সৈকত রেজার বাজিমাত | Nobobarta

আজ বৃহস্পতিবার, ০৪ Jun ২০২০, ০৮:২৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
এস,এম, জাকির হোসেন সবুজের বাবা মৃত্যুতে ইব্ররাহিম খলিল বাদলের শোক প্রকাশ সুরক্ষা সামগ্রী ও খাদ্য সহায়তা করে আটোয়ারীতে এক ব্যবসায়ী প্রশংসীত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিব আব্দুল মান্নান করোনার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করতে হবে : সেতুমন্ত্রী বগুড়ায় নতুন আরও ২৬ জন করোনায় আক্রান্ত প্রশিকা মানবিক উন্নয়ন কেন্দ্র উপ-পরিচালক এর মৃত্যুতে প্রধান নির্বাহী সিরাজুল ইসলামের শোক প্রকাশ দেশে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ২৪২৩, মৃত্যু ৩৫ ঘিওরের ইউএনও আইরিন আক্তারের করোনা জয়ের গল্প “আমি নিত্য পাগল ক্ষিপ্ত”–দিলপিয়ারা খানম আটপাড়ায় গণপরিবহনে সচেতনতা নিশ্চিতে আনসার ভিডিপি’র তৎপরতা
সৈকত রেজার বাজিমাত

সৈকত রেজার বাজিমাত

Rudra Amin Books

ছোটপর্দার পরিচিত মুখ তৌসিফ মাহবুব ও তাসনিয়া ফারিন। সম্প্রতি তারা জুটি বেধে অভিনয় করেছেন একটি নাটকে। নাম ‘পপুলার প্রেমিক’। বুলবুল মাসুদের রচনায়, এটি নির্মাণ করেছেন সৈকত রেজা। অনেক দিন পর তিনি নাটক নির্মাণ আসেন।

তিনি জানান, গত ১৬ মার্চ সিএমভির ইউটিউব চ্যানেলে নাটকটি উন্মুক্ত করা হয়। অল্প কয়দিনে এখন পর্যন্ত ৩৫ লক্ষ মানুষ দেখেছে এই নাটকটি। এতে থাকছে দুইটি গান। ‘প্রেমের পোকা’ ‘তোমার নামে’ শিরোনামের এই গান কণ্ঠ দিয়েছেন রিয়েলিটি শো ‘গানের রাজা’র শফিকুল ইসলাম ও মাহটিম, নাটকের বাঁকে তৈরি গানগুলো।

সৈকত রেজা বলেন, ‘এই নাটকে হ্যান্ডসাম এবং হাংকি পাংকি বয় পলক। যদিও গ্রাম থেকে এসেছে কিন্তু দেখে বোঝার কোন উপায় নেই। দুই বান্ধবীর সাথে একত্রে প্রেম তাও তাদের সম্মতিক্রমে এটা পলকের পক্ষেই সম্ভব। এমনকি দুইবোনের সাথেও প্রেম করে যাচ্ছে তবে এক বোন জানে আরেক বোন জানে না। ফ্রি টিউশনন করানোর কথা বলে কুঞ্চুছ বাড়িওয়ালাকে পটিয়ে তার মেয়ের সাথে প্রেমটাও করে নেয়। প্রেম টা তার কাছে চকোলেটের মত চুষে মজা নিয়ে ছুড়ে ফেলে দেওয়া। হঠাৎ নীলা সাথে পরিচয়, অনেক কষ্ট করে লাইন মেরে মেরে নীলাকে পটায়।

নীলা পলকের ছলচাতুরি না বুঝে সে পলককে প্রচন্ড ভালোবেসে ফেলে তবে বিশ্বপ্রেমিক পলকের স্বভাব যে বদলায় নি। সে নীলার বান্ধবীকে প্রপোজ করে বসে। নীলা প্রমান পায় এবং প্রচন্ড কষ্ট পেয়ে নাক-চোখের জল এক করে পলককে বিয়ে নিয়ে বিশ্রী অভিশাপ দেয়। পলক তখন বুঝতে পারে না। পরে বুঝতে পারে যে সেও নীলাকে ভালোবেসেছিল। এরপর তা মা অসুস্থ’র খবর আসে। সে গ্রামে যায় মাকে নিয়ে আসে। এরপর সে আর প্রেম করে নি। কেটে যায় দু’বছর। পলক এখন চাকুরী করে। তার মা ও সে এখন ঢাকায় থাকে। মা তার পছন্দ মত মেয়েকে পলককে বিয়ে করাবে বলে ঠিক ক করে।

মা যখন মেয়ে দেখা শুরু করে তখনি শুরু হয় বিপত্তি; যে সব মেয়ে পলক ও তার মা দেখতে যায় সেসব মেয়েগুলো হয় পলকের এক সময়কার প্রেমিকা বা তার বোন বা তার বান্ধবী কিংবা কোন না কোনভাবে তারা পলককে চিনে ফেলে। প্রত্যেক টা মেয়ে দেখথে গিয়ে পলক বিব্রত হয়। আর পলক তো লজ্জিত হয়ই সাথে তার মাও লজ্জা পায়। তাহলে সবশেষে পলক কি? বিয়ের পাত্রী পেল। তা জানতে হলে, নাটকটি দেখতে হবে বলেন সৈকত রেজা।


Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.






Nobobarta © 2020 । About Contact Privacy-PolicyAdsFamily
Developed By Nobobarta