বান্দরবানের লামায় আগুনে পুড়ে ছাই হলো ৩১টি দোকান - Nobobarta

আজ মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:০৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
আটোয়ারীতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত লক্ষ্মীপুরে ব্যবসায়ীকে হত্যা মামলায় ২ আসামীকে আদালতে হাজির, জামিন না মঞ্জুর হামদর্দ এমডির বিরুদ্ধে যুদ্ধোপরাধের অভিযোগ তোলায় বিস্মিত স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা আটোয়ারীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে এক ব্যক্তি সহ দুটি গরুর মৃত্যু দ্রুত জকসু গঠনতন্ত্র প্রণয়ন ও রাতে ক্যাম্পাসে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার দাবি আবির্ভাব: এক নতুন পৃথিবীর স্বপ্ন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন পরিষদের উদ্যোগে মাদার তেরেসার মৃত্যুবার্ষিকীতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত গণ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নেতাদের অভিষেক সম্পূর্ন বিচার নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠ ইউপি সম্মাননা পুরস্কার পেলেন দন্ডপাল ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী সাইফুদ্দীন আহ্মদ কে কেউ মনে রাখেনি!
বান্দরবানের লামায় আগুনে পুড়ে ছাই হলো ৩১টি দোকান

বান্দরবানের লামায় আগুনে পুড়ে ছাই হলো ৩১টি দোকান

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  

বান্দরবানের লামা উপজেলায় রুপসীপাড়া বাজারে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুন লেগে ৩১ দোকান পুড়ে ছাই। সোমবার দিনগত মধ্যরাতে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। স্থানীদের সঙ্গথ নিয়ে রুপসীপাড়া ক্যাম্পের সেনাবাহিনীর টিম আগুন নিয়ন্ত্রণের আনার চেষ্টা চালায়। পরে লামা ও আলীকদমের ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ২ ঘণ্টা চেষ্টার চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

এ ঘটনায় প্রাথমিকভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কোটি টাকার অধিক বলে জানিয়েছেন, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ছাচিং প্রু মারমা। লামা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার নয়ন জীব চাকমা জানান, বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। রাত ৩টা ৫০ মিনিটে ফোন পেয়ে আমরা সাড়ে ৪টায় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হই। দোকানগুলো টিন ও কাঠের হওয়ায় মুহূর্তের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ৩১টি দোকান পুড়ে ছাই।

অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তরা হলেন- মো. মিলন (মুদি দোকান), রিপন (চা দোকান), মো. জাফর (মুদি দোকান), আবেদ আলী (হার্ডওয়ার, ইলেকট্রনিক্স-২টি, ওয়ার্কশপ), তোয়াজ মিয়া (বসতবাড়ি), মো. কামাল (চা দোকান), নাছির (মুদি দোকান), সুলতান কারবারী (চা দোকান), আকাশ (হারবাল ঔষধ), নূর আলম (মুদি দোকান), আবু বক্কর ছিদ্দিক (মুদি দোকান), মমতাজ (সারের ডিলার), আব্দুস সাত্তার গাজী (ফার্মেসি), মতিউর রহমান (মুদি), মো. শহীদ (মুদি), নজির মিয়া (৪টি মুদির দোকান ও গুদাম), রানা (মুদি), ইউছুপ (কম্পিউটার দোকান), এমাদুল (মুদি-আংশিক ক্ষতি), ছলিম উল্লাহ (হোমিও দোকান), রফিক (কম্পিউটার), আনিচ (মুদি), আবজাল (মুদি), আব্দুল লতিফ (কাঁচামাল) ও মংচিংথুই মার্মা (কম্পিউটার)।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী মতিউর রহমান ও আবেদ আলী বলেন, আমরা সর্বস্বান্ত হয়ে গেছি। কোনো মালামাল বের করতে পারিনি। ব্যাংক ও এনজিও ঋণ নিয়ে ব্যবসা করি। কিভাবে নিজের পরিবার চালাব ও ঋণের টাকা শোধ করব বুঝতে পাছি না। রুপসীপাড়া বাজার কমিটির সভাপতি আব্দুস সাত্তার গাজী বলেন, আমার ফার্মেসি সহ মোট ৩১টি দোকান আগুনে পুড়ে ছাই গেছে। গভীর রাতে আগুন লাগার কারণে কোন মালামাল বের করা সম্ভব হয়নি। ব্যবসায়ীরা সর্বস্বান্ত হয়ে গেছে। আমরা সরকার ও পার্বত্য মন্ত্রীর বীর বাহাদুরের কাছে সহায়তা চাই।

লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ অপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ প্রেরণ করা হয়েছে। মধ্যরাতে আগুন লাগার কারণে ক্ষতির পরিমাণ বেশি হয়েছে। এদিকে রুপসীপাড়া বাজারে আগুনের ঘটনার কথা জানতে পেরে দুঃখ প্রকাশ করেছেন পার্বত্য চট্রগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। তিনি ক্ষতিগ্র¯স্তদের সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন


Leave a Reply