পবিপ্রবি ক্যাম্পাসে যুগান্তর সাংবাদিক অবাঞ্ছিত – Nobobarta

আজ বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ০১:২৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
পবিপ্রবি ক্যাম্পাসে যুগান্তর সাংবাদিক অবাঞ্ছিত
ভূঁয়া সংবাদ প্রকাশের অভিযোগ

পবিপ্রবি ক্যাম্পাসে যুগান্তর সাংবাদিক অবাঞ্ছিত

জসিম উদ্দিন, দুমকি (পটুয়াখালী)প্রতিনিাধি : ভূঁয়া ও অসত্য সংবাদ প্রকাশের প্রতিবাদে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে দৈনিক যুগান্তরের স্থানীয় প্রতিনিধি কাজী বেলাল হোসেন দুলালকে অবাঞ্ছিত ঘোষনা করেছে ছাত্রলীগ। শনিবার সন্ধ্যায় ক্যাম্পাসে প্রতিবাদ বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তৃতাকালে ক্যাম্পাস ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: রাকিবুল ইসলাম এ ঘোষনা দেন।

জয়বাংলা পাদদেশের ওই সমাবেশে ক্যাম্পাস ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি- নাজমুল হাসান অন্তর, উপ-দপ্তর সম্পাদক সাইফুর রাফি, বেগম ফজিলাতুননেছা মুজিব হল শাখার সভাপতি রেজোয়ানা হিমেল প্রমুখ বক্তৃতা করেন। পরে টিএসসি ভবনের সংসদ কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দৈনিক যুগান্তরের ১নভেম্বর দ্বিতীয় সংস্করণ ১৬ পৃষ্ঠায় প্রকাশিত ’পবিপ্রবি ছাত্রলীগের নেতৃত্বে ছাত্রদলের শীর্ষ নেতারা’ শীর্ষক সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: রাকিবুল ইসলাম বলেন, একটি দুষ্টচক্র ছাত্রলীগের সুনাম ক্ষুন্ন, ভাবমূর্তি বিনস্টের উদ্দেশ্যে সম্পূর্ণ কাল্পনিক, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট তথ্যে সংবাদটি প্রকাশ করেছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অনৈতিক কর্মকান্ডের দায়ে বহি:স্কৃত ছাত্রলীগ নামধারী তথাকথিত সাংবাদিকের প্ররোচনায় মিথ্যে সংবাদটি প্রকাশ করেছেন।

প্রকাশিত সংবাদে ছাত্রদল নেতা হিসেবে যাদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে তাদের মধ্যে মাজেদুল হক একবছর পূর্বে লিখিত আবেদনে অব্যহতি নিয়ে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে চাকুরী নিয়ে বর্তমানে সারদা পুলিশ একাডেমিতে প্রশিক্ষনে রয়েছেন। অপর দু’জন রবিউল ইসলাম ও রুবেল গাজী শিক্ষা জীবন শেষ করে এক বছর আগেই ক্যাম্পাস ত্যাগ করে চলে গেছেন। তারা বিগত কমিটির হলশাখার সাবেক নেতা ছিলেন। বর্তমান কমিটিতে তাদের কোন অংশগ্রহন নেই এবং তারা ছাত্রদলে কখনও ছিলেন বলে আমাদের জানা নেই। অপর এক প্রশ্নের জবাবে সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধি কাজী দুলালকে নৈতিকতা বিবর্জিত হলুদ সংবাদিক আখ্যায়িত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন। প্রমান হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের ছবি সম্বলিত ১১হাজার টাকার একটি বিজ্ঞাপন বিল ডুপ্লিকেট করে ৪১হাজার টাকা বানিয়ে আত্মসাতের ডকুমেন্ট দেখিয়ে তদন্ত পূর্বক শাস্তির দাবি করেছেন।


Leave a Reply