নোবিপ্রবি’র শিক্ষক ফিরোজের উপর হামলায় শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন – Nobobarta

আজ শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৩:০৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
আজ উদয় সমাজ কল্যান সংস্থা সিলেটের ১২তম ওয়াজ মাহফিল দলীয় কার্যালয় সম্প্রসারণের লক্ষে আগৈলঝাড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির প্লট উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের কাছে হস্তান্তর যবিপ্রবিতে ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার বাংলাদেশের নতুন কমিটি গঠন আটোয়ারীতে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ উপলক্ষে এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত জবি রোভার দলের হেঁটে ১৫০ কিলোমিটার পরিভ্রমণের উদ্বোধন মারুফ-তানহার ‘দখল’ লক্ষ্মীপুরে রামগতি পৌরসভায় ৮ কোটি টাকার টেন্ডার জালিয়াতি চেষ্টার অভিযোগ নলছিটিতে যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার সভাপতি সরফরাজ, সম্পাদক লিটন রাজাপুরে আ.লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন-২০১৯ অনুষ্ঠিত সহকারী পরিচালক সমিতির নির্বাচন আগামীকাল!!
নোবিপ্রবি’র শিক্ষক ফিরোজের উপর হামলায় শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

নোবিপ্রবি’র শিক্ষক ফিরোজের উপর হামলায় শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

আব্দুর রহিম, নোবিপ্রবি প্রতিনিধি: নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি) ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে নোবিপ্রবি’র আব্দুল মালেক উকিল হলের প্রভোস্ট ও অনুজীব বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ড.ফিরোজের উপর হামলায় ঘটনায় নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন। ৩ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) সকাল ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে এই মাননববন্ধন শুরু হয়।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়েরর উপাচার্য ড. মো.দিদার-উল আলম, কোষাধ্যক্ষ ড.মো.ফারুক উদ্দীন, রেজিস্ট্রার মো.মমিনুল হক, প্রক্টর ড.নেওয়াজ মো.বাহাদুর, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড.গাজী মো.মহসীন, সাধারণ সম্পাদক মো.নাসির হোসেন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ।

মানববন্ধনে উপস্থিত শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ বলেন, শিক্ষকদের উপর হামলা কখনো মেনে নেওয়া যায় না। আমরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। শিক্ষকদের উপর হামলা এটা খুবই ন্যক্কারজনক ও নিন্দনীয় ঘটনা। ড.ফিরোজের উপর হামলায় জড়িতদের অনতিবিলম্বে সনাক্ত করে শাস্তির আওতায় নিয়ে আসতে হবে।অন্যথায় নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতি অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতিতে যাওয়ার হুশিয়ারি দেন। ড. ফিরোজের উপর হামলার ঘটনায় ২ সেপ্টেম্বর (সোমবার) শিক্ষক সমিতি প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে একটি বিবৃতিও দেন।

৩১ আগস্ট (শনিবার) দিবাগত রাতে ধুমপানের ধোঁয়াকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সফিকুল ইসলাম রবিন ও সাধারণ সম্পাদক এস এম ধ্রুব দু’গ্রুপের রাত নয়টা থেকে ১২ টা পর্যন্ত দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এইদিকে ১ সেপ্টেম্বর (রবিবার) দিবাগত রাতে ফের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটলে শিক্ষকসহ ১০ জন আহত হয় এবং ভাষা শহীদ আব্দুস সালাম হলটি বন্ধ ঘোষনা করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এই দিকে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার জন্য রাত দেড়টায় পুলিশি হেফাজতে শিক্ষার্থীদের হল থেকে বের করে নোয়াখালী জেলা শহর মাইজদীতে পৌঁছে দেওয়া হয়।

২ সেপ্টেম্বর (সোমবার) বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের একমাত্র হল ভাষা শহীদ অাব্দুস সালাম হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং জেলা পুলিশের উপস্থিতিতে দুপুর ২ টা থেকে ৪ টা পর্যন্ত দীর্ঘ ২ ঘন্টা তল্লাশি চালানো হয় এতে বিপুল পরিমান মদের বোতল, ধারালো অস্ত্র, লোহার রড ও পাইপ, লাঠিসোটাসহ মারামারির বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। এই বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. নেওয়াজ মো.বাহাদুর বলেন, শনিবার দিবাগত রাতে ধুমপানকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ১০ জনের মত আহত হয় এবং ভাষা শহীদ আব্দুস সালাম হলের ১৪/১৫ টি রুম ভাঙ্গচুরেরর ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে পুলিশ মোতায়েন করে ঘটনা নিয়ন্ত্রণে অানা হয়।

রবিবার দিবাগত রাতে আবারও দু’গ্রুপের সংঘর্ষ শুরু হলে আব্দুল মালেক উকিল হলের প্রভোস্ট ড.ফিরোজ অাহমেদ,জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের সহকারী প্রভোস্ট ইকবাল হোসেন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর আল আমিন শিকদার আহত হন। এই বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ২ টি অাহবায়ক কমিটি গঠন করেছে।হলের ক্ষয়ক্ষতি নিয়ে ভাষা শহীদ আব্দুস সালাম হলের ভারপ্রাপ্ত প্রভোস্ট কাওসার হোসেনকে আহবায়ক করে ৪ সদস্যদের একটি টিম গঠন করা হয়েছে। আর এইদিকে শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড.গাজী মো.মহসিনকে আহবায়ক করে উচ্চপর্যায়ের তদন্তের জন্য কারা কারা এই ঘটনার সাথে জড়িত এই নিয়ে ৭ সদস্যদের একটি টিম গঠন করা হয়েছে। আগামী ৫ কার্যদিবসের মধ্যে তাদেরকে রিপোর্ট জমা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। আর রিপোর্ট জমা দেওয়ার পরেই অভিযুক্ত শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


Leave a Reply