নার্স স্ত্রীকে লেখা স্বামীর প্রেমপত্র ভাইরাল – Nobobarta

আজ শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৩:০৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
উদয় সমাজ কল্যান সংস্থার ১২ তম ওয়াজ মাহফিল সম্পন্ন ১০ ডিসেম্বর উপাচার্যের দুর্নীতির ক্ষতিয়ান প্রকাশ করবে আন্দোলনকারীরা মার্শাল আর্ট ‘বিচ্ছু’ নিয়ে আসছেন সাঞ্জু জন আজ উদয় সমাজ কল্যান সংস্থা সিলেটের ১২তম ওয়াজ মাহফিল দলীয় কার্যালয় সম্প্রসারণের লক্ষে আগৈলঝাড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির প্লট উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের কাছে হস্তান্তর যবিপ্রবিতে ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার বাংলাদেশের নতুন কমিটি গঠন আটোয়ারীতে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ উপলক্ষে এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত জবি রোভার দলের হেঁটে ১৫০ কিলোমিটার পরিভ্রমণের উদ্বোধন মারুফ-তানহার ‘দখল’ লক্ষ্মীপুরে রামগতি পৌরসভায় ৮ কোটি টাকার টেন্ডার জালিয়াতি চেষ্টার অভিযোগ
নার্স স্ত্রীকে লেখা স্বামীর প্রেমপত্র ভাইরাল

নার্স স্ত্রীকে লেখা স্বামীর প্রেমপত্র ভাইরাল

Nurse

নার্স স্ত্রীকে নিয়ে একটি আবেগঘন প্রেমপত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন স্বামী। এখন সেই চিঠিই হৃদয় জয় করেছে বিশ্বের অসংখ্য মানুষের। আসলে, স্ত্রীকে তিনি এতোটাই ভালোবাসেন, শ্রদ্ধা করেন- সেই থেকেই এমন চিঠির উৎস বলে মনে করছেন নেটিজেনরা। স্বামী চিঠিতে লিখেছেন, ‘১৪ ঘণ্টা কাজ সেরে এসে আমার স্ত্রী জেসিকা ডিনার করছেন। ও কাজ থেকে আসে, ভালো করে খায়, ঘুমোয় এবং পরের দিন আবার কাজে যায়।’

ফিলিপ উর্টজ ও তার স্ত্রী জেসিকা নিউ ইয়র্কের রোমে থাকেন। জেসিকা স্ট্রোকের রোগীদের নার্স। ফিলিপ লক্ষ করেছেন জেসিকা ওভারটাইম কাজ করেন কিন্তু কোনোদিন অভিযোগ করেন না।

তিনি আরো লিখেছেন, ‘ও সকালে ওঠে রেডি হওয়ার জন্য। স্নান করে, চুল বাঁধে, কুকুরকে খেতে দেয়, আমাকে চুমু খেয়ে দরজা ভিড়িয়ে বেরিয়ে পড়ে। কাজের জায়গায় ও এমন কিছু মানুষকে সাহায্য করে যারা জীবনের সবচেয়ে খারাপ সময়ে রয়েছে। স্ট্রোক, গাড়ি দুর্ঘটনা, বাইক দুর্ঘটনা, পড়ে যাওয়া, ব্রেন ড্যামেজ ও আরো। ও বাবা, মা, বোন, ভাই, বন্ধু, পরিবারের সবার যত্ন করে।’ ফিলিপের চিঠি শেষ হয়েছে স্ত্রীর প্রতি অসম্ভব ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা দিয়ে। কঠোর পরিশ্রমী স্ত্রীর কাজকে সম্মান করেন তিনি। ফিলিপের কথায়, ‘আমার স্ত্রী আমার হিরো। আমি ওকে খুব ভালোবাসি।’

আসলে, জেসিকার কাজের জন্যই তার নিজের পরিবারের সাথে সময় কাটানো হয় না। রাতে ফিরে তখন একাই তিনি ডিনার করেন। কারণ ততক্ষণে সন্তান ও স্বামী ঘুমিয়ে পড়েন। যদিও এত পরিশ্রমের পরও পরদিন ফের কাজে যাওয়ার তাগিদ থাকে তার মধ্যে। ফিলিপের এই পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় খুবই প্রশংসা পেয়েছে। প্রায় ৮১ হাজার রিয়্যাকশন পেয়েছে সেটি। ১০ হাজার বার শেয়ারও হয়েছে।


Leave a Reply