আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ – Nobobarta

আজ সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১:২৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর থেকে লাশ উদ্ধার সরকারি কর্মচারীদের জন্য নতুন নিয়ম জারি ভালুকায় বন বিভাগের জমি হতে কাটা শতাধিক কাঠ জব্দ রংপুরে দুুই সন্তানসহ অন্ত:সত্বা স্ত্রীকে হত্যা, স্বামী গ্রেফতার ইন্টারনেট থেকে মিথিলা ও ফাহমির ছবি সরাতে হাইকোর্টের নির্দেশ হলে দর্শক ফেরাতে সিনেমাকে ডিজিটালাইজড করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ভালুকা পাক হানাদার মুক্ত করতে স্বজন হারিয়েছি : এমপি কাজিম উদ্দিন আহাম্মেদ ধনু কোটালিপাড়ায় ৫০০ প্রতিবন্ধীর মাঝে কম্বল বিতরণ হয়রানী ও অফিস স্থানান্তর না করার দাবীতে লক্ষ্মীপুরে পল্লী বিদ্যুৎ গ্রাহদের মানববন্ধন রুম্পা হত্যা মামলায় রিমান্ডে ‘বয়ফ্রেন্ড’ সৈকত
আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

Awami League-Nobobarta

আজ ২৩ জুন (রোববার), দেশের বৃহত্তম, প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। ১৯৪৯ সালের আজকের এ দিনে পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী রোজ গার্ডেনে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশে স্বাধীনতাযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী এ দলটি ৭০ পেরিয়ে ৭১ বছরে পর্দাপণ করলো।

এ উপলক্ষে মাসব্যাপী বর্ণাঢ্য কর্মসূচি গ্রহণ করেছে আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের অঙ্গ, সহযোগী ও ভাতৃপ্রতীম সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকেও নেয়া হয়েছে নানা কর্মসূচি। জমকালো আয়োজন ও সাজসজ্জার মধ্য দিয়ে দিনটি পালিত হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দলের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সাড়ম্বরে উদযাপন করার জন্য আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের সকল জেলা, উপজেলাসহ সকল স্তরের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। ১৯৪৯ সালের এ দিনে প্রতিষ্ঠিত এ দলটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধসহ প্রতিটি গণতান্ত্রিক, রাজনৈতিক ও সামাজিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে এ দেশের গণমানুষের সংগঠনে পরিণত হয়। সাত দশকের লড়াই-সংগ্রামের অভিযাত্রায় আওয়ামী লীগ বাংলাদেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার ও অর্থনৈতিক মুক্তির অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য নিরন্তর সংগ্রাম অব্যাহত রেখেছে।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ এবং বিশিষ্টজনেরা মনে করেন- আওয়ামী লীগের অর্জন পাকিস্তান আমলের গণতান্ত্রিক মানুষের অর্জন, এই দলের অর্জন বাংলাদেশের অর্জন। জাতির জন্য যখন যা প্রয়োজন মনে করেছে, সেটি বাস্তবায়ন করেছে। সাত দশকের লড়াই-সংগ্রামের অভিযাত্রায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বাংলার মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার ও অর্থনৈতিক মুক্তির অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য নিরন্তর সংগ্রাম অব্যাহত রেখেছে। আওয়ামী লীগের অর্জিত সাফল্যের ধারাবাহিকতায় বাংলার জনগণ বিশ্বাস করে নির্ধারিত সময়ের আগেই বাংলাদেশ একটি উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে।

এ প্রসঙ্গে দলের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘আওয়ামী লীগ শুধু দেশের পুরনো ও সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দলই নয়, এটি গণতন্ত্র ও অসাম্প্রদায়িক ভাবাদর্শের মূলধারাও। প্রতিষ্ঠা থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত নানা আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ আমাদের সমাজ-রাজনীতির এ ধারাকে নিরবচ্ছিন্নভাবে এগিয়ে নিচ্ছে। তিনি এ দলটিকে দেশের অন্যতম প্রাচীন সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেন, ভাষা, স্বাধিকার, গণতন্ত্র ও স্বাধীনতা অর্জনে মহোত্তম গৌরবে অভিষিক্ত আওয়ামী লীগের সাত দশকের অভিযাত্রায় শান্তি, সমৃদ্ধি ও দিন বদলের লক্ষ্যে অবিচল বাঙালি জাতির মুক্তির দিশারী।’

জননেতা হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও শামসুল হকের নেতৃত্বে ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠিত হয়। জন্মলগ্নে এই দলের নাম ছিল ‘পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ’। জন্মলগ্ন থেকেই ধর্মনিরপেক্ষ-অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি, বাঙালি জাতীয়তাবাদ, গণতান্ত্রিক সংস্কৃতি, শোষণমুক্ত সাম্যের সমাজ নির্মাণের আদর্শ এবং একটি উন্নত সমৃদ্ধ আধুনিক, প্রগতিশীল সমাজ ও রাষ্ট্রব্যবস্থা নির্মাণের রাজনৈতিক-অর্থনৈতিক-সামাজিক ও সাংস্কৃতিক দর্শনের ভিত্তি রচনা করে আওয়ামী লীগ। যার প্রেক্ষিতে ১৯৫৫ সালের কাউন্সিলে ধর্মনিরপেক্ষ নীতি গ্রহণের মাধ্যমে অসাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক দল হিসেবে ‘পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগ’ নামকরণ করা হয়।

স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও জাতীয় ঐক্যের রূপকার আওয়ামী লীগ বাঙালি জাতির স্বতন্ত্র জাতি-রাষ্ট্র ও আত্মপরিচয় প্রতিষ্ঠার সুমহান ঐতিহ্যের প্রতীক। ১৯৭৫-এর ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যা করার পর ১৯৮১ সালের ১৭ মে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে বঙ্গবন্ধুকন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা দেশে ফিরে আসেন। আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা নবউদ্যমে সংগঠিত হয়। বর্তমানে আওয়ামী লীগ ক্ষমতাসীন দল। দেশ পরিচালিত হচ্ছে আওয়ামী লীগ সভাপতি, বঙ্গবন্ধু-কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। বর্তমানে উন্নয়নের বিভিন্ন সূচকে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ একটি আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়ে চলেছে।

কর্মসূচি: আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী স্মরণীয় করে রাখতে বর্ণাঢ্য কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন দলটি। দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকায় ও সারা দেশের সকল জেলা-উপজেলা পর্যায়ে দলের পক্ষ থেকে কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- ২৩ জুন (রোববার) সূর্যোদয় ক্ষণে কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও দেশব্যাপী আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন। সকাল সাড়ে ৮টায় রাজধানীর ধানমণ্ডিতে বঙ্গবন্ধু ভবনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন। বেলা ১১টায় টুঙ্গীপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের একটি প্রতিনিধি দল শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করবেন। টুঙ্গীপাড়ার কর্মসূচিতে দলের পক্ষ থেকে অংশ নেবেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য এস এম কামাল হোসেন, মারুফা আক্তার পপিসহ আরও অনেকে।

দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ২৪ জুন (সোমবার) বিকাল ৪টায় রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


Leave a Reply



Nobobarta © 2020। about Contact PolicyAdvertisingOur Family
Design & Developed BY Nobobarta.com