বুসানে প্রশংসিত ফারুকীর ‘শনিবার বিকেল’ - Nobobarta

আজ মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:১১ অপরাহ্ন

বুসানে প্রশংসিত ফারুকীর ‘শনিবার বিকেল’

বুসানে প্রশংসিত ফারুকীর ‘শনিবার বিকেল’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  

নন্দিত চলচ্চিত্র নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ‘শনিবার বিকেল’ নানা জটিলতায় বাংলাদেশে এখনো মুক্তি পায়নি। তবে দেশ-বিদেশের নানা উৎসবে সিনেমাটি অংশ নিচ্ছে। এদিকে সোমবার কোরিয়ার স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় ‘বুসান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০১৯’-এ প্রদর্শিত হয় ‘শনিবার বিকেল’-এর প্রথম প্রদর্শনী।

এই প্রদর্শনীতে উপস্থিত ছিলেন ফারুকীও। ফারুকী জানান, বিমান বন্দরে নেমেই সোজা বুসান সিনেমা সেন্টারে গিয়েছেন তিনি। সেখানে প্রবেশ করেই অভিভূত হন ফারুকী। তিনি বলেন, ‘বিমান থেকে নেমেই স্ক্রিনিংয়ের আগে আগে গিয়ে ‘বুসান সিনেমা সেন্টার’-এ গিয়ে পৌঁছালাম। সেখানেই আমার ছবির প্রদর্শনী হয়েছে। আর গিয়েই রীতিমত মুগ্ধ। ভেবেছিলাম এমনিতেই সোমবার, তারউপর আবার সকালে স্ক্রিনিং! এই ছবি ক’জন দেখতে আসবে! কিন্তু যে পরিমাণ দর্শক ছবিটি দেখেছে, আমরা রীতিমতো অভিভূত! সবাই ছবিটির প্রশংসা করেছেন।’

সিনেমা প্রদর্শনীর পর দর্শকের সাথে প্রশ্নোত্তর পর্বেও অংশ নেন ফারুকী। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন ‘শনিবার বিকেল’-এর সহ-প্রযোজক আনা। ফারুকী বলেন, ‘আমি সব সময় দর্শকের সাথে প্রশ্নোত্তর পর্বের এই সেশনটা উপভোগ করি। বুসানেও দারুণ অভিজ্ঞতা হলো। ‘শনিবার বিকেল’ নিয়ে বহু দর্শকের দারুণ সব প্রশ্নের উত্তর দিয়েছি।’ এদিন দুপুরে ‘শনিবার বিকেল’-এর সহ-প্রযোজক আনা অংশ নেন ‘কো প্রোডাকশন’-এর উপরে একটি সেশনে। সেখানে তিনি কথা বলেন ‘শনিবার বিকেল’ নিয়ে। এরপর ফারুকী অংশ নেন প্রেস ইন্টারভিউতে।

৩ অক্টোবর থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় শুরু হয়েছে বুসান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ২৪তম আসর। এই উৎসবে ‘উইন্ডো অব এশিয়ান সিনেমা’ বিভাগে নির্বাচিত হয়েছে ‘শনিবার বিকেল’। যার প্রথম প্রদর্শনী ছিল সোমবার। এ ছাড়া মঙ্গলবার কোরিয়ার স্থানীয় সময় দুপুর ২টায় এবং বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় দেখানো হবে বাংলাদেশের এই ছবিটি। ২০১৬ সালে গুলশানে ঘটে যাওয়া হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলা নিয়েই এ ছবির প্লট। ‘শনিবারের বিকেল’ ছবিতে অভিনয় করেছেন জাহিদ হাসান, পরমব্রত, তিশা এবং ফিলিস্তিনি অভিনেতা ইয়াদ হুরানি।

উল্লেখ্য এর আগে ‘শনিবার বিকেল’ রাশিয়ার মস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব, অস্ট্রেলিয়ার সিডনি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল, বাগরি ফাউন্ডেশন লিফ (LIFF) ফেস্টিভ্যালের অধীনে লন্ডন, বার্মিংহাম ও ম্যানচেস্টারে এবং জার্মানের মিউনিখ আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে প্রতিযোগিতা বিভাগ সিনেকোপ্রো কমপিটিশনে দেখানো হয়েছে।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন


Leave a Reply