বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ০৫:১৪ অপরাহ্ন

English Version
প্রধানমন্ত্রীর নিকট জবি ছাত্রলীগ কর্মীর খোলা চিঠি

প্রধানমন্ত্রীর নিকট জবি ছাত্রলীগ কর্মীর খোলা চিঠি



  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

৪ঠা জানুয়ারি ১৯৪৮ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়ে ওঠা ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ । ১৯৪৮ থেকে আজ পর্যন্ত বাঙালি জাতির অধিকার আদায়ের যতগুলো আন্দোলয় হয়েছে তাতে নেতৃত্ব দিয়ে এসেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ।

 

এই ৭০বছরের ঐতিহ্যবাহী ছাত্রসংগঠন , বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ২৯তম সম্মেলন অনুষ্টিত হতে যাচ্ছে আগামী ৩১শে মার্চ ও ১ এপ্রিল । বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী , মাদার অফ হিউম্যানিটি , দেশরত্ন শেখ হাসিনা নির্বাচিত করবেন দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ ছাত্রসংগঠনের নেতৃত্ব । ২০১৯ সালের সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে একমাত্র তিনিই পারেন যোগ্য নেতৃত্ব নির্বাচন করতে । আপার উপর আমাদের সকলের সে আস্থা রয়েছে । ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বিভিন্ন সময়োপযোগী সাহসী সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছেন তিনি । নির্বাচনের আগে  ছাত্রলীগের ২৯তম সম্মেলনে আপার নতুন কোনো সময়োপযোগী সাহসী সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় পুরো দেশ ।

 

আপার নিকট বিনীত অনুরোধ যোগ্য নেতৃত্ব নির্বাচনে কোনো একক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে যেনো প্রাধান্য দেয়া না হয় । কেউ দিয়েই যাবে আর কেউ পেয়েই যাবে এমন দিনের সমাপ্তি ঘটবে আপার সময়োপযোগী সিদ্ধান্তের মাধ্যমে ইনশাআল্লাহ্‌ ।

 

আমি জানি আপনি পর্যন্ত হয়তো আমার কথাগুলো পৌছাবেনা তবুও বলতে চাই ১৯৪৮ থেকে শুরু করে আজ অবধি #জগন্নাথ_বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ শুধু সংগঠনকে দিয়েই গেছে । বাঙালির অধিকার আদায়ের সকল আন্দোলনে আমরা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের হয়ে লড়ে গেছি , প্রাপ্য পাই নি কিছুই । ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে শহীদ হওয়া মোহাম্মদ রফিক উদ্দিন , যিনি ছিলেন ততকালীন জগন্নাথ কলেজের হিসাব বিজ্ঞানের ছাত্র । যার রক্তে রঞ্জিত হয়েছিল রাজপথ আর বাঙালি পেয়েছিল বাংলা ভাষায় কথা বলার স্বাধীনতা ।

 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ,

 

আপনি জানেন দলের দুর্দিনে কোন ইউনিট পাশে ছিল , কোনো ইউনিটের নেতারা সবচেয়ে বেশী ত্যাগী । ২০১৯ সালে আসিতেছে আবার সেই দুর্দিন । কারা মাঠে থেকে সকল অপশক্তিকে মোকাবেলা করতে পারে তা আপনি ভালো করেই জানেন ।

আমাদের নেই হল , তারপরেও সকল জাতীয় প্রোগ্রামে #জগন্নাথবিশ্ববিদ্যালয়ছাত্রলীগের উপস্থিতি থাকে সবচেয়ে বেশী । বুক ফুলিয়ে বলতে পারি , “আমরা হলের সিটের জন্য ছাত্রলীগ করি না , বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ভালোবাসি তাই ছাত্রলীগ করি ” ।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শীর্ষস্থানীয় দুজন নেতার একজন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের হওয়া এখন সময়ের দাবী ।

 

জয় বাংলা

জয় বঙ্গবন্ধু ।

জয় হোক দেশরত্ন শেখ হাসিনার ।

 

লেখকঃ আশিকুর রহমান আশিক

ছাত্রলীগ কর্মী, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

লাইক দিন

Please Share This Post in Your Social Media




Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.



© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com