পুকুর থেকে উদ্ধার সেই মাদ্রাসা ছাত্রের কাটা মাথা - Nobobarta

আজ সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৭:৫৫ অপরাহ্ন

পুকুর থেকে উদ্ধার সেই মাদ্রাসা ছাত্রের কাটা মাথা

পুকুর থেকে উদ্ধার সেই মাদ্রাসা ছাত্রের কাটা মাথা

  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
    7
    Shares

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার মাদ্রাসাছাত্র আবির হোসাইনের বিচ্ছিন্ন মাথাটি মাদরাসার ১০০ গজ দূরের একটি পুকুর থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। মরদেহ উদ্ধারের প্রায় ২৪ ঘণ্টা পর তার মাথা উদ্ধার করা হলো। বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পুলিশ ও ডুবুরি দল যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে আবিরের মাথাটি উদ্ধার করে।

এর আগে বুধবার (২৪ জুলাই) সকালে মাদরাসার নিকটবর্তী ইটভাটার পাশ থেকে ওই ছাত্রের মাথাবিহীন মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছিল। নিহত আবির হোসাইন ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের দুবাই প্রবাসী আলী হোসেনের ছেলে। চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. কলিমুল্লাহ গণমাধ্যমকে জানান, বুধবার রাতেই খুলনা থেকে একটি বিশেষ ডুবুরি দল আসে চুয়াডাঙ্গায়। তাদের সহযোগিতায় জেলা পুলিশের একটি দল ও ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা কয়েক ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় আবিরের মাথাটি উদ্ধার করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে উদ্ধার অভিযান শুরু হয়। পরে মাদরাসার নিকটবর্তী মশিউর রহমানের পুকুরের উত্তর এলাকা থেকে মাথাটি উদ্ধার হয়।
চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার কয়রাডাঙ্গা নুরানি হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানায় মাস ছয়েক আগে আবির হোসেন (১১) ভর্তি হয়। ওই মাদরাসার নুরানি বিভাগের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র সে। মঙ্গলবার এশার নামাজের সময় সে নিখোঁজ হয়। ঘটনার পর জেলা পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম অনুসন্ধানে মাঠে নামে। দিনভর অনুসন্ধানের পর হত্যার নেপথ্য উন্মোচনে কিছুটা অগ্রসর হয় জেলা পুলিশ।

এদিকে, র‌্যাব সদর দফতর থেকে বুধবার (২৪ জুলাই) বিকেলে হেলিকপ্টারযোগে ডগস্কোয়াড নিয়ে র‌্যাবের একটি বিশেষ দল হত্যা রহস্য ও লাশের মাথা উদ্ধার করতে চুয়াডাঙ্গায় অভিযান শুরু করেছে। চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম (বার) রাত ১২ টায় আমাদের এ প্রতিনিধিকে জানান, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) সদর দফতর থেকে বুধবার বিকালে হেলিকপ্টারযোগে ডগস্কোয়াড নিয়ে র‌্যাবের একটি বিশেষ দল হত্যা রহস্য ও লাশের মাথা উদ্ধার করতে চুয়াডাঙ্গা আসে।

র‌্যাবের এই বিশেষ টিম বুধবার দিবাগত রাত ১১টা পর্যন্ত ঘটনাস্থলসহ আশপাশের কয়েক কিলোমিটার অনুসন্ধান চালিয়েও নিহত মাদরাসা ছাত্রের মাথা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়নি। দলটির ইনচার্জ ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদমর্যাদার কর্মকর্তা মাসুদ আলম।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন


Leave a Reply