বহুদিন পর কবিতায় মনোনিবেশ ফয়সাল হাবিব সানি'র - Nobobarta

আজ রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:৫০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
খালেদা জিয়ার মুক্তি ছাড়া গণতন্ত্র মুক্তি পাবে না : খন্দকার লুৎফর জাবি উপাচার্যকে ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা করে কালো পতাকা প্রদর্শন আন্দোলনকারীদের মোহামেডানসহ ৪ ক্লাবে জুয়ার বর্ণাঢ্য আয়োজন জবিতে শুরু হচ্ছে আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় বিজনেস কেইস কম্পিটিশন আবৃত্তিকার কামরুল হাসান মঞ্জু’র মৃত্যুতে জাতীয় মানবাধিকার সমিতির শোক দুর্নীতি দমনে প্রধানমন্ত্রীর দিকে তাকিয়ে আছে দেশবাসী : জিএম কাদের বঙ্গবন্ধু প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন অব্যাহত শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করবেন নার্গিস ফাখরি পাকিস্তানে বাস দুর্ঘটনায় নিহত ২৬ আইনজীবীদের সঙ্গে দেখা করতে হাইকোর্টে মিন্নি
বহুদিন পর কবিতায় মনোনিবেশ ফয়সাল হাবিব সানি’র

বহুদিন পর কবিতায় মনোনিবেশ ফয়সাল হাবিব সানি’র

Foysal Habib Sunny

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  

নববার্তা সাহিত্য ডেস্কঃ মানসিক ও ব্যক্তিগত কারণবশত বহুদিন ধরেই লেখালেখির আড়ালে ছিলেন তরুণ কবি ফয়সাল হাবিব সানি। গেল বছর অমর একুশে গ্রন্ত্রথমেলায় একসাথে চারটি কবিতাগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছিলো এ কবি’র।

১৯৯৭ সালে কুষ্টিয়া জেলায় জন্মগ্রহণকারী এ তরুণ কবি মাত্র ২১ বছর বয়সে পাঁচটি কবিতাগ্রন্থ লিখে রীতিমত পাঠকসমাজে নিজেকে প্রমাণ করতে সক্ষম হয়। তবে কবিতা থেকে রীতিমতই দূরে সরে এসেছিলেন প্রতিভাবান এ কবি। শেষমেশ আবারও কবিতায় মনোনিবেশ করেছেন ফয়সাল হাবিব সানি। নববার্তা ডট কমের পাঠকদের জন্য তার রচিত নতুন তিনটি প্রেমের কবিতা তুলে ধরা হলোঃ

১. আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নামুক

আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নামুক
প্রেম লিখব তোমার নামে
ভালোবেসে জানিনা কে কতোটা
বেদনা কিনেছি দামে!

সেই বৃষ্টিতে ভিজুক নরম কানন
আজ কাঁদুক সকল বন
ভালোবেসে জানিনা কে কতোদূরে
কার কতোটা ফেলে এসেছি মন!

কে কতোটা কার হয়েছিলো
দুজনার কেউ জানেনি তা
কার শরীরে কতোটা জ্বর
ভেতর প্রদেশে এক অবাক করা ঘা!

কেউ পারেনি বলতে অামায়-
বুকগঙ্গায় ছলকায় হঠাৎ কীসের এমন ব্যথা!
এই পৃথিবীর তামাম মানুষ কেবল স্বপ্ন দেখায়
আসলে এই পৃথিবীর কেউ-ই রাখে না কথা।

তবু আরেকবার অাকাশ ভেঙে বৃষ্টি নামুক
সেই বৃষ্টি চোখের জল হয়ে যাক কারও
দিনশেষে শুধুই গ্লানি বাড়বে জানি
কাউকে সত্যি সত্যিই মনে পড়বে আরও!

২. তোমার জন্য

তোমার জন্য এই বরষা দুপুর
বৃষ্টি গেছে রোদ কুড়াতে; রোদ বলেছে- শুনছো প্রেমিক! ভিজবে তুমি আর না
তোমার জন্য মেঘের পায়ে এই মেঘলা দুপুর
বুকে করে অঝোর ধারার ভীষণ রকম কান্না!

তোমার জন্য বসে একলা কোথাও
চোখে নিয়ে মিহিন জলের মতো তোমার অপেক্ষারই তেষ্টা
তোমার জন্য নয়নাভিরাম এই মেঘলা আকাশ
বৃষ্টিগুলো কুড়িয়ে সব এক করারই চেষ্টা।

তোমার জন্য দেখো পাপড়ি মেলা ফুলগুলো সব
মিলনে মিলবার অভিপ্রায়ে পাগলের মতো কী যে শখে মত্ত!
তুমি আসবে বলেই তো এতো আয়োজন আমার
আজ তোমার কাছে আমার এই হৃদয় ফুঁড়ে প্রেম নেমেছে সত্য।

জানি, তোমার জন্য ফুল হয়ে ভালোবাসারা ফোটে
আকাশ কেনো জানি তবু মৃত্যুর নামেই বাঁচে!
মাতাল ঢেউ হয়ে তুমি হৃদয়ে ফের বয়ে যাও…
না হয় আরেকবারও পোড়াও তোমার ঊষ্ণ ঠোঁটের আঁচে।

৩. তোমার নাম দিলেম জল

হৃদয়ের নাম দিলেম অথৈ নদী
তোমার নাম দিলেম প্রবাহিণী জল
যে উত্তাল স্রোতের মতো এসে ছেড়ে চলে গেছে জেনেছি
তাকেই কেনো এভাবে মনে পড়ে অবিরল!

তোমার সাথে সময় পেরুনো দুপুরের নাম দিলেম সূর্য
বিকেলের নাম দিলেম কাছে আসা
সন্ধ্যার নাম যদি রেখে দিই সুষমা মধুক্ষণ
প্রস্থানের নামই হোক তবে ভালোবাসা।

বিরহের নাম দিলেম হিম নীল সাগর
বেদনার নাম যদি দিই আসবে
জন্মের নামই যদি রেখে দিই তুমি
তাতে কি অন্তত একবার ভালোবাসবে?

দুঃখের নাম যদি দিই কবি
আমার নাম দিলেম তবে প্রেম
তোমার বুকে যে অনন্ত উদ্যান দেখেছি
আমার সকল পুষ্প আজ সেখানেই ছড়ালেম…

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন


Leave a Reply