দিন দিন সরিষা চাষে ঝুঁকছে লক্ষ্মীপুরের চাষীরা - Nobobarta

আজ রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:১৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
মাভাবিপ্রবিতে পদার্থ বিজ্ঞানে গবেষণা শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ঐক্যবদ্ধভাবে গণতন্ত্র মুক্তির আন্দোলনে থাকতে হবে : নজরুল ইসলাম খান কিশোরি ধর্ষনের অভিযোগে ঘিওরে কথিত সাংবাদিক কামাল গ্রেপ্তার পুঠিয়ায় জেন্ডার ভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধে পুরুষের দায়িত্ব ও ভূমিকা বিষয়ক আলোচনা সভা লিসা’র হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন খালেদা জিয়ার মুক্তি ছাড়া গণতন্ত্র মুক্তি পাবে না : খন্দকার লুৎফর জাবি উপাচার্যকে ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা করে কালো পতাকা প্রদর্শন আন্দোলনকারীদের মোহামেডানসহ ৪ ক্লাবে জুয়ার বর্ণাঢ্য আয়োজন জবিতে শুরু হচ্ছে আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় বিজনেস কেইস কম্পিটিশন আবৃত্তিকার কামরুল হাসান মঞ্জু’র মৃত্যুতে জাতীয় মানবাধিকার সমিতির শোক
দিন দিন সরিষা চাষে ঝুঁকছে লক্ষ্মীপুরের চাষীরা

দিন দিন সরিষা চাষে ঝুঁকছে লক্ষ্মীপুরের চাষীরা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  

 

কিশোর কুমার দত্ত, লক্ষ্মীপুর:
লক্ষ্মীপুরের চরাঞ্চল ও নদীর ধারে অতিরিক্ত ফসল হিসেবে সরিষা চাষ করে বেশ লাভবান হচ্ছেন চাষীরা। আমন ধান কাটার পর ইরি ধান লাগানোর আগ মুহুত্বে জমি কয়েক মাসের জন্য পরিত্যক্ত থাকে। আর সে সময়টুকুতেই সরিষার আবাদ করে চাষীরা। সরিষার ফুল মাটিতে পড়ে জমির উর্বরতা শক্তি বাড়ায় আর বাজার দর ভালো পাওয়ায় চাষে আগ্রহ বাড়ছে জেলার কৃষকদের। এদিকে সরিষা আবাদে মধু আহরণের কথা জানালেন স্থানীয় কৃষি বিভাগ।

সরজমিনে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চর রমনী মোহন, চরমেঘা, রায়পুরের চরবংশী, হায়দারগঞ্জ ও রামগতি উপজেলার চরপোঁড়াঘাছা এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে এখন সরিষা ফুলের সমারেহ। সরিষার হলুদ ফুলের অপরুপ দৃশ্য মানুষের মন কেড়ে নেয়। এসব সরিষা ফুলের সুবাসিত মৌ মৌ গন্ধে পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়া শিশুদের মন পুলকিত করে তুলছে। অপরদিকে মৌমাছি আর প্রজাপতির আনা গোনায় সরিষা মাঠগুলো হয়ে উঠেছে এখন অভয়াশ্রম। এমন দৃশ্য এখন জেলার বেশিরভাগ কৃষি জমিতে লক্ষ করা যায়।

চাষীরা জানান, আমন ধান কাটার পর জমি কয়েক মাসের জন্য পরিত্যক্ত থাকে। আর সেই সময়তে জমিতে অতিরিক্ত ফসল হিসেবে সরিষার চাষ করা হয়। অনুকুল আবহাওয়া, রোগ-বালাই না হওয়ায় এবং কম খরচে সরিষা চাষে বেশি লাভের আশা করছেন চাষিরা। বোরো ধান চাষের আগে সরিষা চাষ করে বাড়তি আয় হওয়ায় দিন দিন সরিষা চাষে এ অঞ্চলের কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে বলে জানান তারা।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর অতিরিক্ত উপ-পরিচালক কিশোর মজুমদার জানান, আমন ধান কাটার পর বোরো ধান লাগানোর আগ মুহুত্বে জমি কয়েক মাসের জন্য পরিত্যক্ত থাকে। আর সে সময়টুকুতেই কৃষকরা সরিষার আবাদ করে কৃষকরা। কম খরচে অধিক লাভ হওয়ায় দিন দিন সরিষা চাষে ঝুঁকছে কৃষক। চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় বাম্পার ফলনের আশাবাদী তিনি। একই সাথে এইসব জমিতে মধু আহরণের জন্য কয়েকটি মৌ-বাক্স স্থাপন করার উদ্যেগ নেয়া হয়েছে বলে জানান জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের এ কর্মকর্তা।

লাইক দিন এবং শেয়ার করুন


Leave a Reply