,

আরলি স্টেজে ব্রেস্ট ক্যান্সার নিরাময় সম্ভব

অামার মা ব্রেস্ট ক্যান্সারের পেশেন্ট ছিলেন। আরলি সেজে ক্যান্সার সনাক্ত হওয়ায় মা চিকিতসা নিয়ে এখন ক্যান্সারমুক্ত (যদিও জটিল এ অসুখের নানা পার্শপ্রতিক্রিয়া বছর জুড়ে তার শরীরে লেগেই থাকে)। এ অসুখ সম্পর্কে  আগে ধারণা না থাকায় ক্যান্সার মানে ভাবতাম ‘এ অসুখে মরন ছাড়া কপালে আর কিছু লেখা নেই বোধহয় ’।

কিন্তু মায়ের চিকিতসার সময় আগাগোড়া তার পাশে ছিলাম বিধায় বুঝতে পেরেছি এ রোগের জীবনমৃত্যু নির্ভর করে রোগটির স্টেজের ওপর। অর্থাত ক্যান্সার ( বিশেষত ব্রেস্ট ক্যান্সার ) আরলি  স্টেজে সনাক্ত ও দ্রুত  প্রোপার চিকিতসা পেলে নিরাময় অনেকটাই সম্ভব। দু-একজন মহিলাকে চিনতাম যারা শরীরে এ রোগের অস্তিত্ব  বুঝতে পেরেও  লজ্জায় তাদের স্বামী এমনকি মেয়ের কাছেও অসুখের কথাটি প্রকাশ করতে পারেননি। যার পরিনতিতে -তাদের সাজানো সংসার তছনছ হতে সময় লাগেনি ।জানিনা কেন আজও কিছু মহিলা এ রোগ প্রকাশে এত সংকোচ বোধ করেন কেন ?

চলুন …..যারা(মহিলা) ৪০ এ পৌছে গিয়েছি /যাওয়ার পথে  তারা প্রতিবছর  একবার  হলেও ব্রেস্ট স্ক্রিনিং করাই। হয়তো আরলি স্টেজ ডায়াগনসিস আমাদের  প্রাণ বাঁচাবে আর সেসাথে  আমাদের পরিবারের সবার মুখের হাসিটাও বাঁচিয়ে রাখবে। নারীর শরীরের সবচেয়ে সুন্দর,স্পর্শকাতর,কোমল এ অঙ্গটিতে কর্কট নামক পোকার কামড় বসানোর আগেই না হয় আমরা সচেতন হই। অক্টোবর মাস ব্রেস্ট ক্যান্সার সচেতনতার মাস। তাই আজই সময় আমার -আপনার-আমাদের  শরীরের ফুল  দুটির প্রতি সচেতন হবার ।

লেখক: সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি (লিগ্যাল), বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


Udoy Samaj

টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com