব্যর্থার বোঝাই বেড়েছে বিএনপির।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘তারেক জিয়া আজ লন্ডনে বসে দল পরিচালনা করছেন। বড় বড় কথা বলছেন। তিনি পল্টনের একটি সমাবেশে বলেছিলেন ছাত্রদল আর ছাত্রশিবির এক মায়ের দু ‘টি সন্তান। তাতে বোঝা যায় বিএনপি দেশ বিরোধী, স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি। ২০১৫ সালের নির্বাচন বানচালে ব্যর্থ হয়ে তারা মানুষ হত্যায় মেতে উঠে। বাসে আগুন দিয়ে অগণিত মানুষ হত্যা করেছে তারা। তিন মাসের যখন অবরোধ কর্মসূচি দিয়েছিল তারা তখন বলেছিল তাদের বিভিন্নজনের সর্মর্থন রয়েছে। কিন্তু পরে তা ভুল প্রমাণিত হয়েছে।’

কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘আজকে প্রধানমন্ত্রীর যে ২১টি অঙ্গিকার রয়েছে তার মধ্যে তিনটি কৃষি নিয়ে বলেছেন। আগামীতে আধুনিক কৃষিতে বাংলাদেশ বিপ্লব ঘটাবে।’ বাংলাদেশ কৃষি অর্থনীতিবিদ সমিতির সভাপতি সাজ্জাদুল হাসানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম প্রমুখ।


Leave a Reply



Nobobarta © 2020। about Contact PolicyAdvertisingOur Family DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com