রাজাপুরে গৃহবধুর মৃত্যুদেহ উদ্ধার, স্বজনদের দাবী হত্যা – Nobobarta

আজ শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৩:৪০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
উদয় সমাজ কল্যান সংস্থার ১২ তম ওয়াজ মাহফিল সম্পন্ন ১০ ডিসেম্বর উপাচার্যের দুর্নীতির ক্ষতিয়ান প্রকাশ করবে আন্দোলনকারীরা মার্শাল আর্ট ‘বিচ্ছু’ নিয়ে আসছেন সাঞ্জু জন আজ উদয় সমাজ কল্যান সংস্থা সিলেটের ১২তম ওয়াজ মাহফিল দলীয় কার্যালয় সম্প্রসারণের লক্ষে আগৈলঝাড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির প্লট উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের কাছে হস্তান্তর যবিপ্রবিতে ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার বাংলাদেশের নতুন কমিটি গঠন আটোয়ারীতে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ উপলক্ষে এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত জবি রোভার দলের হেঁটে ১৫০ কিলোমিটার পরিভ্রমণের উদ্বোধন মারুফ-তানহার ‘দখল’ লক্ষ্মীপুরে রামগতি পৌরসভায় ৮ কোটি টাকার টেন্ডার জালিয়াতি চেষ্টার অভিযোগ
রাজাপুরে গৃহবধুর মৃত্যুদেহ উদ্ধার, স্বজনদের দাবী হত্যা

রাজাপুরে গৃহবধুর মৃত্যুদেহ উদ্ধার, স্বজনদের দাবী হত্যা

রাজাপুর সংবাদদাতাঃ ঝালকাঠির রাজাপুরে রিমা আক্তার (২১) নামে এক গৃহবধুর মৃত্যুদেহ শশুরবাড়ি থেকে উদ্ধার করেছে রাজাপুর থানা পুলিশ। শুক্রবার সকালে উপজেলার সাতুরিয়া গ্রাম থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। গৃহবধুর দেবর বরকত হোসেন সকাল থেকে পালাতক রয়েছে। এ ঘটনায় রাজাপুর থানায় অপমৃত্যুর একটি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। রিমা আক্তার সাতুরিয়া গ্রামের মৃত শাহজাহান হাওলাদারের মালশিয়া প্রবাসী হাবিব হাওলাদারের বড ছেলের স্ত্রী। রিমার ঝা লিনা সহ শশুরবাড়ির লোকজন জানায়, তাদের পরিবারে তার ছোট শিশু সন্তান সহ বৃদ্ধ শাশুড়ী, স্বামী বরকত, ঝা রিমা একসাথে একই ঘরে বসবাস করে আসছেন। ঘটনার দিন রাতে সবাই একসাথে রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পরে। শুক্রবার সকালে ঘুম থেকে উঠে তার ঝা রিমা তার খাট থেকে ১ফুট দুড়তে ঘরের বেড়া উপরে ঘরের আড়ার সাথে নিজের গায়ের ওরনা দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে জুলন্ত অবস্থায় দেখে ডাকচিৎকার দিলে স্থানীয়দের সহায়তায় ফাঁস থেকে খুলে নিচে শুয়ে রাখেন।
রিমার বড় ভাই ছোলায়মান ইসলাম পারভেজ সহ স্বজনদের দাবী, রিমা আত্মহত্যা করেনি তাকে তহ্যা করা হয়েছে। কারন খাটের পাশে ১ফুট দুরত্বে ঘরের বেড়ার সাথে কাপড় রাখার স্থানে আত্মহত্যার কোন সুযোগ নেই বাচার জন্য তার চারপাশে হাত দিয়ে ধরার অনেক কিছু ছিল । স্থানীয়রা জানায়, রিমার স্বামী হাবিবের বোন জামাই রোলা গ্রামের মৃত আঃ রশিদ হাওলাদারের ছেলে ইউসুব হঠাৎ ঘটনার স্থলে এসে রিমার হাতের লেখা একটি চিরকুট দাবী করে তার ফটোকপি উপস্থিত সবার মাঝে বিতরণ করে আবার কিছু সময় পরে হঠাৎ কাউকে কিছু না বলে স্থান ত্যাগ করে। চিরকুটে বার বার লেখা ছিল তার মৃতদেহের যেন ময়না তদন্ত না হয়। এ ব্যাপারে রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাহিদ হোসেন জানান, রিমা আক্তারের মৃত্যু সঠিক কারন জানতে লাশ ময়না তদন্তের জন্য ঝালকাঠি মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।


Leave a Reply